300X70
বুধবার , ১৩ সেপ্টেম্বর ২০২৩ | ৬ই শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
  1. অপরাধ ও দূর্নীতি
  2. আইন ও আদালত
  3. আনন্দ ঘর
  4. আনন্দ ভ্রমন
  5. আবহাওয়া
  6. আলোচিত খবর
  7. উন্নয়নে বাংলাদেশ
  8. এছাড়াও
  9. কবি-সাহিত্য
  10. কৃষিজীব বৈচিত্র
  11. ক্যাম্পাস
  12. খবর
  13. খুলনা
  14. খেলা
  15. চট্টগ্রাম

কেন জি-২০ বাংলাদেশের আসন্ন সাধারণ নির্বাচনে শেখ হাসিনাকে জিততে সহায়তা করতে পারে?

প্রতিবেদক
বাঙলা প্রতিদিন২৪.কম
সেপ্টেম্বর ১৩, ২০২৩ ১১:৪৩ পূর্বাহ্ণ

বাঙলা প্রতিদিন ডেস্ক : ইন্ডিয়া ন্যারেটিভের এক প্রতিবেদনে বলা হচ্ছে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বর্তমানে তার সফল ভারত সফরের গৌরব উপভোগ করছেন, যেখানে তিনি কেবল জি-২০ শীর্ষ সম্মেলনেই অংশ নেননি, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিসহ বিশ্ব নেতাদের সাথে বেশ কয়েকটি দ্বিপাক্ষিক বৈঠকও করেছেন। গত এক সপ্তাহ ছিল বাংলাদেশের জন্য অ্যাকশন প্যাকড। রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই ল্যাভরভ এবং ফরাসি প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁকেও স্বাগত জানিয়েছে দক্ষিণ এশিয়ার দেশটি।

সম্মেলনের একদিন আগে ল্যাভরভ ঢাকায় এসে শেখ হাসিনাসহ জ্যেষ্ঠ নেতাদের সঙ্গে বৈঠক করেন এবং ম্যাক্রোঁ সম্মেলনের পরপরই দুই দিনের সফরে দক্ষিণ এশিয়ার দেশটিতে যান। ল্যাভরভের ঢাকা সফর রাশিয়ার প্রথম সফর।
ঢাকায় ম্যাক্রোঁ বলেন, ‘বাংলাদেশ ক্রমান্বয়ে বিশ্ব মঞ্চে তার স্থান পুনরুদ্ধার করছে।
গত মাসে জোহানেসবার্গে ব্রিকস শীর্ষ সম্মেলনেও যোগ দেন শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, জি-২০ শীর্ষ সম্মেলনে যোগ দিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নয়াদিল্লি সফরের পর বাংলাদেশের মনোভাব খুবই ইতিবাচক।


  • জি-২০ : বাংলাদেশ ক্রমান্বয়ে বিশ্ব মঞ্চে তার স্থান পুনরুদ্ধার করছে
    অনুপ সিনহা
    * ইন্ডিয়া ন্যারেটিভের প্রতিবেদন


জ্যেষ্ঠ সাংবাদিক ও রাজনৈতিক বিশ্লেষক সৈয়দ বদরুল আহসান ইন্ডিয়া ন্যারেটিভকে বলেন, ‘এটি বাংলাদেশে তার ভাবমূর্তিকে উল্লেখযোগ্যভাবে উন্নত করেছে। আহসান বলেন, ‘জি-২০ শীর্ষ সম্মেলন এবং সম্মেলনে অন্যান্য নেতৃবৃন্দের সঙ্গে তার সম্পৃক্ততা বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীকে অনেক সুনাম অর্জনে সহায়তা করেছে।

জি-২০ শীর্ষ সম্মেলনে বাংলাদেশের জন্য অন্যতম আকর্ষণ হচ্ছে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন শেখ হাসিনা ও তার মেয়ে সায়মা ওয়াজেদের সঙ্গে সেলফি তোলা, যখন যুক্তরাষ্ট্র সাধারণ নির্বাচন কে সামনে রেখে ঢাকার ওপর চাপ বাড়াচ্ছে। গত মে মাসে যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় দেশে গণতান্ত্রিক নির্বাচন প্রক্রিয়াকে ক্ষতিগ্রস্ত কারী বাংলাদেশিদের বিরুদ্ধে ভিসা নিষেধাজ্ঞা ঘোষণা করে।

দ্য বিজনেস স্ট্যান্ডার্ড (বাংলাদেশ) (টিবিএস) উল্লেখ করেছে যে বাইডেনের “প্রধানমন্ত্রী এবং তার কন্যার সাথে হাসিখুশি সেলফি দেখায় যে সম্পর্ক উত্তেজনাপূর্ণ নয়।

“যদিও বাইডেনের সেলফি প্রশ্নবিদ্ধ নয়, তবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাথে সেলফি সুদূরপ্রসারী প্রভাব ফেলেছে, যা গত কয়েক মাস পরে দুই দেশের সম্পর্কের অবনতির সংকেত হিসাবে দেখা হচ্ছে,” পত্রিকাটি বলেছে, এটি জানুয়ারিতে অনুষ্ঠেয় জাতীয় নির্বাচনের আগে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের মনোবল বাড়ানোর হিসাবে বিবেচিত হচ্ছে।

সেলফি পর্বটি শুধু বাংলাদেশে ই নয়, ভারতেও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে।

আহসান অবশ্য বলেছিলেন যে সেলফি পর্বটি যদিও একটি ইতিবাচক অঙ্গভঙ্গি, খুব বেশি গুরুত্ব সহকারে নেওয়া উচিত নয়। তিনি বলেন, “যদিও সেলফি পর্বটি নিয়ে খুব বেশি পড়া উচিত নয় এবং আমরা জানি না এটি যুক্তরাষ্ট্রের সাথে বাংলাদেশের সম্পর্কের কোনও পরিবর্তনের ইঙ্গিত দেয় কিনা, তবে এই ঘটনা ইতিবাচকতা জাগিয়ে তুলেছে।

বাইডেনের সেলফির পাশাপাশি ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী ঋষি সুনাকের হাঁটু গেড়ে বসে শেখ হাসিনার সঙ্গে কথা বলার ছবিও ইন্টারনেটে ঝড় তুলেছে।

হাজার হাজার বাংলাদেশি নাগরিক শেখ হাসিনার প্রশংসায় পঞ্চমুখ হয়েছেন। সোশ্যাল মিডিয়া হ্যান্ডেলগুলি এমন মন্তব্যে ভরে গিয়েছিল।

বিশ্লেষকরা বলছেন, গত কয়েক মাসে বাংলাদেশের সঙ্গে বিশ্বের সম্পৃক্ততা বৃদ্ধি একজন বিচক্ষণ রাষ্ট্রনায়ক ও দূরদর্শী নেতা হিসেবে শেখ হাসিনার ভাবমূর্তি আরও জোরদার করবে। শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ তার প্রবৃদ্ধির হার ত্বরান্বিত করতে সক্ষম হয়েছে। অস্থায়ী অনুমান অনুযায়ী, ২০২২-২৩ সালে এটি ৬.০৩ শতাংশ বৃদ্ধির হার রেকর্ড করেছে। দেশটি এখন ২০২৬ সালের মধ্যে স্বল্পোন্নত দেশের (এলডিসি) তালিকা থেকে বেরিয়ে যাওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছে।

আশ্চর্যজনকভাবে, সেলফি পর্বটি দেশের প্রধান বিরোধী দল বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলের পছন্দ হয়নি। বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, “সেলফিটা গলায় ঝুলিয়ে রাখুন। এটা আপনাকে অনেক সাহায্য করবে, ‘আপনারা জনগণকে বোঝানোর চেষ্টা করছেন যে বাইডেন এখন আপনাদের সঙ্গে আছেন।

জি-২০ সম্মেলনে যোগ দিতে ঢাকায় নয়াদিল্লির বিশেষ আমন্ত্রণভারত-বাংলাদেশ সম্পর্কের ওপরও সুদূরপ্রসারী প্রভাব ফেলেছে। জি-২০ এর উচ্ছ্বাস বাংলাদেশকেও গ্রাস করেছিল। দক্ষিণ এশিয়াথেকে আমন্ত্রিত একমাত্র দেশটি এ বছর জি-২০ তে আত্মপ্রকাশ করেছে।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন বলেন, ‘আমরা বিশ্বাস করি, নয়াদিল্লিতে জি-২০ শীর্ষ সম্মেলনে আমাদের মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর অংশগ্রহণ আমাদের দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের ‘সোনালী অধ্যায়’ বা ‘সোনালী অধ্যায়’-এ আরেকটি পালক যোগ করবে।

সর্বশেষ - খবর

আপনার জন্য নির্বাচিত

চীন থেকে করোনার ৩ লাখ ডোজ টিকা ও মেডিকেল সরঞ্জামাদি নিয়ে দেশে ফিরল বিমান বাহিনীর একটি সি-১৩০জে পরিবহন বিমান

এমপি মাহমুদ উস সামাদ চৌধুরীর মৃত্যুতে শ্রম প্রতিমন্ত্রীর শোক

মেঘনা নামে কুমিল্লা ও পদ্মা নামে ফরিদপুর বিভাগ হবে

এবার সরকারি বাংলো ফেরৎ পেলেন রাহুল গান্ধী

সাংবাদিক জাহাঙ্গীরের বিরুদ্ধে ডিজিটাল আইনে মামলায় র‍্যাকের উদ্বেগ

৫৫৫ বাংলাদেশিকে সুদান থেকে জেদ্দা নেওয়া হচ্ছে

সাউথইস্ট ব্যাংকের সাথে বাংলাদেশ ব্যাংকের চুক্তি স্বাক্ষর

নরসিংদীতে কাভার্ডভ্যান নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে নিহত ৩

চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের প্রায়োগিক আধুনিক প্রযুক্তির ব্যবহারের মাধ্যমে এগিয়ে যেতে হবে : অধ্যাপক ড. মাহবুবা নাসরীন

কমিটি ঘোষণার পর ঢাবিতে ছাত্রলীগের আনন্দ মিছিল