300X70
মঙ্গলবার , ২৪ অক্টোবর ২০২৩ | ৬ই শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
  1. অপরাধ ও দূর্নীতি
  2. আইন ও আদালত
  3. আনন্দ ঘর
  4. আনন্দ ভ্রমন
  5. আবহাওয়া
  6. আলোচিত খবর
  7. উন্নয়নে বাংলাদেশ
  8. এছাড়াও
  9. কবি-সাহিত্য
  10. কৃষিজীব বৈচিত্র
  11. ক্যাম্পাস
  12. খবর
  13. খুলনা
  14. খেলা
  15. চট্টগ্রাম

শনাক্তের পর ১৫ লাশ পরিবারের কাছে হস্তান্তর

প্রতিবেদক
বাঙলা প্রতিদিন২৪.কম
অক্টোবর ২৪, ২০২৩ ৭:৩৫ অপরাহ্ণ

#৭ ঘন্টা পর ট্রেন চালু
#সিগনাল অমান্য করায় চালকসহ বরখাস্ত ৩
#২টি তদন্ত কমিটি গঠন ও অনুদান ঘোষনা
ভৈরব (কিশোরগঞ্জ) প্রতিনিধি : কিশোরগঞ্জের ভৈরবে ভয়াবহ ট্রেন দুর্ঘটনার পর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিহতদের পরিচয় শনাক্ত সহজ করতে বড় পর্দায় দেখানো হয়ে নিহতদের ছবি। এরপর একে একে ১৫ লাশ শনাক্ত শেষে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়।
কিশোরগঞ্জ জেলার পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনের (পিবিআই) পরিদর্শক সাজ্জাদ হোসেন এ তথ্য নিশ্চিত করে জানান, এখন পর্যন্ত ১৫ জনের লাশ শনাক্ত করে স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। দুই জনের আঙুলের ছাপ মিলছে না। শনাক্ত করে জেলা প্রশাসন ও পুলিশের মাধ্যমে লাশ হস্তান্তর করা হবে।

গত সোমবার বিকাল সোয়া ৩ টার দিকে ভৈরব বাজার রেলওয়ে জংশন স্টেশনের পশ্চিম দিকের ৩১ নং রেলওয়ে সেতু সংলগ্ন ক্রস পয়েন্টে ঢাকা থেকে চট্রগ্রামগামী কন্টেইনারবাহী ট্রেনের ধাক্কায় ঢাকাগামী এগারসিন্দুর গোধুলী ট্রেনের পেছনের ২টি বগি উল্টে যায়। অপরদিকে স্থানীয় লোকজন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়ার পথে ৩জন যাত্রী মারা যায়।

নিহতদের মধ্যে কিশোরগঞ্জ জেলার ৮জন। নান্দাইল থানার ঘাটাইল এলাকার ১ পরিবারের ৪জন নিহত হয়েছে। রইছ উদ্দিনের পুত্র সূজনসহ তার স্ত্রী ফাতেমা এবং ২পুত্র সজীব ও ইসমাইল ঘটনাস্থলে প্রাণ হারান। কুলিয়ারচর উপজেলা পোষ্ট মাস্টার মোঃ হুমায়ুন কবির, ভৈরব উপজেলার যুব উন্নয়ন কার্যালয়ের ক্যাশিয়ার জালাল আহমেদ, ভৈরব উপজেলার রাধানগর গ্রামের আফজাল হোসেন ঢাকা কলেজ থেকে অনার্স মাস্টার্স শেষ করেন।

নিহত আফজাল সৌদি আরবগামী তার বড় ভাইকে নিয়ে ট্রেনে ঢাকা যাচ্ছিল।মিঠামইন থানার নিহত মোঃ রাসেল বৃহষ্পতিবার সৌদি আরব যাবার কথা ছিল বলে তার পরিবারের লোকজন জানায়। অন্য নিহতরা হচ্ছে কটিয়াদি থানার করগাঁও এলাকার পায়েল মিয়া ও বোয়ালিয়া গ্রামের গোলাপ।

মিঠামইন থানার সাইমন মিয়া, করিমগঞ্জ থানার হোসনা আক্তার, ভৈরব উপজেলার শ্রীনগর গ্রামের রাব্বি, ও রাণী বাজার এলাকার সবুজ চন্দ্র শীল , সরাইল থানার নিজাম উদ্দিন সরকার, ঢাকা নন্দীপাড়া এলাকার এ কে এম লিটনের মরদেহ পরিবারের লোকজনের কাছে হস্থান্তর করা হয়। নিহত ১জন যাত্রীর (পুরুষ) পরিচয় পাওয়া যাচ্ছে না বলে ভৈরব রেলওয়ে থানার অফিসার ইনচার্জ জানান। ট্রেন দুর্ঘটনায় আহত শতাধিক যাত্রীর মধ্যে অনেকের হাত পা এবং বিভিন্ন অঙ্গ বিচ্ছিন্ন অবস্থায় ঢাকাসহ বিভিন্ন হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

ভৈরব উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্তব্যরত চিকিৎসক জানান, প্রায় ৮০ জন আহত যাত্রীদের চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। রেলওয়ের বিশ^স্থ সুত্রে জানা গেছে- ঘটনার সঠিক তদন্তে পৃথক ২টি কমিটি গঠন করা হয়েছে।

রেলওয়ে সূত্রে জানা গেছে, প্রাথমিক তদন্তে ঢাকা থেকে চট্রগ্রামগামী কন্টেইনার বাহী ট্রেনটি সিগন্যাল অমান্য করে ২নং লাইন দিয়ে ভৈরব বাজার রেলওয়ে ষ্টেশনে প্রবেশের সময় ভৈরব রেলষ্টেশন থেকে এগার সিন্দুর গোধুলী ট্রেনটি যাত্রা শুরু করে। ২নং লাইন দিয়ে ১নং লাইনে প্রবেশ কালে ক্রসপয়েন্টে কন্টেইনার ট্রেনের ধাক্কায় গোধুলী ট্রেনের ২টি বগি দুমড়ে মুচড়ে উল্টে যায়। দুর্ঘটনার পরদিন মঙ্গলবার সকালে ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখা যায় রেললাইনে নিহত ও আহতদের রক্ত, কাটা আঙ্গুল ও হাড় এবং মস্তক সহ অঙ্গ প্রত্যঙ্গ পড়ে আছে। ১টি শেরুয়ানী রুমাল ও পাগড়ী রেললাইনে পড়ে আছে ।

স্থানীয় লোকজনের ধারনা বিয়ের বর ঐ ট্রেনের যাত্রী ছিল। কিশোরগঞ্জ জেলা প্রশাসক ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে দুর্ঘটনায় হতাহতের পরিবারের মধ্যে অনুদান ঘোষনা করেন। কিশোরগঞ্জ-৬ ভৈরব-কুলিয়ারচর আসনের মাননীয় সংসদ সদস্য ও বিসিপি সভাপতি আলহাজ¦ নাজমুল হাসান পাপন তৎক্ষনাত ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।ভৈরব রেলওয়ে স্টেশন মাস্টার ইউসুফ জানান, দুর্ঘটনার খবর পেয়ে রেলওয়ের মহাপরিচালক, পূর্বাঞ্চলের জি এম ঢাকা বিভাগীয় রেলওয়ের কেন্দ্রিয় কর্মকর্তাগন ঘটনাস্থলে উপস্থিত হন। উনাদের নির্দেশে সাড়ে ৩ঘন্টা পর আখাউড়া থেকে রিলিফ ট্রেন এবং ঢাকা থেকে ঘটনার ৬ঘন্টা পর রিলিফ ট্রেন এসে উদ্ধারকাজ শুরু করে। পরে রাত সোয়া ১০টার দিকে ১ লাইন দিয়ে ট্রেন চলাচল শুরু হয় এবং দুর্ঘটনার ১২ ঘন্টা পর রেলপথে পুরোপুরি ট্রেন চলাচল শুরু হয়।

স্টেশন মাস্টার গ্রেড-৪ জহুরুন্নেছা বলেন, দুর্ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্থ ঢাকাগামী এগারসিন্দুর গোধুলী ট্রেনটি দুর্ঘটনার সাড়ে ৪ঘন্টা পর ঢাকার উদ্দ্যেশে ছেড়ে যায়। অপরদিকে চট্রগ্রামগামী কন্টেইনার ট্রেনটি রাত সোয়া ৮ টার দিকে চট্রগ্রামের উদ্দেশ্যে ছেড়ে যায়।এদিকে চট্রগ্রাম থেকে ঢাকাগামী সোনার বাংলা এক্সপ্রেস ট্রেন ওই দিন নির্ধারিত সময়ের সাড়ে ৪ ঘন্টা দেরিতে ভৈরব রেলওয়ে স্টেশন অতিক্রম করে।

দুর্ঘটনায় উদ্ধারকাজে ভৈরব ফায়ার সার্ভিস সহ কিশোরগঞ্জ ও ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার বিভিন্ন থানার ১০টি ইউনিট অংশ নেয়। রেলথানা পুলিশ, র‌্যাব, উপজেলা প্রশাসন, ভৈরব পৌর মেয়র এবং উপজেলা আওয়ামীলীগের নেতৃবৃন্দ উদ্ধারকাজে সহযোগীতা করেন। ভৈরব উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ সাদিকুর রহমান সবুজ গতকাল লিখিত শোক বার্তায় দুর্ঘটনায় নিহতদের প্রতি গভীর শোক প্রকাশ করেন এবং আত্মার মাগফিরাত কামনা করে শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করেন।

বাংলাদেশের যত ভয়াবহ ট্রেন দুর্ঘটনা : দেশে সড়কপথে বেশি দুর্ঘটনা জন্য অনেকেই নিরাপদ ভ্রমণের জন্য ট্রেন বেছে নেন।

গতকাল সোমবার বিকেলে (২৩ অক্টোবর) ভৈরবে এক এক মর্মান্তিক দুর্ঘটনা ঘটে। ভৈরব বাজার জংশনের আউটার সিগন্যালে যাত্রীবাহী এগারসিন্ধুকে ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা কনটেইনারবাহী একটি ট্রেন পেছন থেকে ধাক্কা দেয়।

এতে এগারসিন্ধু ট্রেনের দুইটা বগি দুমড়ে-মুচড়ে যায়। এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত ১৮ জনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।

ধারণা করা হচ্ছে, ট্রেনের নিচে এখনও অনেক মরদেহ চাপা পড়ে আছে। এ কারণে হতাহতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে।

নানা সময়ে ঘটেছে বিভিন্ন প্রাণঘাতী ট্রেন দুর্ঘটনা। দেশের ইতিহাসের আলোচিত কয়েকটি ট্রেন দুর্ঘটনা।

সবচেয়ে বড় ট্রেন দুর্ঘটনা টঙ্গীতে :
দেশে এখন পর্যন্ত সবচেয়ে ভয়াবহ ট্রেন দুর্ঘটনা ঘটেছিল ১৯৮৯ সালের ১৫ জানুয়ারি টঙ্গীতে। ওই দুর্ঘটনায় ১৭০ জন নিহত হন। আহত হন আরও ৪০০ যাত্রী।

ঈশ্বরদীতে সেতু ভেঙে দুর্ঘটনা :
১৯৮৩ সালের ২২ মার্চ ঈশ্বরদীর কাছে একটা রেল সেতু পার হওয়ার সময় কয়েকটি স্প্যান ভেঙে পড়ে। নিচে শুকনো জায়গায় গিয়ে পড়ে ট্রেনের কয়েকটি বগি। এতে ৬০ জন যাত্রী নিহত হন।

খুলনায় আগুন ধরে দুর্ঘটনা :
১৯৮৫ সালের ১৩ জানুয়ারি খুলনা থেকে পার্বতীপুরগামী সীমান্ত এক্সপ্রেসের কোচে আগুন ধরে যায়। এতে ২৭ জন যাত্রী নিহত হন এবং ২৭ জন আহত হন।

সর্বহারার নাশকতা : ১৯৮৬ সালের ১৫ মার্চ সর্বহারা পার্টির নাশকতায় ভেড়ামারার কাছে ট্রেন লাইনচ্যুত হয়ে নদীতে পড়ে যায়। এতে ২৫ জন যাত্রী নিহত হন এবং ৪৫ জন আহত হন।

হিলি ট্র্যাজেডি : ১৯৯৫ সালের ১৩ জানুয়ারি রাত সোয়া ৯টায় গোয়ালন্দ থেকে পার্বতীপুরগামী ৫১১ নম্বর লোকাল ট্রেনটি হিলি রেলস্টেশনের ১ নম্বর লাইনে এসে দাঁড়ায়। এর কিছুক্ষণ পর সৈয়দপুর থেকে খুলনাগামী ৭৪৮ নম্বর আন্তঃনগর সীমান্ত এক্সপ্রেস ট্রেনটি একই লাইনে ঢুকে পড়ে।

এ সময় ভয়াবহ মুখোমুখি সংঘর্ষে গোয়ালন্দ লোকাল ট্রেনের ইঞ্জিনসহ দুটি বগি আন্তঃনগর ট্রেনের ওপর উঠে যায়। এতে দুটি ট্রেনের অর্ধশতাধিক যাত্রী নিহত হয়। আহত হয় দুই শতাধিক।

নরসিংদীর দুটি ঘটনা :
২০১০ সালে চট্টগ্রামগামী আন্তঃনগর ‘মহানগর গোধূলি’ ও ঢাকাগামী মেইল ‘চট্টলা’ ট্রেনের মুখোমুখি সংঘর্ষে দুর্ঘটনা ঘটে। দুর্ঘটনায় দুটি ট্রেনের ইঞ্জিন দুমড়ে-মুচড়ে যায়। চট্টলা ট্রেনের একটি বগি মহানগর ট্রেনের ইঞ্জিনের ওপর উঠে যায়। সেই দুর্ঘটনায় চালকসহ মোট ১২ জন নিহত হন। এরপর ২০১৬ সালে নরসিংদীর আরশীনগর এলাকায় ভুল সিগন্যালের কারণে লাইনচ্যুত হয় তিতাস কমিউটার ট্রেনের ইঞ্জিন। ট্রেনটি ঢাকা থেকে ছেড়ে ব্রাহ্মণবাড়িয়া যাচ্ছিল। এতে দুইজন নিহত ও ১০ আহত হন।

টঙ্গীর রেল দুর্ঘটনা
২০১৮ সালের ১৫ এপ্রিল গাজীপুরের টঙ্গী এলাকায় যাত্রীবাহী ট্রেন লাইনচ্যুত হয়ে ৫ জন নিহত হন। কমিউটার ট্রেনটি জামালপুর থেকে ঢাকা যাচ্ছিল। টঙ্গী এসেই ঘটে যত বিপত্তি। ট্রেনের ৫টি বগি লাইনচ্যুত হয়ে যায়। টঙ্গীর নতুনবাজার এলাকায় দুপুর ১২টার দিকে ঢাকা-জয়দেবপুর রেললাইনে এ দুর্ঘটনা ঘটে। এতে আহত হয় প্রায় অর্ধশতাধিক।

কুলাউড়ায় দুর্ঘটনা
২০১৯ সালের ২৩ জুন মৌলভীবাজার জেলার কুলাউড়ায় ভয়াবহ ট্রেন দুর্ঘটনা ঘটে। উপজেলার বরমচাল রেলক্রসিং এলাকায় সিলেট থেকে ঢাকাগামী উপবন এক্সপ্রেসের ৪টি বগি লাইনচ্যুত হয়ে খালে ছিটকে পড়ে। এ ঘটনায় ৬ জন নিহত হন। নিহতের মধ্যে ৩ জন নারী ও ৩ জন পুরুষ।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় সংঘর্ষ
২০১৯ সালের ২৩ জুন কুলাউড়ার বরমচাল রেলক্রসিং এলাকায় সিলেট থেকে ঢাকাগামী উপবন এক্সপ্রেসের ৪টি বগি লাইনচ্যুত হয়ে খালে ছিটকে পড়ে। এতে ৬ যাত্রী নিহত হন। একই বছর ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার কসবা উপজেলায় দুই ট্রেনের মুখোমুখি সংঘর্ষে ১৭ জন নিহত হন।

সর্বশেষ - খবর

আপনার জন্য নির্বাচিত

‘বিদেশে পালানোর পরিকল্পনা ছিলো মেয়র আব্বাসের’

সিআইপি হিসেবে আবারো স্বীকৃতি পেলেন রূপালী চৌধুরী

বিশ্বের সবচেয়ে বড় ও শক্তিশালী টেলিস্কোপের মহাকাশ যাত্রা

যে দল নিজেদের অফিসের তালা খোলার মানুষ খুঁজে পায় না, তারা কি আন্দোলন করবে : তথ্যমন্ত্রী

শ্রমিক কল্যাণ তহবিলে লভ্যাংশের দুই কোটি ২০ লাখ টাকা জমা দিলো ম্যারিকো বাংলাদেশ

করোনায় আক্রান্ত হলেন পাবনা সদর আসনের সাংসদ প্রিন্স

নতুন ইউজার ইন্টারফেস ইউআই ৪.০ নিয়ে আসছে রিয়েলমি

২০০১ সালের পহেলা অক্টোবর ছিলো ১৯৭১ এর ২৫ মার্চের প্রতিচ্ছবি : বাহাউদ্দিন নাছিম

ভাসানচরে কিশোরীকে ধর্ষণের দায়ে যুবক শ্রীঘরে

পঞ্চগড়ে আনন্দমুখর পরিবেশে চলছে ঈদের কেনাকাটা