300X70
বুধবার , ৩ জুলাই ২০২৪ | ৫ই শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
  1. অপরাধ ও দূর্নীতি
  2. আইন ও আদালত
  3. আনন্দ ঘর
  4. আনন্দ ভ্রমন
  5. আবহাওয়া
  6. আলোচিত খবর
  7. উন্নয়নে বাংলাদেশ
  8. এছাড়াও
  9. কবি-সাহিত্য
  10. কৃষিজীব বৈচিত্র
  11. ক্যাম্পাস
  12. খবর
  13. খুলনা
  14. খেলা
  15. চট্টগ্রাম

স্মার্ট স্কুল বাস সার্ভিস চালু করলো ডিএনসিসি

প্রতিবেদক
বাঙলা প্রতিদিন২৪.কম
জুলাই ৩, ২০২৪ ৯:৩৫ অপরাহ্ণ

স্কুল বাস সার্ভিস শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তা নিশ্চিত ও পরিবেশ রক্ষায় ভূমিকা রাখবে : মেয়র মোঃ আতিকুল ইসলাম
বাঙলা প্রতিদিন নিউজ : ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র মোঃ আতিকুল ইসলাম বলেছেন, ‘প্রায়ই দেখা যায় আট থেকে দশ জন শিক্ষার্থী ভ্যানে করে স্কুলে যাওয়া আসা করে। অনেক স্কুলে মাইক্রোবাসে করেও যাওয়া আসা করতে দেখা যায়। এই ধরনের ভ্যান ও মাইক্রোবাসগুলো অনেকটা অনিরাপদ। ঝুঁকি নিয়ে আমাদের বাচ্চারা স্কুলে যাচ্ছে।

শিক্ষার্থীদের নিরাপদ যাতায়াতের জন্য ডিএনসিসি স্মার্ট স্কুল বাস সার্ভিস চালু করতে যাচ্ছি। পরীক্ষামূলকভাবে বনানী বিদ্যা নিকেতন স্কুল এন্ড কলেজে তিনটি বাস দিয়ে এটি শুরু করেছি। পর্যায়ক্রমে অন্যান্য স্কুলগুলোতে এই স্কুল বাস সার্ভিস চালু করা হবে। স্কুল বাস সার্ভিস শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তা নিশ্চিত ও পরিবেশ রক্ষায় ভূমিকা রাখবে।’

বুধবার (৩ জুলাই) দুপুরে রাজধানীর বনানী বিদ্যানিকেতন স্কুল এন্ড কলেজে ডিএনসিসি স্মার্ট স্কুল বাস সার্ভিস এর শুভ উদ্বোধন অনুষ্ঠানে মেয়র মোঃ আতিকুল ইসলাম এসব কথা বলেন।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী।

শিক্ষামন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শিক্ষায় যে বিনিয়োগ করছেন, তার সঙ্গে সিটি কর্পোরেশন যোগ হলে তখন ভিন্নমাত্রা পায়। এই স্কুল বাস সার্ভিস চালু করে ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন যুগান্তকারী অধ্যায় শুরু করেছে। আমরা অনুরোধ করবো বাস সার্ভিসটি শুধু স্কুল ভিত্তিক না করে, এলাকা ভিত্তিক কোনো রুট পরিচালিত করা যায় কিনা।

প্রত্যেকটি বিদ্যালয়ে বাস দেয়া কতটা সম্ভব হবে জানিনা। তবে বাস শেয়ারিংটা যেনো হয়, সেদিকে অবশ্যই খেয়াল রাখতে হবে। আশপাশের স্কুলের শিক্ষার্থীরা বাস সার্ভিসের সুবিধা পেলে সিটি কর্পোরেশনের কষ্ট সার্থক হবে।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘শুধু সরকারি ও আধা সরকারি স্কুল নয়, বরং যে বিদ্যালয় বেশি নিজস্ব গাড়ীতে চড়ে শিক্ষার্থীরা আসে সেই স্কুল গুলোকে মার্ক করতে হবে। গাড়ীর বাস্তব ব্যবহার বোঝাতে হবে। গাড়ী যে কোনো ধরনের হতে হবে।

পয়সা থাকেলই দামি গাড়ীতে করে বাচ্চাদের স্কুলে আনতে হবে এমন মনোভাব থেকে অভিভাবকের বেরিয়ে আসতে হবে। স্কুলের পথ পায়েহাঁটা হলে হেঁটেই স্কুল আসার অভ্যাস করাতে হবে বাচ্চাদের। সন্তানকে যেভাবে গড়া হবে তারা তেমনি বেড়ে উঠবে। তাই আমাদের সন্তানদের ভোগবাদী মানসিকতা থেকে দূরে রাখতে হবে।’

সভাপতির বক্তৃতায় ডিএনসিসি মেয়র জানান, ‘সন্তানরাই বাবা-মায়ের সব থেকে মূল্যবান সম্পদ। তাদের নিরাপত্তার বিষয়টি অতি গুরুত্বপূর্ণ। স্মার্ট স্কুল বাসগুলোয় সিসি ক্যামেরাসহ আধুনিক প্রযুক্তির ব্যবহার করে বাচ্চাদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করা হচ্ছে। অ্যাপসের মাধ্যমে ট্র্যাকিং ব্যবস্থাও থাকবে। একটি হটলাইন নম্বরের মাধ্যমে অভিভাবকেরা সার্বক্ষণিক যোগাযোগ করতে পারবেন। প্রতিটি বাসে নিবেদিত ট্রিপ ম্যানেজার থাকবে। পরীক্ষামূলক চালু করেছি। প্রয়োজন অনুযায়ী যেকোনো ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

মেয়র বলেন, ‘প্রাথমিকভাবে ডিএনসিসির স্মার্ট স্কুল বাস সার্ভিসে বিদ্যানিকেতন স্কুলের ৪৬০ জন শিক্ষার্থী ইতোমধ্যে পাওয়া গেছে। স্কুলটির কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে আগামী জানুয়ারিতে তিন হাজার শিক্ষার্থী স্কুল বাস সার্ভিসের আওতায় আসবে। এজন্য ২০টি বাস প্রয়োজন হবে। যেখানে অনেকগুলো যানবাহনের মাধ্যমে শিক্ষার্থীরা যাওয়া আসা করতো সেখানে ২০টি বাসের মাধ্যমে সার্ভিসটি দেওয়া সম্ভব হবে।

এর ফলে যানজট নিরসনের পাশাপাশি কার্বন নিঃসরণ কম হবে, পরিবেশ দূষণ কমবে। অন্যান্য স্কুল গুলোকেও আমন্ত্রণ জানাবো এই বাস সার্ভিসের সুবিধার আওতায় আসার। আমারা নলেজ শেয়ারিং প্রোগ্রামে লন্ডনে গিয়েছিলাম, সেখানে দেখে এসেছি কিভাবে এই সার্ভিসটি চলছে আমরাও প্রক্রিয়াটিও সেভাবে করতে চাই। অভিভাবকদের সহায়তা চাই। কোনো সমস্যা সামনে আসলে সেটাও সমাধান করা হবে।’

সাংবাদিকের এক প্রশ্নের জবাবে মেয়র আতিকুল ইসলাম বলেন, ‘দীর্ঘ সময় ধরে এই স্কুল বাস সার্ভিস চালুর জন্য কাজ করতে হয়েছে। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের জন্য বনানী এলাকায় তীব্র যানজট লেগেই থাকে। আমরা প্রাথমিকভাবে বনানী এলাকায় তাই সার্ভিসটি শুরু করার উদ্যোগ নিয়েছি৷ কয়েকটি স্কুলের শিক্ষক, অভিভাবক ও শিক্ষার্থীদের সঙ্গে একাধিকবার মিটিং করেছি। স্কুল বাসের সুবিধা সম্পর্কে বুঝিয়েছি। বিদ্যানিকেতন স্কুলে কার্যক্রমটি শুরু করতে পেরেছি। ইংরেজি মাধ্যমের স্কুলসহ অন্যান্য সকল সরকারি বেসরকারি স্কুলকে আহবান করছি বাস সার্ভিসের আওতায় আসার জন্য। স্কুলগুলোর প্রতি শিক্ষা মন্ত্রীও এই বিষয়ে নির্দেশ দিয়েছেন।’

এসময় মেয়র জানান স্কুল বাস সার্ভিসটি পরিচালনা করতে শিক্ষার্থীদের যেন বেশি ব্যয় না হয় সেজন্য ডিএনসিসি থেকে একটি অর্থ বরাদ্দ দেয়া হবে।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সংরক্ষিত মহিলা আসনের সংসদ সদস্য শবনম জাহান শিলা, হাছিনা বারী চৌধুরী ও খালেদা বাহার বিউটি, বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্পোরেশনের চেয়ারম্যান মোঃ তাজুল ইসলাম এবং ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার হাবিবুর রহমান।

অন্যান্যের সঙ্গে আরও উপস্থিত ছিলেন ডিএনসিসির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মীর খায়রুল আলম, প্রধান প্রকৌশলী ব্রিগে. জেনা. মোঃ মঈন উদ্দিন, প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ব্রিগে. জেনা. ইমরুল কায়েস চৌধুরী, প্রধান বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কর্মকর্তা ক্যাপ্টেন মোহাম্মদ ফিদা হাসান, ডিএনসিসির ১৯নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও বনানী বিদ্যানিকেতন স্কুল এন্ড কলেজের পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি মোহাম্মদ মফিজুর রহমান, অন্যান্য কাউন্সিলরবৃন্দ এবং উর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ।

বনানী বিদ্যানিকেতন স্কুল এন্ড কলেজে চালু হওয়া স্কুল বাস সার্ভিসের তথ্যাদি:
জবা, গোলাপ, টগর নামে চলবে ৩ রুটের বাস : জবা, গোলাপ ও টগর- এই তিনটি ফুলের নামে ৩ রুটে চলবে এ স্কুল বাস।

রুট-১ : কুড়িল বিশ্বরোড (পুলিশ বক্সের কাছে)- কুড়িল চৌরাস্তা বসুন্ধরা গেট নদ্দা কোকাকোলা নতুনবাজার (ভাটারা থানাসংলগ্ন) নতুনবাজার (ইউএস অ্যাম্বাসির পূর্ব পার্শ্বের ঢাকা চাকা বাসস্ট্যান্ড)- বনানী বিদ্যানিকেতন।

রুট ২ : ১০০ ফিট রাস্তায় বসুন্ধরা গেট (২নং ব্রিজ সংলগ্ন) ফ্যামিলি বাজার ছোলমাইদ/সাঈদনগর নতুনবাজার বাঁশতলা শাহজাদপুর নতুনবাজার (ইউএস অ্যাম্বাসির পূর্ব পার্শ্বের ঢাকা ঢাকা বাস স্ট্যান্ড) বনানী বিদ্যানিকেতন।

রুট ৩ : সুবাস্তু/উত্তরবাড্ডা (থানারোড) হোসেন মার্কেট লিংকরোড গুদারাঘাট গুলশান-০১ টিবি গেট ওয়ারলেস গেট আমতলি (জলখাবার) বনানী বিদ্যানিকেতন।

• আলোচ্য রুটসমূহের নামকরণ তিনটি ফুলের নামে নাম করণ করা হয়েছে জবা, গোলাপ, টগর।

• শিক্ষার্থীদের ভাড়া প্রতি কিলোমিটার হিসেবে নির্ধারণ করা হয়েছে। ভাড়ার পরিমাণ মাসিক ৮০০ টাকা হতে ১২০০ টাকা পর্যন্ত হতে পারে।

• ইতোমধ্যে ডিএনসিসি স্মার্ট স্কুল বাস সার্ভিস চালুর জন্য ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন ৩৯টি স্থানে নিজস্ব ব্যয়ে স্কুল বাস স্টপেজ নির্মাণ করেছে।

• এছাড়াও স্কুল বাসটিকে সফল করার লক্ষ্যে ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন প্রয়োজনীয় অর্থ সহায়তাও প্রদান করবে।

• উদ্যোগটি বাস্তবায়নে ডিএনসিসি, বিআরটিসি এবং ডিএমপি যৌথভাবে কাজ করবে।

• ডিএনসিসি স্মার্ট স্কুল বাস সমূহকে সকল ইন্টারসেকশনে প্রায়োরিটি প্রদান করবে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি)।

স্কুল বাসের উল্লেখযোগ্য বৈশিষ্ট্যসমূহ:
• বিআরটিসি বাসের ব্যবহার
• ট্র্যাকিং এবং আরএফআইডি সুবিধা
• ছাত্রছাত্রীদের গতিবিধি পর্যবেক্ষনের জন্য রয়েছে অভিভাবকদের জন্য অ্যাপ
• সার্ভিসটি মনিটরিং এর জন্য রয়েছে অভিভাবক, স্কুল কর্তৃপক্ষ এবং ডিএনসিসি’র জন্য পৃথক ড্যাশবোর্ড
• ছাত্রছাত্রীদের নিরাপত্তার কথা বিবেচনা করে প্রতিটি বাসে থাকবে নিবেদিত ট্রিপ ম্যানেজার
• প্রতিটি বাসের ভিতর সিসিটিভি ক্যামেরা
• আইএসই সার্ভিস
• ২৪/৭ হটলাইন সাপোর্ট

সর্বশেষ - খবর

আপনার জন্য নির্বাচিত

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিগ্রি ৩য় বর্ষ পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশ

বেঙ্গল কমার্শিয়াল ব্যাংক ও বাংলাদেশ ব্যাংকের মধ্যে জিটিএফ চুক্তি সই

আইন অনুযায়ী সাংবাদপত্রের অনলাইন ও সংবাদপোর্টাল টক শো ও বুলেটিন প্রচার করতে পারে না -তথ্যমন্ত্রী

২৪ ঘণ্টায় ডেঙ্গুতে একদিনে ১২ জনের মৃত্যু

ডাচ-বাংলা ব্যাংকের বোর্ড সভা ৬ মার্চ

গাজীপুরে এইডস প্রতিরোধে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত

সেনাপ্রধান দিল্লি সফর করে ভারত-বাংলাদেশ প্রতিরক্ষা সম্পর্ক আরো কতটুকু এগিয়ে নিলেন?

টিকিট না পেয়ে ট্রেন আটকে যাত্রীদের বিক্ষোভ

রোহিঙ্গা ক্যাম্পে হামলা আতঙ্কের বিষয় : পররাষ্ট্রমন্ত্রী

৭মার্চের ভাষণ পৃথিবীর মুক্তিকামী জনতাকে যুগে যুগে স্বাধীনতার মন্ত্রে উজ্জীবিত করবে : ধর্ম প্রতিমন্ত্রী