300X70
বুধবার , ২২ মে ২০২৪ | ৩১শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
  1. অপরাধ ও দূর্নীতি
  2. আইন ও আদালত
  3. আনন্দ ঘর
  4. আনন্দ ভ্রমন
  5. আবহাওয়া
  6. আলোচিত খবর
  7. উন্নয়নে বাংলাদেশ
  8. এছাড়াও
  9. কবি-সাহিত্য
  10. কৃষিজীব বৈচিত্র
  11. ক্যাম্পাস
  12. খবর
  13. খুলনা
  14. খেলা
  15. চট্টগ্রাম

এমপি আনারের মরদেহ কলকাতার নিউ টাউনের সঞ্জিভা গার্ডেন এলাকা উদ্ধার

প্রতিবেদক
বাঙলা প্রতিদিন২৪.কম
মে ২২, ২০২৪ ৪:০৮ অপরাহ্ণ

বাঙলা প্রতিদিন ডেস্ক : চিকিৎসার জন্য ভারতের পশ্চিমবঙ্গে গিয়ে এক সপ্তাহের বেশি সময় ধরে নিখোঁজ ঝিনাইদহ-৪ আসনের সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আজীম আনারের মরদেহ কলকাতা থেকে উদ্ধার করা হয়েছে। নিউ টাউনের সঞ্জিভা গার্ডেন এলাকা থেকে এ সংসদ সদস্যের মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন আনোয়ারুল আজীম আনারের ব্যক্তিগত সহকারী (পিএস) আব্দুর রউফ। বাসসের প্রতিবেদন

ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ উপজেলার নিশ্চিন্তপুর গ্রামের বাসিন্দা আনোয়ারুল আজীম পশ্চিমবঙ্গে যান ১২ মে।

পরদিন থেকে চিকিৎসকের কাছে গিয়ে আর ফেরেননি জানিয়ে ১৮ মে কলকাতার বরাহনগর থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন গোপাল বিশ্বাস নামে স্থানীয় এক ব্যক্তি।

গোপাল বিশ্বাস জিডিতে উল্লেখ করেন, ‘আনোয়ারুল আজীমের সঙ্গে তার ২৫ বছর ধরে পারিবারিক সম্পর্ক। ১২ মে সন্ধ্যা ৭টার দিকে আনোয়ারুল আজীম কলকাতার মণ্ডলপাড়া লেনে তার (গোপাল বিশ্বাস) বাড়িতে আসেন। তিনি কলকাতায় আসেন চিকিৎসা করাতে।

পরদিন (১৩ মে) স্থানীয় সময় (কলকাতা) বেলা পৌনে ২টার দিকে ডাক্তার দেখানোর জন্য গোপাল বিশ্বাসের বাড়ি থেকে বের হন আনোয়ারুল আজীম। যাওয়ার সময় তিনি (আনোয়ারুল) বলে যান, দুপুরে খাবেন না।

সন্ধ্যায় ফিরে আসবেন। পরে তিনি কলকাতা পাবলিক স্কুলের সামনে এসে নিজেই গাড়ি ডেকে চলে যান। ’ জিডির তথ্য অনুযায়ী, আনোয়ারুল আজীম সন্ধ্যায় গোপাল বিশ্বাসের বাসায় ফেরেননি।

এমপি আনোয়ারুল আজিমের হোয়াটসঅ্যাপ থেকে পরে মেসেজ আসে। তাতে লেখা ছিল, ‘আমি বিশেষ কাজে দিল্লিতে চলে যাচ্ছি। ফোন করবো, তোমাদের ফোন করার দরকার নেই’।

এরপর ১৫ মে বেলা ১১টা ২১ মিনিটে ফের হোয়াটসঅ্যাপে মেসেজ আসে, ‘আমি দিল্লিতে পৌঁছেছি। আমার সাথে ভিআইপিরা আছেন। ফোন করার দরকার নেই’।

এই একই মেসেজ নিজের বাড়িতে এবং নিজের পিএ’কে ফরওয়ার্ড করা হয় এমপির হোয়াটসঅ্যাপ নম্বর থেকে।

থানার ওই ডায়েরিতে গোপাল আরও জানান, গত ১৬ মে সকালে এমপির পিএ ফোনকল করলেও তা রিসিভ করেননি তিনি। পরে কলব্যাকও করেননি। এরপর ১৭ মে এমপির মেয়ে তাকে ফোন করে বলেন, ‘আমার বাবার সাথে কোনোভাবে যোগাযোগ করতে পারছি না’।

এরপরই আমি উনার যাবতীয় পরিচিতদের সঙ্গে যোগাযোগ করি এবং সবাই তারপর থেকে ওনাকে ফোনকল করেও সাড়া পাচ্ছেন না। সে কারণেই আমি বরানগর থানায় মিসিং ডায়েরি করেছি।’

সর্বশেষ - খবর

আপনার জন্য নির্বাচিত

সাংবাদিকরা সমাজের উন্নয়নে বড় ধরনের ভূমিকা পালন করছেন: জিএম কাদের

বিনিয়োগ বাড়াতে বাংলাদেশের সাথে নিবিড়ভাবে কাজ করার আশাবাদ ব্যক্ত করল জাপান

মা-বাবাকে মুক্তি দিতে প্রেমিকাকে ফেরত, তারপরও প্রাণ গেল তরুণের

স্মার্ট ভিলেজ মেলায় কিউআরকোড অ্যান্ড এনএফসি ভিত্তিক ‘চিকিৎসা’ অ্যাপ উদ্বোধন

ঝিনাইদহ পৌর যুবলীগের সাবেক সেক্রেটারী তহিদুল এখন রিকশা চালক

চড়া মাছ ও ডিমের বাজার

সোমালিয়ান জলদস্যুরা ১৫ মিনিটেই জাহাজের দখল নেয়, কেমন আছেন তারা

ভারতে ট্রেন দুর্ঘটনায় নিহত বেড়ে ২৮৮, আহত ৯০০

আজ মাইকেল মধুসূদন দত্তের ১৪৮তম প্রয়াণ দিবস

‘ঝুঁকিপূর্ণ কারওয়ান বাজারের মার্কেট ধসে ঘটতে পারে ভয়াবহ দূর্ঘটনা : মেয়র মোঃ আতিকুল ইসলাম

ব্রেকিং নিউজ :