300X70
শনিবার , ৪ ডিসেম্বর ২০২১ | ১৭ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
  1. অপরাধ ও দূর্নীতি
  2. আইন ও আদালত
  3. আনন্দ ঘর
  4. আনন্দ ভ্রমন
  5. আবহাওয়া
  6. আলোচিত খবর
  7. উন্নয়নে বাংলাদেশ
  8. এছাড়াও
  9. কবি-সাহিত্য
  10. কৃষিজীব বৈচিত্র
  11. ক্যাম্পাস
  12. খবর
  13. খুলনা
  14. খেলা
  15. চট্টগ্রাম

আন্তর্জাতিক অঙ্গনে তােলপাড়

প্রতিবেদক
বাঙলা প্রতিদিন২৪.কম
ডিসেম্বর ৪, ২০২১ ১:৩৬ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক, বাঙলা প্রতিদিন: আজ শনিবার (৪ ডিসেম্বর)। এই দিনে যৌথবাহিনী মিলে পাকবাহিনীকে ক্রমশ পঙ্গু করতে থাকে। সীমান্ত শহর দর্শনা মিত্রবাহিনীর দখলে চলে আসে।

ভারতীয় সেনা, নৌ ও বিমানবাহিনী পাকবাহিনীর ওপর প্রচণ্ড আক্রমণ চালায়। চতুর্দিক থেকে যৌথবাহিনী এগিয়ে আসে। ঢাকা ও ৪ট্টগ্রামে অবস্থিত শর্কর খাটিতে টিতে চলে বােমাবর্ষণ।

ঢাকা ও চট্টগ্রামের চলে বিমানযুদ্ধ। দিনটি বাংলাদেশের জন্য ছিল অস্থিরতা আর উদ্বেগের। পাকিস্থানে পক্ষে যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিনিধি সিনিয়র জর্জ বুশ জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে যুদ্ধবিরতির প্রস্তাব উত্থাপন করেন। নিরাপত্তা পরিষলে দাবি- ‘এই মুহুর্তে ভারত ও পাকিস্টান নিজ নিজ সীমান্তে সৈন্য প্রত্যাহার করে নিতে হবে।”

তখন প্রবাসী বাংলাদেশ সরকারের অায়ী রাষ্ট্রপতি সৈয়দ নজরুল ইসলাম এবং প্রধানমন্ত্রী তাজউদ্দীন আহমদ লিথিপত্রে ভারতের প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধির কাছে বাংলাদেশকে স্বীকৃতি দেওয়ার আহান জানান। যুদ্ধবিরতি প্রস্তাব পাস করানাের জন্য যুক্তরাষ্ট্র তথন বৈঠকের পর বৈঠক কছে। সবাই যখন চরম উদ্বেগের মধ্যে তখন এলাে খুশির সংবাদ ।

সােভিয়েত ইউনিয়নে ভোটার কারণে যুক্তরাষ্ট্রের যুদ্ধবিরতির প্রস্তাব বানচাল ল্পে লেঃ। পােলাও প্রস্তাবের বিপক্ষে ভোট দেয়। ফ্রান্স ও ইংল্যান্ড যুদ্ধবিরতির প্রস্তাবে টদান থেকে বিরত থাকে। প্রস্তাবে যুক্তরাষ্ট্র হেরে যাওয়ার পর পাকিস্তানের পরাজয় শুরু হয়। রাতে আখাউড়ায় পাকবাহিনীর সঙ্গে প্রচণ্ড পােলা বিনিময় হয়।

সামরিক পরিভাষায় একে বলা হয়- ‘এঞ্জে অব শ্ব আর্মস ফায়ার”। যৌথবাহিনীর তীব্র আক্রমণে পাকবাহিনী বাংলাদেশের প্রতিটি জায়গা থেকে পালানাের পথ খুঁজতে থাকে। সারারাত ত্রিমুখী যুদ্ধের পর ৫ ডিসেম্বর ভােরে যৌথবাহিনী কাছে পাকবাহিনীর অধিনায়ক লেফটেনা; কর্নেল আব্দুল লেইম খান দলবলসহ আত্মসমর্পণ করতে

 

সর্বশেষ - খবর

ব্রেকিং নিউজ :