300X70
শনিবার , ১ জুলাই ২০২৩ | ১৮ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
  1. অপরাধ ও দূর্নীতি
  2. আইন ও আদালত
  3. আনন্দ ঘর
  4. আনন্দ ভ্রমন
  5. আবহাওয়া
  6. আলোচিত খবর
  7. উন্নয়নে বাংলাদেশ
  8. এছাড়াও
  9. কবি-সাহিত্য
  10. কৃষিজীব বৈচিত্র
  11. ক্যাম্পাস
  12. খবর
  13. খুলনা
  14. খেলা
  15. চট্টগ্রাম

বিশ্বব্যাপী কাজ করছে বাউবি

প্রতিবেদক
বাঙলা প্রতিদিন২৪.কম
জুলাই ১, ২০২৩ ১:১৮ অপরাহ্ণ

বাউবি উপাচার্য অধ্যাপক ড. সৈয়দ হুমায়ুন আখতারের সফলতার দুই বছর

ড. মেজবাহ উদ্দিন তুহিন : বাঙলা প্রতিদিন ডেস্ক : বঙ্গবন্ধুর সার্বজনীন শিক্ষানীতির আলোকে উদ্দীষ্ট জনগোষ্ঠীর মাঝে শিক্ষা সেবা পৌঁছে দিয়ে কর্মমুখী শিক্ষায় দক্ষতা বৃদ্ধি করে জনসংখ্যাকে জনসম্পদে রূপান্তরের মাধ্যমে স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণে কাজ করে যাচ্ছে বাউবি।

দেশের সীমানা পেরিয়ে বিশ্বময় ছড়িয়ে পড়েছে বাউবির কর্মমুখী শিক্ষা। বাঙালি রেমিটেন্স যোদ্ধাদের জন্য সৌদি আরব, কাতার, কুয়েত, দক্ষিণ কোরিয়া ও ইতালিতে বাউবি’র স্টাডি সেন্টার চালু করা হয়েছে।

বিদেশের মাটিতে লেখাপড়ার সুযোগ পেয়ে প্রবাসে বাঙালি জনগণ দারুণ খুশি। বিদেশে বসবাসকারী বাংলাদেশী প্রবাসী অথবা বাংলাদেশী বংশোদ্ভূত প্রবাসীরা বাউবি’র অনলাইন প্ল্যাাটফর্ম ব্যবহার করে দূরশিক্ষণ পদ্ধতিতে লেখাপড়া করতে পারছে। বিদেশের মাটিতে লেখাপড়া ও পরীক্ষায় অংশগ্রহন করে পাচ্ছেন সার্টিফিকেট।

গতকাল শুক্রবার (৩০ জুন) বাউবি উপাচার্য অধ্যাপক ড. সৈয়দ হুমায়ুন আখতারের দায়িত্ব গ্রহণের দুই বছর পূর্তি উপলক্ষ্যে উপাচার্য বাসভবনে শিক্ষক, কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের অভিনন্দন জ্ঞাপন ও সৌজন্য সাক্ষাতকালে সকলের উদ্দেশ্যে বলেন, বিশ্বের বিভিন্ন দূতাবাস, প্রবাসী কল্যাণ সংস্থা, প্রবাসী গণ্যমান্য ব্যক্তি, শিক্ষাবিদসহ সকলের সহযোগিতা নিয়ে শ্রিঘ্রই ইউরোপ, উত্তর আমেরিকা, অফ্রিকা ও মধ্যপ্রাচ্যেরবিভিন্ন দেশে বাউবি’র স্টাডি সেন্টার খোলা হবে।

প্রবাসে অবস্থানকারীদের শিক্ষিত আত্মমযার্দাশীল, দক্ষ কর্মক্ষম ও জীবনযাত্রার মান বাড়াতে; এবং তাদের দক্ষতার সাথে সামঞ্জস্য রেখে বাউবি, নীড বেইজ প্রোগ্রাম, কোর্স ডিজাইন ও শিডিউল তৈরি করেছে।

জীবনের তাগিদে লেখাপড়া শেষ না করে আমাদের রেমিটেন্স যোদ্ধারা প্রবাসে অবস্থান করে অর্থনেতিক উন্নতিতে অবদান রাখছেন। আমরা যদি এসব জনবলকে শিক্ষার সুযোগ দিয়ে আন্তর্র্জাতিক পরিমণ্ডলে টিকে থাকার সুযোগ করে দিতে পারি তাহলে তারা আত্মবিশ্বাস ফিরে পাবে এবং তারাই হবে দেশের দক্ষ জনবল।

শিক্ষার্থীরা যাতে স্বাধীন ভাবে চিন্তা ও মানষিক বিকাশ ঘটাতে পারে সে জন্য জীবন ঘনিষ্ঠ শিক্ষা অর্জন জরুরি। শিক্ষার গুণগত পরিবর্তনের মাধ্যমে আমরা উন্নত বিশে^র মর্যাদায় পৌঁছতে পারব এবং কর্মমুখী শিক্ষায় জ্ঞান সৃজনের মাধ্যমে ভবিষ্যৎ ঝুঁকিমোকাবেলা করা সম্ভব।

কর্মমুখী শিক্ষার মাধ্যমে প্রবাস থেকে অধিক রেমিটেন্স অর্জনের মাধ্যমে আমাদের জিডিপি বৃদ্ধি পাবে।

ইতোমধ্যে বাউবি বাংলাদেশের জেলা উপজেলা, গ্রামগঞ্জ, দূর্গম পাবর্ত্য অঞ্চলের নৃ-গোষ্ঠী, সুবিধাবঞ্চিত, দরিদ্র, ঝরে পড়া শিক্ষার্থীদের দূর শিক্ষণের মাধ্যমে আলোকিত করতে পেরেছে।

বাউবি এসএসসি থেকে পিএইচডি পর্যন্ত বিভিন্ন শিক্ষা প্রোগ্রাম পরিচালনা করে আসছে।

এদিকে, মার্কিন সাবেক প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার ফটোগ্রাফারও বাউবি’র শিক্ষার্থী। সরকারের উচ্চ পর্যায়ের আমলা থেকে শুরু করে মাঠের কৃষক, শিল্পকারখানার শ্রমিক, নারী, গৃহিণী সবাই আমাদের শিক্ষার্থী।

দেশজুড়ে বিস্তৃত ১২টিআঞ্চলিক কেন্দ্র, ৮০টি উপ-আঞ্চলিক কেন্দ্র ,১,৫৬২টি স্টাডি সেন্টার নিয়ে বিসতৃত বাউবি’র কর্মকাণ্ড। ফরম্যাল নন-ফরম্যাল শিক্ষা প্রোগ্রামসহ সব বয়সের সকল পেশার মানুষ নিয়ে বাউবি প্রায় ৯ লাখ শিক্ষার্থীর বৃহৎ এক পরিবার। তিন দশকে বাউবি সক্ষম হয়েছে তার লক্ষ্যকে স্পর্শ করতে।

তিনি সকলের উদ্দেশ্যে আরও বলেন। স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মানে সকল শিক্ষক, কর্মকর্তা কর্মচারীকে এগিয়ে আসার আহবান জানান।

তিনি আরো বলেন, তারুণ্য দীপ্ত, প্রযুক্তিনির্ভর, সময়োপযোগী, গতিশীল ও সততা-শুদ্ধতার অনন্য আদর্শিক একটি প্রতিষ্ঠান হিসেবে বাউবিকে গড়ে তোলাই আমাদের লক্ষ।

উল্লেখ্য, ড. সৈয়দ হুমায়ুন আখতার ভূতত্ত্ববিদ হিসেবে আন্তজার্তিকভাবে সুপরিচিত। তিনি কলাম্বিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের ল্যামন্ট-ডোহার্টি আর্থ অবজারভেটরিতে গবেষণায় দীর্ঘদিন সম্পৃক্ত ছিলেন।

পাশাপাশি জার্মানি, ইংল্যান্ড, সিঙ্গাপুর ও ভারতে ভূতত্ত্ব গবেষণায় তিনি সংযুক্ত আছেন।
অতিথি বিজ্ঞানী হিসেবে তিনি ২০০৩ সালে ল্যামন্ট-ডোহার্টি আর্থ অবজারভেটরির সাথে সংযুক্ত হন। তিনি বাংলা পিয়ার (এনএসএ পিয়ার প্রজেক্ট) গবেষণা দলে হিমালয়ান ও বার্মিজ ডিফরমেশন ফ্রন্টে গবেষক হিসেবে কাজ করেছেন।

ড. সৈয়দ হুমায়ুন আখতার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আর্থ অবজারভেটরি ও ছয়টি স্থায়ী সিসমিক স্টেশন প্রতিষ্ঠা করেছেন। এর পাশাপাশি তিনি ৩০টি জিওডেটিক জিপিএস স্টেশন সিস্টেম এবং ২৭টি পোর্টেবল সিসমোগ্রাফের প্রতিষ্ঠাতা।

দেশে সিডিমেন্ট সেমপল রিপোজিটরি এবং ডাটা ব্যাংক প্রতিষ্ঠা করেছেন তিনি।বর্ণাঢ্য কর্মজীবনে তিনি বাংলাদেশ জিওলজিক্যাল সোসাইটি, বাংলাদেশ এসোসিয়েশন ফর দি এডভান্সমেন্ট অব সায়েন্স, বাংলাদেশ সোসাইটি অব জিও ইনফরমেটিকস, ইনকর্পোরেটেড রিসার্চ ইনস্টিটিউশনস ফর সিসমোলজি সহ বিভিন্ন গবেষণা প্রতিষ্ঠান ও পেশাজীবী সংগঠনের সাথে যুক্ত।

বাউবি’র নানামুখী কর্মকাণ্ডকে এগিয়ে নিয়ে তিনি সকল মহলের প্রশংসা অর্জন করেছেন। তিনি একাডেমিক মাস্টার প্ল্যান প্রণয়ন, একাডেমিক, প্রশাসনিক, মিডিয়া, তথ্যপ্রযুক্তি এবং মাঠ পর্যায়ে শিক্ষা সুবিধা বিস্তরণে গুরুত্ব দিয়ে সমন্বিত প্রয়াসের মাধ্যমে এগিয়ে নিয়ে চলেছেন।

তাঁর নির্দেশনা ও সরা সরি তত্ত্বাবধানে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশত বার্ষিকী অনুষ্ঠান, মুক্তিযুদ্ধ ভিত্তিক অনুষ্ঠান, লোক বক্তৃতা মালা, স্মারক বক্তৃতা, স্বাধীনতা, মুক্তিযুদ্ধ, বুদ্ধিজীবি দিবস, ভাষাদিবস, ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবসের অনুষ্ঠানসহ নানা বিষয়ের ওপর বাউবিতে মিডিয়া ডকুমেন্টরি তৈরি করা হয়েছে।

অবসারপ্রাপ্ত শিক্ষক, কর্মকর্তা কর্মচারীদের নিয়ে সম্মাননা অনুষ্ঠান, শিক্ষা সুবিধা বিস্তরণ, গবেষণায় উৎসাহিত করণ, সরকারের সাশ্রয়িকরণ নীতি জোরদার করণ, সংস্কৃতির বিকাশে উৎসাহ প্রদান, প্রশাসনিক স্ব”ছতা আনয়নসহ বাউবি’র নানামুখী কর্মকাণ্ডকে এগিয়ে নিয়ে তিনি সকল মহলের প্রশংসা অর্জন করেছেন।

তিনি একাডেমিক মাস্টার প্ল্যান প্রণয়ন, একাডেমিক, প্রশাসনিক, মিডিয়া, তথ্যপ্রযুক্তি এবং মাঠ পর্যায়ে শিক্ষা সুবিধা বিস্তরণে গুরুত্ব দিয়ে সমন্বিত প্রয়াসের মাধ্যমে এগিয়ে নিয়ে চলেছেন।

তাঁর নির্দেশনা ও সরাসরি তত্ত্বাবধানে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশত বার্ষিকী অনুষ্ঠান, মুক্তিযুদ্ধ ভিত্তিক অনুষ্ঠান, লোক বক্তৃতা মালা, স্মারক বক্তৃতা, স্বাধীনতা, মুক্তিযুদ্ধ, বুদ্ধিজীবি দিবস, ভাষাদিবস, ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবসের অনুষ্ঠান সহ নানা বিষয়ের ওপর বাউবিতে মিডিয়া ডকুমেন্টরি তৈরি করা হয়েছে।

অবসারপ্রাপ্ত শিক্ষক, কর্মকর্তা কর্মচারীদের নিয়ে সম্মাননা অনুষ্ঠান, শিক্ষা সুবিধা বিস্তরণ, গবেষণায় উৎসাহিত করণ, সরকারের সাশ্রয়িকরণ নীতি জোরদার করণ, সংস্কৃতির বিকাশে উৎসাহ প্রদান, প্রশাসনিক স্বচ্ছতা আনয়ন, বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন শিক্ষার্থী ও তৃতীয় লিঙ্গের শিক্ষার্থীদের সেবা বিস্তরণ, শিক্ষায় কোয়ালিটি অ্যাসুরেন্স নিশ্চিত করণ ও পরিবেশের উন্নয়ন সহ নানা মুখী কর্মকাণ্ডে অদম্য উদ্যোগ গ্রহন করেছেন।

অধ্যাপক ড. সৈয়দ হুমায়ুন আখতার ৩০ জুন ২০২১ তারিখে বাউবিতে দায়িত্বভার গ্রহণের পর কাজের গতি, সৃজনশীলতা এবং এপিএ তে বাউবি অভূতপূর্ব সাফল্য অর্জন করে । বাউবি ২০২১-২২ অর্থবছরের এপিএ মূল্যায়নে ১৬ ধাপ এগিয়ে ৯০.৪৯ পয়েন্ট পেয়ে দেশের ৪৬টি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে বাউবি ৪র্থ স্থান অর্জন করে।

তিনি সবার জন্য উন্মুক্ত-কর্মমুখী, গণমুখী ও জীবনব্যাপী শিক্ষা এই নবতর দীক্ষা নিয়ে কাজ করে যাচ্ছেন। অধ্যাপক ড. সৈয়দ হুমায়ুন আখতার বলেনতথ্য প্রযুক্তি যে গতি ও প্রযুক্তিতে এগিয়ে যাচ্ছে আমাদেরকেও সেই গতিতে বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা বিণির্মাণে এবং চতুর্থ শিল্পবিপ্লবের উপযোগী শিক্ষার মান উন্নয়নে এগিয়ে যেতে হবে।

ড. মেজবাহ উদ্দিন তুহিন : লেখক ও কলামিষ্ট, পরিচালক (ভারপ্রাপ্ত), তথ্য ও গণসংযোগ বিভাগ, বাউবি।

সর্বশেষ - খবর

আপনার জন্য নির্বাচিত

ফার্স্ট সিকিউরিটি ইসলামী ব্যাংকের ২টি এজেন্ট ব্যাংকিং আউটলেটের উদ্বোধন

বাউবি প্রবাসী রেমিটেন্স যোদ্ধাদের দক্ষতা বৃদ্ধিতে নীডবেইজ শিক্ষা প্রোগ্রাম চালু করবে

বৃহস্পতিবার শাফি হোসেন চিশতী ইউশার ৫ম মৃত্যুবার্ষিকী

সুপ্রিম কোর্টে নতুন তিন বিচারপতি নিয়োগ

‘বিদেশে পালানোর পরিকল্পনা ছিলো মেয়র আব্বাসের’

এক ইনিংসে ৪২৮ রান করা সেই পাকিস্তানি ক্রিকেটারের মৃত্যু

শুরু হলো বাংলালিংক-এর হাউজ্জ্যাট

দ্বিতীয় পর্বের সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষার প্রবেশপত্র সংগ্রহের অনুরোধ

বাউবি শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক রেজানুর ও সম্পাদক শহীদুর

ধর্ষণ মামলায় আ.লীগের সাবেক এমপি জেল হাজতে

ব্রেকিং নিউজ :