300X70
মঙ্গলবার , ৫ মার্চ ২০২৪ | ৮ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
  1. অপরাধ ও দূর্নীতি
  2. আইন ও আদালত
  3. আনন্দ ঘর
  4. আনন্দ ভ্রমন
  5. আবহাওয়া
  6. আলোচিত খবর
  7. উন্নয়নে বাংলাদেশ
  8. এছাড়াও
  9. কবি-সাহিত্য
  10. কৃষিজীব বৈচিত্র
  11. ক্যাম্পাস
  12. খবর
  13. খুলনা
  14. খেলা
  15. চট্টগ্রাম

পাটখাতের উন্নয়নে আমূল পরিবর্তনের উদ্যোগ গ্রহণ করা হবে : বস্ত্র ও পাট মন্ত্রী

প্রতিবেদক
বাঙলা প্রতিদিন২৪.কম
মার্চ ৫, ২০২৪ ১:৩২ পূর্বাহ্ণ

বাঙলা প্রতিদিন ডেস্ক : পরিবেশবান্ধব পাটপণ্যের রপ্তানি ও জাতীয় অর্থনীতিতে অবদান বাড়াতে পাটখাতের আমূল পরিবর্তন করতে দ্রুত কার্যকর উদ্যোগ গ্রহণ করা হবে বলে জানিয়েছেন বস্ত্র ও পাট মন্ত্রী এবং বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য জাহাঙ্গীর কবির নানক।

আজ ঢাকার মতিঝিলে বাংলাদেশ জুট মিলস্ কর্পোরেশন (বিজেএমসি)-এর সম্মেলন কক্ষে ‘জাতীয় পাট দিবস’ উদ্যাপন উপলক্ষ্যে আয়োজিত ‘পাটজাত পণ্য উৎপাদন ও বিপণনে সম্ভাবনা, প্রতিবন্ধকতা ও করণীয়’ শীর্ষক সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী এসব কথা বলেন। সেমিনারে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মির্জা আজম এমপি। সভাপতিত্ব করেন বস্ত্র ও পাট সচিব মোঃ আব্দুর রউফ।

সেমিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন বিজেএমএ সভাপতি মোঃ আবুল হোসেন। এছাড়া ‘পাট শিল্পের উন্নয়নে এর বহুমুখীকরণ, সম্ভাবনা ও করণীয়’ শীর্ষক পেপার উপস্থাপন করেন বাংলাদেশ বহুমুখী পাটপণ্য উৎপাদক ও রপ্তানিকারক সমিতির সভাপতি মোঃ রাশেদুল করিম মুন্না। সেমিনারে পাটপণ্যের বহুমুখীকরণের ওপর জোর দিয়ে এখাতে উদ্যোক্তাবৃন্দ নানাবিধ পরামর্শ প্রদান করেন।

মন্ত্রী বলেন, বহুমুখী পাটপণ্য উৎপাদনে আরো বৈচিত্র্য আনতে হবে। ক্রেতা আকৃষ্ট হয় এমন ডিজাইন উদ্ভাবন করতে হবে। সফল রাষ্ট্রনায়ক প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পাট ও পাটজাত পণ্যের ওপর অনেক গুরুত্ব দিয়েছেন। তিনি দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের মাধ্যমে সরকার গঠনের পরে যতগুলো বক্তৃতা দিয়েছেন প্রত্যেকটিতে পাট ও চামড়া শিল্পের ওপর গুরুত্ব দিয়েছেন। পাট সম্পর্কে প্রধানমন্ত্রীর বার্তাটি গুরুত্বসহকারে অনুধাবন করে এবিষয়ে কর্মপরিকল্পনা প্রণয়ন ও বাস্তবায়ন করা হচ্ছে।

বিশ্বব্যাপী পরিবেশবান্ধব পাট ও পাটপণ্যের ব্যাপক চাহিদাকে গুরুত্ব দিয়ে পাটপণ্যের রপ্তানি বাড়াতে সবাইকে একসাথে কাজ করার কথা উল্লেখ করে নানক বলেন, পাটশিল্পে বেসরকারি খাতের উদ্যোগকে আরো উৎসাহিত করা হবে। এ লক্ষ্যে যা যা করণীয় তাই করা হবে। এর মাধ্যমে পাটপণ্যকে জাতীয় অর্থনীতির অন্যতম প্রধান খাত হিসেবে তৈরি করতে সক্ষম হবো।

সম্প্রতি জার্মানির ফ্রাঙ্কফুর্টে অনুষ্ঠিত আম্বিয়ান্তে ফেয়ারে অংশগ্রহণ সম্পর্কে মন্ত্রী বলেন, মেলায় বাংলাদেশ ছাড়াও বিভিন্ন দেশের পাটজাত পণ্যের ডিজাইন ও নিউ ট্রেন্ড দেখেছি। আমাদের অনেক উদ্যোক্তা চমৎকার পরিবেশবান্ধব পণ্য সামগ্রী নিয়ে মেলায় অংশগ্রহণ করেছে। এ মেলায় আমার অংশগ্রহণের অভিজ্ঞতা বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব পালনে বিশেষ ভূমিকা রাখবে।

সর্বশেষ - খবর

ব্রেকিং নিউজ :