300X70
বুধবার , ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ১৭ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
  1. অপরাধ ও দূর্নীতি
  2. আইন ও আদালত
  3. আনন্দ ঘর
  4. আনন্দ ভ্রমন
  5. আবহাওয়া
  6. আলোচিত খবর
  7. উন্নয়নে বাংলাদেশ
  8. এছাড়াও
  9. কবি-সাহিত্য
  10. কৃষিজীব বৈচিত্র
  11. ক্যাম্পাস
  12. খবর
  13. খুলনা
  14. খেলা
  15. চট্টগ্রাম

‘রিসেন্ট ডেভেলপমেন্ট অব ইনফ্রাস্ট্রাকচার ফাসিলিটিস ইন দ্যা ট্যুরিজম সেক্টর অব বাংলাদেশ’ শীর্ষক ওয়েবিনার অনুষ্ঠিত

প্রতিবেদক
বাঙলা প্রতিদিন২৪.কম
সেপ্টেম্বর ২৯, ২০২১ ৮:০১ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক, বাঙলা প্রতিদিন:
নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটির (এনএসইউ) সেন্টার ফর ইনফ্রাস্ট্রাকচার রিসার্চ এন্ড সার্ভিসেস (সিআইআরএস) কর্তৃক গতকাল মঙ্গলবার (২৮শে সেপ্টেম্বর) পর্যটন দিবস ২০২১ উপলক্ষে ‘রিসেন্ট ডেভেলপমেন্ট অব ইনফ্রাস্ট্রাকচার ফাসিলিটিস ইন দ্যা ট্যুরিজম সেক্টর অব বাংলাদেশ’ শীর্ষক ওয়েবিনারের আয়োজন করা হয়।

আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন, মাননীয় সংসদ সদস্য ব্রাহ্মানবাড়িয়া ৩ ও বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা জনাব র. আ. ম. উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী। সভাপতিত্ব করেন উপাচার্য অধ্যাপক আতিকুল ইসলাম।

বিশেষ অতিথি হিসাবে ছিলেন বাংলাদেশ অর্থনৈতিক অঞ্চল কর্তৃপক্ষ (বেজা) এর সদ্য বিদায়ী এক্সিকিউটিভ চেয়ারম্যান পবন চৌধুরী, বাংলাদেশ ট্যুরিজম বোর্ড এর সিইও জাবেদ আহমেদ ও এনএসইউ বিজনেস স্কুল এর ডীন অধ্যাপক ডঃ আব্দুল হান্নান চৌধুরী। বিশেষ বক্তা হিসাবে উপস্থিত ছিলেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্যুরিজম ও হস্পিটালিটি বিভাগের প্রধান ডঃ সান্তুশ কুমার দেব।

অধিবেশনের সূচনা বক্তব্য রাখেন সিআইআরএস এর পরিচালক ও মডারেটর অধ্যাপক ড. মো. সিরাজুল ইসলাম। তিনি বাংলাদেশকে সৌন্দর্যের দেশ বলে উল্লেখ করেন এবং উল্লেখ করেন বাংলাদেশের অর্থনীতি দ্রুত বৃদ্ধির সাথে সাথে পর্যটনের চাহিদা দিন দিন বৃদ্ধি পাবে। জনাব পবন চৌধুরী পর্যটন খাতের জন্য মৌলিক অবকাঠামোগত সুবিধার উন্নয়নে বেজার সাম্প্রতিক উদ্যোগগুলি বিস্তারিতভাবে বর্ণনা করেন, যার মধ্যে রয়েছে সাব্রং, নাফ এবং সোনাদিয়া কে বিশেষ পর্যটন অঞ্চল হিসেবে গড়ে তুলা। তিনি আশ্বাস দেন এই বিশেষ পর্যটন অঞ্চলগুলি প্রতিষ্ঠিত হলে বাংলাদেশের পর্যটন খাতে একটি বিপ্লব আসবে, যা দেশ – বিদেশের পর্যটকদের আকর্ষণ করবে। অন্যান্য বক্তারাও ইতিবাচক মত দিয়েছেন যে বাংলাদেশের জন্য প্রচুর সম্ভাবনা রয়েছে এবং মৌলিক অবকাঠামো, পর্যটন এলাকায় নিরাপত্তা, পরিচ্ছন্নতার মান এবং সেক্টরে কর্মরত ব্যক্তিদের সার্বিক পেশাদারিত্ব বিকাশের মতো বিষয়গুলির উপর জোর দেওয়া উচিৎ।

প্রধান অতিথি তাঁর আলোচনায় দেশি – বিদেশি পর্যটকদের স্বাগত জানানোর জন্য বাংলাদেশের মানুষের সামগ্রিক সাংস্কৃতিক পরিবর্তনের ওপর জোর দেন। অধ্যাপক আতিকুল ইসলাম একটি সম্ভাব্য খাত হিসেবে পর্যটনকে সমৃদ্ধ করার জন্য নিরাপত্তা, শৃঙ্খলা, অবকাঠামোগত সুবিধার উন্নয়ন এবং সাংস্কৃতিক উন্নতির বিষয়গুলির উপর গুরুত্ব আরোপ করে অধিবেশন শেষ করেন।

সর্বশেষ - খবর

আপনার জন্য নির্বাচিত

স্বাস্থ্যসম্মত স্যানিটেশন ব্যবস্থা নিশ্চিত করতে চাই সঠিক পরিকল্পনা: এলজিআরডি মন্ত্রী

জমজ চার শিশুকে শুভেচ্ছা জানিয়ে দোয়েল, কোয়েল, ময়না ও টিয়া নাম রাখলেন চুয়াডাঙ্গার জেলা প্রশাসক

স্বর্ণালংকার বিনিময় হার কমালো বাজুস

পথনাট্যোৎসবে হুমায়ুন আহমেদের ‘পিঁপড়া’

ঝিনাইদহে এক্সিম ব্যাংকের ১৩৫তম শাখার উদ্বোধন

যুক্তরাষ্ট্র সফর শেষে দেশে ফিরলেন সেনাপ্রধান

ময়মনসিংহ হাসপাতালে ৪,৯৫৯ সিলিন্ডার অক্সিজেন দিলেন সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী

বাংলাদেশকে ঝুকিপূর্ণ ও সংকটময় দেখাতে একটা গোষ্ঠী মরিয়া : শেখ পরশ

সিলেটে অটোরিকশা-পিকআপ সংঘর্ষে নিহত ৩

অনাথ শিশুদের পাশে ‘ফ্রেশ হ্যাপি ন্যাপি’

ব্রেকিং নিউজ :