300X70
শনিবার , ৬ আগস্ট ২০২২ | ১৭ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
  1. অপরাধ ও দূর্নীতি
  2. আইন ও আদালত
  3. আনন্দ ঘর
  4. আনন্দ ভ্রমন
  5. আবহাওয়া
  6. আলোচিত খবর
  7. উন্নয়নে বাংলাদেশ
  8. এছাড়াও
  9. কবি-সাহিত্য
  10. কৃষিজীব বৈচিত্র
  11. ক্যাম্পাস
  12. খবর
  13. খুলনা
  14. খেলা
  15. চট্টগ্রাম

তেলের মূল্যবৃদ্ধিতে নার্ভাস হওয়ার কিছু নেই: জ্বালানি প্রতিমন্ত্রী

প্রতিবেদক
বাঙলা প্রতিদিন২৪.কম
আগস্ট ৬, ২০২২ ১২:৩২ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক ,বাঙলা প্রতিদিন: জ্বালানি তেলের বর্তমান মূল্যবৃদ্ধিতে নার্ভাস হওয়ার কিছু নেই বলে মন্তব্য করে বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বলেছেন, আন্তর্জাতিক বাজারে দাম কমলে দেশেও তেলের দাম কমানো হবে।

শনিবার (৬ আগস্ট) সকালে এক টেলিভিশনকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনি এ কথা বলেন।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, আমরা আগে থেকেই বারবার বলে আসছি আমাদের বিশ্ববাজারের সঙ্গে সমন্বয় করতে হবে। এখন আমাদের পিঠ ঠেকে গেছে, বৈশ্বিক প্রেক্ষাপটে তেলের দাম বাধ্য হয়েই বাড়িয়েছে সরকার।

তিনি বলেন, বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম করপোরেশনকে ব্যাপক লোকসানের হাত থেকে বাঁচাতেই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এখনও সময় আছে প্রয়োজন ছাড়া যেন আমরা যত্রতত্র ডিজেল ব্যবহার না করি। দেশবাসীকে একটু ধৈর্য ধরতেই হবে। জ্বালানি তেলের নতুন দাম হয়তো বা সবার জন্য সহনীয় হবে না। বৈশ্বিক প্রেক্ষাপটে সরকারের কাছে মূল্যবৃদ্ধি ছাড়া আর কোনও উপায় ছিল না।

তিনি আরও বলেন, আমাদের পার্শ্ববর্তী দেশ ভারতের কলকাতায় প্রতি লিটার ডিজেলের মূল্য ১১৪ টাকা, যদি ৯৪ টাকা করে ডলার হয়। এখন ডলারের দাম তো আরও বেড়ে গেছে, সেখানে আমরা ডিজেল বিক্রি করেছি ৮০ টাকায়। এই বিরাট ব্যবধানের কারণে বিশাল পরিমাণ তেল অবৈধভাবে পাচার হওয়ার একটা সম্ভাবনা থাকে। আমরা বিজিবিকে সীমান্তে কড়া পাহারা বসানোর কথা বলেছি।

জ্বালানি প্রতিমন্ত্রী বলেন, আমি বার বার বলে আসছি আপনারা সাশ্রয়ী হন, তেল কম ব্যবহার করেন, গাড়ি কম ব্যবহার করেন। কারণ, যানবাহন সেক্টরে সবচেয়ে বেশি ডিজেল ব্যবহার করা হয়। মাত্র ১০ শতাংশ ডিজেল ব্যবহার হতো বিদ্যুতে। আমি মনে করি, এখনো যানবহন নিয়ন্ত্রণ করার সময় আছে।

নসরুল হামিদ বলেন, আমাদের বিদ্যুৎ উৎপাদনে মাত্র ১০ শতাংশ ডিজেল ব্যবহার হয়। সবচেয়ে বেশি ডিজেল ব্যবহার হয় পরিবহন খাতে। এজন্য সবাইকে বলি আপনারা যত সম্ভব পারেন তেলের অপচয় কম করেন।

শুক্রবার (০৫ আগস্ট) মধ্যরাতে হঠাৎ করে বাংলাদেশে সব ধরনের জ্বালানি তেলের দাম ৪২ থেকে ৫২ শতাংশ বাড়িয়ে দেওয়া হয়। ডিজেল ও কেরোসিনের দাম লিটার প্রতি ৮০ টাকা থেকে ১১৪ টাকা করা হয়েছে। অর্থাৎ এই দাম বৃদ্ধির হার প্রায় ৪২ শতাংশ।

লিটার প্রতি পেট্রলের দাম ৮৬ টাকা থেকে ১৩০ টাকা করা হয়েছে। অকটেনের দাম বেড়েছে ৮৯ টাকা থেকে ১৩৫ টাকা। অর্থাৎ পেট্রল ও অকটেনের ক্ষেত্রে মূল্য বৃদ্ধির হার ৫০ শতাংশেরও বেশি। শুক্রবার রাত ১২টার পর থেকেই ভোক্তা পর্যায়ে নতুন এই মূল্য কার্যকর হয়েছে।

সর্বশেষ - খবর

আপনার জন্য নির্বাচিত

রোজায় সিএনজি স্টেশন বিকেল ৫টা থেকে রাত ১১টা পর্যন্ত বন্ধ

‘আকাশ কিনে চলুন টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে’ ক্যাম্পেইন শেষ

২৯ বছর কেউ মানুষের ভাগ্যোন্নয়নে কাজ করেনি : প্রধানমন্ত্রী

করোনা: বিশ্বে মৃত্যু-শনাক্ত কমেছে

করোনায় দেশে একদিনে আরো ২৩ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ৫৬৯ জন

এলপিজি গ্যাসের মূল্য ঘোষণা আজ

ঘূর্ণিঝড় ‘মোখা’ এ সেন্টমার্টিন দ্বীপের ক্ষতিগ্রস্তদের খাদ্য ও চিকিৎসা সহায়তা দিচ্ছে নৌবাহিনী

বাংলা-হিন্দিতে বিশ্বজুড়ে কলসেন্টার সেবা দেবে ফিফোটেক

বাউবি প্রো-উপাচার্য অধ্যাপক ড.মাহবুবা নাসরীনের এসএসসি পরীক্ষা পরিদর্শন

নিউইয়র্কে পাতাল রেলস্টেশনে গোলাগুলির ঘটনায় আহত ২৩

ব্রেকিং নিউজ :