300X70
বুধবার , ৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ | ২রা বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
  1. অপরাধ ও দূর্নীতি
  2. আইন ও আদালত
  3. আনন্দ ঘর
  4. আনন্দ ভ্রমন
  5. আবহাওয়া
  6. আলোচিত খবর
  7. উন্নয়নে বাংলাদেশ
  8. এছাড়াও
  9. কবি-সাহিত্য
  10. কৃষিজীব বৈচিত্র
  11. ক্যাম্পাস
  12. খবর
  13. খুলনা
  14. খেলা
  15. চট্টগ্রাম

মধুপুরে ঘোড়ায় চড়িয়া কাজের সন্ধানে যে যুবক

প্রতিবেদক
বাঙলা প্রতিদিন২৪.কম
ফেব্রুয়ারি ৭, ২০২৪ ৯:৪৪ পূর্বাহ্ণ

আলকামা সিকদার,মধুপুর,টাঙ্গাইল : কত লোকের কত রকমের শখ থাকে তা কেবল না দেখলে বোঝা মুশকিল। হাঁস-মুরগি, কবুতর, পাখি, কুকুরসহ নানারকমের পশুর সঙ্গেই সখ্যতা তৈরি হয় মানুষের। তেমনি ঘোড়ার সাথে সখ্যতা গড়েছেন মধুপুরের এক যুবক।

তিনি একেক সময় লালন পালন করেন পছন্দ তালিকার যেকোনো পশুকে। নিজের খাওয়ার চিন্তা না করলেও পালিত পশুর খাবার জোগাড় করা তার চাই-ই চাই। এজন্য তিনি অন্যের বাড়িতে শ্রমিকের  কাজ করেন দিনের পর দিন। বর্তমানে  তার সঙ্গী করেছেন একটি ঘোড়াকে। যা নিয়ে তিনি প্রতিদিন পরের বাড়ী শ্রমিকের কাজ করতে যান বলে জানিয়েছেন পশু প্রেমিক এই দিনমজুর ।

পশুপ্রেমিক এই ব্যক্তির নাম শাহ আলম। তিনি টাঙ্গাইলের মধুপুর উপজেলার গোলাবাড়ী ইউনিয়নের বাসুদেববাড়ী গ্রামের মৃত সরবেশ  আলীর বড় ছেলে। এলাকার সবাই তাকে পাগল মনে করলেও তিনি একজন পশু প্রেমিক। তিনি দরিদ্র হওয়ার কারনে পশুর খাদ্য জোগাড় তরতে  অনেকেই তাকে পেটেভাতে কাজে লাগান। যার কাজ করেন তার দেওয়া খাবার থেকে বাঁচিয়ে নিয়ে আসেন নিজের পালিত ভালোবাসার প্রাণীটির জন্য। কেউ দয়া করে দুই-চার পয়সা দিলে তার অধিকাংশ টাকা শাহ আলম সঙ্গী পশুর জন্য ব্যয় করেন।

সংবাদপত্র বিক্রেতা  আব্দুল হাকিম জানান, পশু প্রেমিক শাহ আলম কখনো এক পশুতে তিনি স্থির থাকেন না। তিনি সব সময় খিসবসতা খোজেন। একাধিক পশুকে তিনি খাবার দিতে না পারা অথবা অন্য কোনো কারণে সঙ্গী পশু তিনি সময়ে সময়ে বদলিয়ে  ফেলেন। ইতোমধ্যে শাহ আলমকে কুকুর বিড়াল কবুতরসহ নানা প্রাণী পালতে দেখা গেছে। হাঁস মুরগি, কবুতর ছাগল বদলিয়ে এবার তিনি সঙ্গী করেছেন একটি ঘোড়াকে।

শাহ আলমের কাছ থেকে জানাগেছে, তিনি বছর দেড়েক আগে জামালপুরের বিখ্যাত ও দেশের অন্যতম ঘোড়ার হাট তুলসীপুর হাট থেকে কষ্টে জমানো সাড়ে ৭ হাজার টাকায় ঘোড়াটি ক্রয় করেছেন। সব সময় এই ঘোড়াকে সঙ্গে নিয়ে থাকেন। বিভিন্ন সময় বিভিন্ন প্রতিযোগিতায় তাকে নিয়ে অংশগ্রহণ করেন। জয়ী হতে না পারলেও খবর পেলেই বিভিন্ন এলাকার ঘোড়দৌড় প্রতিযোগিতায় অংশ নেয়া তার নেশা। কাজ না থাকলে মাঠে বেঁধে বা ছেড়ে দিয়ে বাজারে  বা কাছে কোথাও বসে থাকেন।

স্থানীয়রা জানান, দরিদ্র বাবার বড় ছেলে শাহ আলম অযত্নে অবহেলায় বড় হয়েছেন। সবাই সংসারে টিকলেও তিনি অনেকটা সংসার বৈরাগী। তাই ঘোড়াটি নিয়েই তার বর্তমান সংসার। যেখানে যান সেখানেই ঘোড়া তার সঙ্গে থাকে। কোথাও মজুর খাটতে গেলে এই ঘোড়াই তার সঙ্গী। গৃহস্থের কাজ করার সময় পাশের মাঠে বেধে অথবা ছেড়ে দিয়ে তিনি গৃহস্থের কাজ করেন।

সম্প্রতি ভোরে মধুপুর বাসস্ট্যান্ডের আনারস চত্বরে প্রতিদিনের শ্রমিকের বাজারে ঘোড়াটি সঙ্গে নিয়ে গৃহস্থের অপেক্ষা করছেন  শাহ আলম । যিনি দিন হাজিরায় তাকে মাঠে কাজ করিয়ে মজুরি দেবেন। দিন শেষে ঘোড়া ও তার নিজের দুই এক দিনের খাবারের জোগাড় হবে এমন প্রত্যাশায় দাড়িয়ে থাকাবস্থা কথা হলো তার সাথে।

তিনি জানান, কাজ পেলে যে মজুরি জোটে তার বেশির ভাগই ঘোড়ার যত্নে ব্যয় করেন শাহ আলম। অনেকেই তাকে মজুরিহীন শুধু পেটেভাতে কাজ করায়। এতে তিনি অখুশি বা কষ্ট নেন না। ঘোড়াকে সঙ্গী করে এভাবেই জীবনের আবর্তে আপাতত শাহ আলমের পথ চলছে। অনাগত ভবিষ্যতে হয়ত অন্যকোনো পশুকে তার সঙ্গী করে দিন এগিয়ে যাবে হড়িয়ে পরবে অন্য কোন নতুন প্রাণীর ভালোবাসায় ।

সর্বশেষ - খবর

আপনার জন্য নির্বাচিত

কৃষি মন্ত্রণালয়ে ‘সোনার বাংলা প্রকল্প’ নামে কোন প্রকল্প নেই

ইসলামী ব্যাংকের ১০ শতাংশ ক্যাশ ডিভিডেন্ড ঘোষণা

পুকুর থেকে মামা-ভাগিনার লাশ উদ্ধার

বিশ্বকে ক্ষুধামুক্ত করতে এক হওয়ার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

ভালুকায় আশ্রয়ণ প্রকল্পের পরিবারের সাথে ঈদের আনন্দ ভাগাভাগি করলেন ইউএনও

বিজেপিতে যোগ দিচ্ছেন মমতার ভাই কার্তিক ব্যানার্জী

দারিদ্র্য বিমোচনে সরকার অগ্রাধিকার ভিত্তিতে কাজ করছে : প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য্য

আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার ভাষণের পূর্ণ বিবরণ

হাওরের দুই মন্ত্রীকে নিয়ে রাষ্ট্রপতির জন্মদিন পালন করলো এলাকাবাসি

আক্রান্ত ৪ কোটি ১৪ লাখ ৬৯ হাজার ৬২৪ জন, মৃত ১১ লাখ ৩৬ হাজার

ব্রেকিং নিউজ :