বুধবার , ২৫ জানুয়ারি ২০২৩ | ১৭ই মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
  1. অপরাধ ও দূর্নীতি
  2. আইন ও আদালত
  3. আনন্দ ঘর
  4. আনন্দ ভ্রমন
  5. আলোচিত খবর
  6. উন্নয়নে বাংলাদেশ
  7. এছাড়াও
  8. কবি-সাহিত্য
  9. কৃষিজীব বৈচিত্র
  10. ক্যাম্পাস
  11. খবর
  12. খুলনা
  13. খেলা
  14. চট্টগ্রাম
  15. জাতীয়

মাঠে মাঠে হলুদের ঢেউয়ে দোল খাচ্ছে কৃষকের স্বপ্ন

প্রতিবেদক
বাঙলা প্রতিদিন
জানুয়ারি ২৫, ২০২৩ ১২:৩২ পূর্বাহ্ণ

খানসামা প্রতিনিধি : ভোজ্য তেলের অস্বাভাবিক মূল্যবৃদ্ধি এবং আমদানী নির্ভর ভোজ্য তেলের ওপর নির্ভশীলতা কমাতে কৃষি বিভাগের সার্বক্ষণিক পরামর্শ ও প্রণোদনায় দিনাজপুরের খানসামায় কৃষকরা বিভিন্ন মাঠ হলুদের মেলা বসিয়েছেন।উপজেলার ৬ ইউনিয়নের বিভিন্ন মাঠে এখন চোঁখ জুড়ানো হলুদ রংয়ের অপূর্ব সমাহার। দিগন্ত বিস্তৃত মাঠে এ রং কে রাঙ্গিয়ে নিতে যেন উৎসবে মেতেছেন,ফেসবুকে নিজে ফ্রেম বন্দী করছেন অনেকেই। যা প্রকৃতিতেও ভিন্নমাত্রা এনে দিয়েছে। এ রংয়ের মেলায় যেন প্রকৃতি তার আপন খেলায় বড়ই ব্যস্ত সময় পার করছেন। সরিষা ফুলের ধার দিয়ে হেঁটে চলা কৃষান-কৃষাণী অথবা শিশুর দল অন্যরকম চিত্র সৃষ্টি করছেন। উপজেলার আলোকঝাড়ি, ভেড়ভেড়ী, আঙ্গারপাড়া, খামারপাড়া, ভাবকী ও গোয়ালডিহি ইউনিয়নের বিভিন্ন মাঠ সেঁজেছে অপরুপ সাঁজে। দৃষ্টিনন্দন হয়ে উঠেছে সরিষা ফুলে মোড়া ক্ষেতগুলো। মৌমাছির দল ও প্রজাপিত সরিষা ফুলে পাখা মেলে আহরণ করছে মধু। ছবি তোলার লোভ সামলাতে না পেরে শীতের সকালে অথবা পড়ন্ত বিকালে সরিষা ক্ষেতে, হলুদের মাঝে নিজেকে রাঙিয়ে তুলতে ছবিও তুলছেন অনেকে। হলুদ রংয়ের মাঝে তোলা ছবি গুলো যেন প্রাণে দোলা দেওয়ার মত।

সরিষা চাষের অনুকূল পরিবেশের কারণে এবার সরিষার বাম্পার ফলন হয়েছে। চলতি বছরে সরিষার লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছিল ১২১০ হেক্টর জমিতে। এর স্থলে চাষ হয়েছে ১৪৬৫ হেক্টর জমিতে। গত বছরেও ৯৬৫ হেক্টর জমিতে সরিষা চাষ করে লাভবান হয়েছিল চাষীরা।

চলতি বছরে উপজেলায় সরিষার বাম্পার ফলনও হয়েছে বলে জানিয়েছেন উপজেলা কৃষি সম্পাসারণ অধিদপ্তর। বিভিন্ন গ্রামের সরিষা চাষীদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে এবার প্রতি বিঘা জমি থেকে ৬-৭ মণ সরিষা উৎপাদন হবে

আলোকঝারী ইউনিয়নের পূর্ব বাসুলী গ্রামের কৃষক ওসমান আলী জানান, প্রতিবিঘা জমিতে সরিষা চাষে খরচ হয় সর্বোচ্চ ৪-৫ হাজার টাকা। প্রতি মণ সরিষা বিক্রি করা যায় ৩-৪ হাজার টাকা করে। প্রতি বিঘাতে ৭-৮মণ সরিষা উৎপাদন হলে বিঘা প্রতি ১০-১২ হাজার টাকা লাভ করা যায়। এ ছাড়া সরিষা চাষে তেমন সেচের প্রয়োজন হয় না। তাছাড়া মাত্র ২ মাস সময়ে সরিষা চাষ করা যায়। সরিষার বড় শত্রু জাব পোকা। তবে এই জাব পোকা এবার তেমন লক্ষ্য করা যায়নি। ফলে বাম্পার ফলন হয়েছে।

খামারপাড়া ইউনিয়নের কায়েপুর গ্রামের সরিষা চাষী মহসিন আলী জানান, নিজের প্রয়োজন মেটাতে প্রতি বছর ৪/৫বিঘা জমিতে সরিষার চাষ করেছি। তবে এবার ৬/৭বিঘা করে জমিতে সরিষার চাষ করা হয়েছে। আশা করছি অন্য বছরের তুলনায় এবার সরিষার ফলন ভালো হবে। নিজের প্রয়োজন মিটিয়ে ২৫-৩০ হাজার টাকার সরিষা বিক্রি করতে পারব। সরিষার তেলে রয়েছে অনেক ওষুধি গুণ। আর সরিষার খৈল জমির উর্বরা শক্তি বৃদ্ধি করে। এবং সরিষার গাছ জ্বালানি হিসেবে ব্যবহার করা যায়। এ ছাড়া সরিষার আবাদ করলে ওই জমিতে সরিষার পাতা পড়ে। ফলে জমির উর্বরতা বাড়ে।

এ বিষয়ে খামারপাড়া ইউনিয়নের উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তা স,ম জাহেদুল ইসলাম জানান,কৃষকদের উদ্বুদ্ধ করনের মাধ্যমে সরিষার কাছে অধিক আগ্রহ বাড়ানো হয়েছে রবিশস্য চাষের এবার অনুকূল পরিবেশ ছিল। এমন প্রাকৃতিক পরিবেশ পেলে মানুষ সরিষা আরও বেশি করে আবাদ করবে।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ বাসুদেব রায় জানান, তেল জাতীয় ফসলের চাষ ও উৎপাদন বৃদ্ধির জন্য কৃষকদের উদ্বুদ্ধকরণ ও পরামর্শ প্রদান অব্যাহত আছে। এ ছাড়া সরিষা চাষে কৃষকরা লাভবান হওয়ায় এ বছর তারা বেশি জমিতে সরিষা চাষ করছেন। এতে এক জমিতে দুইয়ের বেশি ফসল চাষাবাদ করে কৃষকরা সফল হচ্ছে।

সর্বশেষ - জাতীয়

আপনার জন্য নির্বাচিত

`বালাশি হতে বাহাদুরাবাদ ঘাট পর্যন্ত টানেল নির্মাণে আরডিজেএ-কে তৎপর হতে হবে’

তরুণ ও প্রতিশ্রুতিশীল গণমাধ্যম কর্মীদের জন্য ওয়াটারএইডের ফেলোশিপ প্রোগ্রাম ঘোষণা

গোমেজের একমাত্র গোলে কোয়ার্টার ফাইনালে আর্জেন্টিনা

রোহিঙ্গা শিবিরে কথিত আরসা নেতা হাসিমের লাশ

শাহবাগে ডিপ্লোমা নার্সদের প্রতিবাদ সমাবেশ

দেশের আকাশে হঠাৎ ‘অদ্ভুত আলো’

এবার বরিশালে ৪০টি স্কুলে ‘মুজিব’ গ্রাফিক নভেল বিতরণ করলো বিকাশ

বিএএফ শাহীন ইংলিশ মিডিয়াম কলেজের আন্তঃ হাউজ বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতার সমাপনী অনুষ্ঠিত

নতুন বছরে নতুন জায়গায় হবে বাণিজ্য মেলা

বেসরকারি গ্রন্থাগারসমূহে লাইব্রেরিয়ান নিয়োগের জন্য অনুদান প্রদান করা হবে : সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী

ব্রেকিং নিউজ :