300X70
বৃহস্পতিবার , ৩১ আগস্ট ২০২৩ | ৫ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
  1. অপরাধ ও দূর্নীতি
  2. আইন ও আদালত
  3. আনন্দ ঘর
  4. আনন্দ ভ্রমন
  5. আবহাওয়া
  6. আলোচিত খবর
  7. উন্নয়নে বাংলাদেশ
  8. এছাড়াও
  9. কবি-সাহিত্য
  10. কৃষিজীব বৈচিত্র
  11. ক্যাম্পাস
  12. খবর
  13. খুলনা
  14. খেলা
  15. চট্টগ্রাম

শোকাবহ আগস্ট উপলক্ষ্যে বাউবির মাসব্যাপী কর্মসূচি পালিত

প্রতিবেদক
বাঙলা প্রতিদিন২৪.কম
আগস্ট ৩১, ২০২৩ ৭:৫৫ অপরাহ্ণ

বাউবির ১২টি আঞ্চলিক কেন্দ্র ও ৮০টি উপ-আঞ্চলিক কেন্দ্র নানা কর্মসূচি পালন করে


নিজস্ব প্রতিবেদক, বাঙলা প্রতিদিন : শোকাবহ আগস্ট! হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি, স্বাধীনতার স্থপতি, মুক্তিযুদ্ধের সর্বাধিনায়ক জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের নির্মম হত্যাযজ্ঞের মধ্যে দিয়ে এ মাসেই রচিত হয় বাঙালি জাতির ইতিহাসে সবচেয়ে বেদনা বিধুর, বিভীষিকাময় রক্তাত্ব এক কালো অধ্যায়ের।

জাতির পিতার শাহাদতবরণের এই মাসটি অত্যান্ত ভাবগাম্ভীর্যময় ও গভীর শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করেছে বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়। এ উপলক্ষ্যে পুরো আগস্ট মাসব্যাপী নানা কর্মসূচি গ্রহণ করেছিল বাউবি।

আগস্টের প্রথম প্রহরে বাউবি ক্যাম্পাসের প্রধান ফটকসহ দেশব্যাপী সকল কার্যালয়ে টানানো হয় শোকাবহ আগস্টের শোক ব্যানার। ১ আগস্ট থেকে সকল শিক্ষক, কর্মকর্তা, কর্মচারীগণ কালো ব্যাজ ধারণ করেন। বাউবির ওপেন টিভি, ওয়েব টিভি, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম, বাউবি ওয়েবসাইটসহ অফিসের প্যাড, চিঠিপত্র সর্বত্রই আগস্টের শোক ব্যাজ ব্যবহৃত হয়।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সোনার বাংলা গড়ার প্রত্যয়ে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর স্বপ্ন স্মার্ট বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে স্মার্ট ও দক্ষ জনবল তৈরির জন্য ‘ডি-নথির ব্যবহার ও বাস্তবায়ন বিষয়ক দক্ষতা উন্নয়ন প্রশিক্ষণ’ প্রোগ্রামের উদ্বোধন এবং বঙ্গবন্ধুর শিক্ষা ভাবনা ও ডিজিটাল বাংলাদেশ’ গঠনে এর ভূমিকা শীর্ষক টকশোর আয়োজন করা হয়।

বাউবির কেন্দ্রীয় লাইব্রেরিতে বঙ্গবন্ধু কর্ণারে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের শৈশব থেকে শুরু করে তার নানা কর্মকাণ্ডের উপর ইতিহাসের দেয়াল (History Wall) উদ্বোধন এবং বিভিন্ন তথ্য উপাত্ত, দূর্লভ দলিল, বঙ্গবন্ধুর লিখিত চিঠি, ভাষণের অনুলিপি ও চিত্র প্রদর্শনী করা হয়।

ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়ক সংলগ্ন বাউবি মেইন গেটে বড় বড় দুইটি এলইডি স্ক্রিনে জাতির পিতা ও শহীদদের ওপর নির্মিত প্রামাণ্য চিত্র, গান, কবিতাসহ তথ্যচিত্র নিয়মিত প্রদর্শিত হয়। আগস্টের প্রথম সপ্তাহ থেকেই আয়োজন করা হয় স্মরণ সভা, বক্তৃতা ও আলোচনা সভার।

৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধুর জ্যেষ্ঠপুত্র বীর মুক্তিযোদ্ধা শেখ কামালের ৭৪তম জন্মবার্ষিকী এবং ৮ আগস্ট বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন্নেছা মুজিবের ৯৩তম জন্মবার্ষিকী যথাযথ শ্রদ্ধা ও মর্যাদার সাথে পালন করতে “বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান-এর ছয় দফা আন্দোলন ও মুক্তিযুদ্ধে বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব-এর ভূমিকা” শীর্ষক আলোচনা সভাসহ নেয়া হয় নানা কর্মসূচি। বঙ্গবন্ধুর আদর্শে বিশ্বাসী শিক্ষক ফোরাম আয়োজন করে আলোচনা সভার।

শোকাবহ আগস্ট উপলক্ষ্যে আয়োজন করা হয় রক্তদান কর্মসূচি ও আলোচনা সভার। ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবসে সূর্যোদয়ের সাথে সাথে বাউবির মূল ক্যাম্পাসে জাতীয় পতাকা অর্ধনমন, কালো পতাকা উত্তোলন, বাউবির “স্বাধীনতা চিরন্তন ভাস্কর্যে” পুস্পার্ঘ অর্পণ, ধানমন্ডি ৩২ নম্বর সড়ক দ্বীপে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়।

সন্ধ্যায় বাউবি শিক্ষক সমিতি কর্তৃক “মহানায়কের স্মরণে” শীর্ষক জুম ওয়েবিনারে আলোচনা সভার আয়োজন করে।

ক্যাম্পাসের কেন্দ্রীয় মসজিদে কোরআন খতম ও দোয়ার আয়োজন করা হয়। দেশজুড়ে বিস্তৃত বাউবির ১২টি আঞ্চলিক কেন্দ্র ও ৮০টি উপ-আঞ্চলিক কেন্দ্র নানা কর্মসূচি পালন করে। বহি: বাংলাদেশে যেখানে বাউবির স্টাডি সেন্টার আছে, সেখানকার শিক্ষার্থী, সমন্বয়কারী ও রাষ্ট্রদূতদের নিয়ে ‘বঙ্গবন্ধুর শিক্ষা ভাবনা‘ শীর্ষক আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়।

জুম ওয়েবিনারে অংশ নেন বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্রদূতসহ বিদেশে বাংলাদেশ দূতাবাসের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ।

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সিদ্ধান্ত মোতাবেক বাউবির বিভিন্ন প্রোগ্রামের শিক্ষার্থীদের নিয়ে বঙ্গবন্ধুর জীবনীভিত্তিক অনুষ্ঠান, ‘তারুণ্যের চোখে বঙ্গবন্ধু’ শেখ হাসিনার স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণে বঙ্গবন্ধুর শিক্ষা ভাবনা, উন্নয়নের অগ্রযাত্রায় বাংলাদেশ: বঙ্গবন্ধু থেকে শেখ হাসিনা এবং বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণে ‘‘শোকাশ্রু ১৫ আগস্ট প্রজন্ম ভাবনা’’ নিয়ে ভিন্ন ভিন্ন প্রোগ্রাম সংসদ বাংলাদেশ টেলিভিশন, বাউবির ওয়েব টিভি, ওপেন টিভি ও সোস্যাল মিডিয়ায় প্রচার করা হয়।

বাউবির ক্যালেন্ডার ইভেন্ট অনুযায়ী, ২৪ আগস্ট উপাচার্য অধ্যাপক ড. সৈয়দ হুমায়ুন আখতারের নেতৃত্বে টুঙ্গিপাড়ায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান-এর সমাধি সৌধে সাত শতাধিক বাউবি পরিবারের সদস্য নিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়। ৩১ আগস্ট ‘বঙ্গবন্ধুর দূরদর্শিতা ও টেকসই উন্নয়ন পরিকল্পনা’ শীর্ষক সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়।

মাসব্যাপী বিভিন্ন আলোচনা সভায় অংশ নেন বঙ্গবন্ধুর পরিবারের অন্যতম ও বাউবির বোর্ড অব গভর্নরসের সদস্য শেখ কবির হোসেন, যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের মাননীয় প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল এমপি, প্রধানমন্ত্রীর এসডিজি বিষয়ক মূখ্য সমন্বয়ক মো. আখতার হোসেন ও অতিরিক্ত সচিব মোহাম্মদ মনিরুল ইসলাম, বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সভাপতি সাদ্দাম হোসেনসহ দেশ বরেণ্য শিক্ষাবিদ ও রাজনৈতিক ব্যক্তিবর্গ।

এছাড়াও, রক্তভেজা বিভীষিকাময় ২১ আগস্ট ২০০৪ এ গ্রেনেড হামলার ১৯তম বার্ষিকীতে নিন্দা, প্রতিবাদ ও দোষীদের শাস্তির দাবীতে নানা কর্মসূচি পালন করে বাউবি শিক্ষক সমিতি ও বঙ্গবন্ধুর আদর্শে বিশ্বাসী শিক্ষক ফোরাম।

মাসব্যাপী বাউবির কর্মসূচি উপলক্ষ্যে উপাচার্য অধ্যাপক ড. সৈয়দ হুমায়ুন আখতার বলেন, আমাদের ক্ষুদ্র এ প্রচেষ্টা বাউবির ৯ লাখ শিক্ষার্থীর বৃহৎ পরিবার এবং আগামী প্রজন্মের মাঝে অপার সম্ভাবনা ও রূপকল্পের উদ্ভাবনী নতুন এক বার্তা পৌঁছাবে। শোককে শক্তিতে পরিণত করে বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স্মার্ট বাংলাদেশ গড়াই এখন আমাদের লক্ষ্য।

সর্বশেষ - খবর

আপনার জন্য নির্বাচিত
ব্রেকিং নিউজ :