300X70
মঙ্গলবার , ২ এপ্রিল ২০২৪ | ৮ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
  1. অপরাধ ও দূর্নীতি
  2. আইন ও আদালত
  3. আনন্দ ঘর
  4. আনন্দ ভ্রমন
  5. আবহাওয়া
  6. আলোচিত খবর
  7. উন্নয়নে বাংলাদেশ
  8. এছাড়াও
  9. কবি-সাহিত্য
  10. কৃষিজীব বৈচিত্র
  11. ক্যাম্পাস
  12. খবর
  13. খুলনা
  14. খেলা
  15. চট্টগ্রাম

বুয়েটের ছাত্ররা যেনো ছাত্র থাকে : জিএম কাদের

প্রতিবেদক
বাঙলা প্রতিদিন২৪.কম
এপ্রিল ২, ২০২৪ ৭:২৯ অপরাহ্ণ

বাঙলা প্রতিদিন ডেস্ক :  বিরোধীদল নেতা ও জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যান জনবন্ধু গোলাম মোহাম্মদ কাদের এমপি বলেছেন, শিক্ষার মান ঠিক রাখতে না পারলে হাজার হাজার কোটি টাকা ব্যয় করে কোন লাভ হবে না। আমাদের অনেকগুলো বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার মান আন্তর্জাতিক ভাবে উন্নত ছিলো। ইঞ্জিনিয়ারিং ইউনিভার্সিটি বাদে আমাদের সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার মান কমে যাচ্ছে। ইঞ্জিনিয়ারিং ইউনিভার্সিটির শিক্ষার মান ভালো থাকুক এটা আমরা চাই। বুয়েটের শিক্ষার মান নষ্ট করার চেষ্টা করবেন না। বুয়েটের ছাত্ররা যেনো ছাত্র থাকে। বুয়েটে ছাত্র অবস্থায় আমি রাজনীতিবিদ হয়নি, পাশ করে রাজনীতিবিদ হয়েছি। সবার কাছে আহবান রাখছি, আমাদের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গুলোতে যেনো শিক্ষার পরিবেশ বজায় থাকে। তিনি বলেন, দেড় লাখ ইলেক্ট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) এর মধ্যে ১ লাখ ১০ হাজার ইতোমধ্যেই অকেজো হয়ে পড়েছে। এতে রাষ্ট্রের ক্ষতি হয়েছে আড়াই হাজার কোটি টাকা। ১০ বছর মেয়াদি ক্রয়কৃত ইলেক্ট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) ৫ বছরেই শেষ। বাকি ৪০ হাজার ভোটিং মেশিনও অকেজো হওয়ার পথে। বেশির ভাগ ইভিএম-ই এখন অকেজো। শেষ পর্যন্ত ৪ হাজার কোটি টাকার প্রকল্পের অধিন কেনা ইভিএম সম্পদের বিলুপ্তি ঘটতে যাচ্ছে।

আজ বিকেলে ডিপ্লোমাইঞ্জিনিয়ার্স মিলনায়তনে জাতীয় যুব সংহতির পরিচিতি সভা ও ইফতার অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে গোলাম মোহাম্মদ কাদের এ কথা বলেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে গোলাম মোহাম্মদ কাদের আরো বলেন, কক্সবাজারের মাতারবাড়ী বিদ্যুৎকেন্দ্রের জন্য আমদানি করা জার্মানির তৈরি দুটি পাইপ কাটারের দাম দেখানো হয়েছে ৯২ লাখ ৯৯ হাজার টাকা। একইভাবে জার্মান কোম্পানির দুটি হাতুড়ির দাম দেখানো হয়েছে ১ লাখ ৮২ হাজার টাকা।
এসব পণ্যের এমন অস্বাভাবিক দাম দেখে চালানটি আটকে দেয় কাস্টমস কর্তৃপক্ষ। তারপর এসব পণ্য আমদানিকারক সিপিজিসিবিএল ও পাওয়ার ডেভেলপমেন্ট বোর্ডের কাছে এ বিষয়ে ব্যাখ্যা চাওয়া হয়।
কাস্টমস সূত্রে জানা গেছে, শুধু এই দুটি পণ্য নয়, এই চালানের ১৯টি পণ্যই অযৌক্তিক উচ্চমূল্যে আমদানি করা হয়েছে। মাতারবাড়ী বিদ্যুৎকেন্দ্রের জন্য আনা এ চালানটির আমদানি মূল্য দেখানো হয়েছে ২ দশমিক ৭৫ কোটি টাকা বা ২ লাখ ৫০ হাজার ৮৬৩ মার্কিন ডলার।

বিশ্বের বিভিন্ন দেশের নাগরিকদের দ্বিতীয় নিবাস গড়ায় নতুন করে উৎসাহ জোগাচ্ছে মালয়েশিয়া। মাঝে কড়াকড়ি করলেও এখন বিনিয়োগ টানতে ‘মালয়েশিয়া মাই সেকেন্ড হোম (এমএম২এইচ)’ কর্মসূচির শর্ত শিথিল করছে দেশটির সরকার। গত ৩১ জানুয়ারি পর্যন্ত মালয়েশিয়ায় দ্বিতীয় নিবাস গড়েছেন ৫৬ হাজার ৬৬ জন। এর মধ্যে ৩ হাজার ৬০৪ জন বাংলাদেশি।

বিশেষ বিবেচনায় বৈধভাবে বিদেশে বিনিয়োগের সুযোগ দেয় বাংলাদেশ ব্যাংক। গত বছরের আগস্ট পর্যন্ত সরকার ও বাংলাদেশ ব্যাংকের কাছ থেকে এমন বিনিয়োগের অনুমোদন পেয়েছে ১৭ প্রতিষ্ঠান। তবে এরপর থেকে ডলার-সংকটের কারণে বিনিয়োগে নিরুৎসাহিত করা হচ্ছে। সর্বশেষ গত বছরের আগস্টে অনুমোদন পেয়েছে পাঁচটি কোম্পানি। তবে বিদেশে দ্বিতীয় নিবাস গড়ার জন্য কাউকে বিনিয়োগের অনুমতি দেওয়া হয়নি।
তাহলে বাংলাদেশিরা কীভাবে মালয়েশিয়া দ্বিতীয় নিবাস গড়ল। কীভাবে টাকা নিয়ে গেল?

কক্সবাজার উখিয়ায় রাজাপালং ইউনিয়নের হরিণমারা এলাকায় পাহাড় রক্ষার অভিযান চালাতে গিয়ে মাটি পাচারকারীদের ডাম্পারে মিনি ট্রাক চাপায় খুন হয়েছে বনবীট কর্মকর্তা সাজ্জাদুজ্জামান (৩০)। গত শনিবার রাত সাড়ে তিনটার রাজাপালং ইউনিয়নের হরিণমারা এলাকায় ফরিদ আলমের দোকানের সামনের সড়কে এ ঘটনা ঘটে।

গতকাল সোমবার (১ এপ্রিল) রাতে ডেমরা বাসষ্ট্যান্ডে দাঁড়িয়ে থাকা বেশ কয়েকটি বাসে আগুন লেগেছে। রাত ৮টা ৫০ মিনিটে লাগা আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে কাজ করেছে ফায়ার সার্ভিসের ৫টি ইউনিট। রাত পৌনে ১০টার দিকে সেই আগুন নিয়ন্ত্রনে আনে অগ্নিনির্বাপন কর্মীরা।

ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স অধিদপ্তরের মিডিয়া সেল কর্মকর্তা আনোয়ারুল ইসলাম দোলন বলেন, ডেমরার ধার্মিকপাড়া বাসষ্ট্যান্ড এলকায় দাঁড়িয়ে থাকা লন্ডন এক্সপ্রেসের ১২টিসহ মোট ১৪টি বাস আগুনে পুড়েছে।

আজ ২ এপ্রিল সাভারে জেলপুর এলাকায় তেলবাহী লরিতে লাগা আগুড়ে পুড়েছে আরো ৫টি গাড়ি। এঘটনায় একজন মারা গেছেন, আশংকাজনক অবস্থায় চিকিৎসাধীন আরো কয়েকজন। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের ৩টি ইউনিটের কর্মীরা আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। এসময় মহাসড়কের উভয় পাশে অন্তত ৩ কিলোমিটার যানজন সৃষ্টি হয়েছে।

উপরের ঘটনাগুলি দেশে দূর্ণীতি ও অব্যবস্থাপনার বাস্তবচিত্র বলা যায়। দূর্ণীতি হচ্ছে ক্ষমতার অপব্যবহার করে জনগণের অর্থ আত্মসাত। উল্লেখিত ঘটনাগুলোতে যা খরচ দেখানো হয়েছে তা হচ্ছে দুর্নীতির মাধ্যমে অপচয়। সরকার যে অর্থ ব্যয় করে তা হচ্ছে সাধারণ মানুষের অর্থ। অর্থ ব্যবহারে ব্যাপকভাবে দুর্নীতি ও অপচয় করা হচছে।

দেশে মানুষের জীবন ও ব্যক্তিগত সম্পদের নিরাপত্তা নেই। দেশের শাসনকার্যে দৃশ্যমান ব্যর্থতা পরিলক্ষিত হচ্ছে। শাসনকার্য ভালোভাবে চলছে না, অর্থাৎ সুশাসনের অভাব। সুশাসন হচ্ছে আইনের শাসন ও ন্যয় বিচারভিত্তিক সমাজ ব্যবস্থা। আইনের শাসনের মধ্যে দুটি প্রধান বিষয় গুরুত্বপূর্ণ। এরমধ্যে আইনের চোখে সবাই সমান ও শিষ্টের পালন এবং দুষ্টের দমন। ন্যয়বিচারভিত্তিক সমাজ বলতে বৈষম্য, নিপিড়ন ও নির্যাতনহীন সমাজকে বুঝি।

আইন সকলের জন্য সমান কতটুকু এদেশে? সরকারী দলের মানুষ বিভিন্ন ক্ষেত্রে ভিন্নভিন্নভাবে বিচার বা শাস্তি এড়িয়ে যাচ্ছেন। এঘটনা নিত্যনৈমত্তিক। এপর্যন্ত উল্লেখযোগ্য কোন মামলা কি হয়েছে সরকারের বিরুদ্ধে? সরকার পরাজিত হতে চাননি কিন্তু মামলায় সরকার পরাজিত হয়েছেন এমন ঘটনা কি ঘটেছে? আমার জানা নেই। যাকেই জিজ্ঞাসা করেছি কেউ বলতে পারেনি। অনেকেই বলেছে হয়নি।

সরকারের সাথে কিছু লোক আইনের উর্দ্ধে অবস্থান করছে। সাধারণ মানুষের ধারণা, বর্তমান সময়ে দুষ্টের পালন ও শিষ্টের দমন হচ্ছে। প্রতিদিনই দেশে বৈষম্য বাড়ছে, সরকারীভাবেই বৈষম্য তৈরী করা হচ্ছে। সুবিধাবাদী একটি গোষ্ঠিকে নিয়ে সুবিধাভোগী গোষ্ঠি তৈরী করা হচ্ছে। তারা সরকারের সমর্থন করছে এবং ক্ষমতার প্রভাবে জনগণের উপর নির্যাতন নিপিড়ন করছে।

গণতান্ত্রিক শাসন ব্যবস্থা না হলে সুশাসন আশা করা যায় না। গণতান্ত্রিক ব্যবস্থায় জনগণই দেশের মালিক, জনগণই শাসক নির্বাচন করবে ও পরিবর্তন করবে। এমন অবস্থায় আইনের দৃষ্টিতে সবাই সমান এটা নিশ্চিত করা যায় এবং বৈষহীন সমাজও প্রতিষ্ঠা করা যায়। গণতান্ত্রিক সমাজে জবাবদিহিতা থাকে। কেই ইচ্ছা করলেই জবাবদিহিতা এড়িয়ে নিজস্ব বা গোষ্ঠি স্বার্থ উদ্ধার করতে পারে না। জবাবদিহিতার কারণেই দূর্ণীতি ও দুঃশাসন কায়েম হতে পারেনা। গণতান্ত্রিক সমাজে মানুষের জানমালের নিরাপত্তা বিঘ্নিত হয় না। আমরা এমন একটি গণতান্ত্রিক সমাজ কামনা করছি।

জাতীয় যুব সংহতির ৪১ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী, পরিচিতি সভা ও ইফতার মাহফিলে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান ও জাতীয় সংসদের বিরোধীদলীয় নেতা গোলাম মোহাম্মদ কাদের এমপি।

মঙ্গলবার বিকেল রাজধানীর কাকরাইল ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে জাতীয় যুব সংহতির সভাপতি ও ভাইস-চেয়ারম্যান এইচ এম শাহারিয়ার আসিফের সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক আহাদ ইউ চৌধুরী শাহিন এর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে-উপস্থিত ছিলেন – জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য – এডভোকেট মোঃ রেজাউল ইসলাম ভূঁইয়া চেয়ারম্যানের উপদেষ্টা – মনিরুল ইসলাম মিলন, ড.নূরুল আজাহার শামীম,নুরুল ইসলাম তালুকদার, মোঃ খলিলুর রহমান খলিল, ভাইস-চেয়ারম্যান – সফিউল্লাহ শফি,যুগ্ম মহাসচিব – গোলাম মোহাম্মদ রাজু,মোঃ বেলাল হোসেন, এডভোকেট আব্দুল হামিদ ভাসানী, সম্পাদক মন্ডলির সদস্য – এম এ রাজ্জাক খান, মোঃ মিজানুর রহমান মিরু , ইঞ্জিনিয়ার এলাহান উদ্দিন,যুগ্ম সম্পাদক – হেলাল উদ্দিন হেলাল,আজাহারুল ইসলাম সরকার, মাহমুদ আলম, সমরেশ মন্ডল মানিক, সামসুল আলম লিপ্টন, দ্বিন ইসলাম শেখ, কেন্দ্রীয় সদস্য – আবু নাসের বাদল, মোতাহার হোসেন চৌধুরী রাশেদ, মেজর অবঃ আনিসুর রহমান, মাঈনুর রাব্বি চৌধুরী রুমন, লোকমান ভুঁইয়া রাজু, হুমায়ুন কবির শাওন, জাহিদুল ইসলাম জাহিদ, সোহেল রহমান, আরিফুর রহমান রুবেল, জাতীয় ছাত্রসমাজের সাধারণ সম্পাদক মোঃ আশরাফুল ইসলাম খান, মটর শ্রমিক পার্টির সদস্য সচিব আব্দুর রহিম, জাতীয় যুব সংহতির কেন্দ্রীয় কমিটির নেতৃবৃন্দ ও বিভিন্ন জেলার নেতৃবৃন্দ ।

সর্বশেষ - খবর

ব্রেকিং নিউজ :