পাবনা-৪ আসনে উপনির্বাচন: নারীরা হাট-বাজারেও গণসংযোগ করছেন

ঈশ্বরদীতে নৌকার গণসংযোগে স্মরণকালের চমক

সুবর্ণা অধিকারী, ঈশ্বরদী (পাবনা):
পাবনা-৪ আসনটি দীর্ঘদিন ধরেই ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগের দখলে। সঙ্গত কারণেই ঈশ্বরদীতে আওয়ামীলীগের হাল ধরতে কাজ করছেন অনেকে। দলীয় মনোনয়ন যেহেতু একজনকেই পেয়ে থাকে, সেহেতু দলীয় মনোনয়ন পাওয়ার পর মনোনয়নপ্রাপ্ত নেতার কর্মীদেরই প্রচার-প্রচারণায় বেশি দেখা যায়। আসন্ন উপনির্বাচনকে কেন্দ্র করে ঈশ্বরদীতে নৌকার গণসংযোগে স্মরণকালের চমক চলছে বলে মনে করছেন অনেকে। নৌকাই একমাত্র প্রতীক আর নৌকাকে বিজয়ী করতে একট্টা সকলে। সকল স্তরের নেতৃবৃন্দের সরব উপস্থিতি ও এক কাতারে চলার প্রবণতা ঈশ্বরদীর রাজনীতির জন্য সুফল বয়ে আনবে বলে মনে করছেন স্থানীয় নেতারা। এতে পিছিয়ে নেই নারীরাও।
ঈশ্বরদীতে নৌকার গণসংযোগে নারীরা মাঠে নেমে পড়েছে। কাক ডাকা ভোর হতে রাত ১০টা পর্যন্ত লাগাতারভাবে তারা প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন। এবারের উপনির্বাচনে শুধু ভোটাদের বাড়ি বাড়ি নয়, নারীরা হাট-বাজারেও গণসংযোগ করছেন। বিপুল ভোটে নৌকা বিজয়ী করতে বিভিন্ন শ্রেণী ও পেশার নারীরা দৃঢ় প্রত্যয় ব্যক্ত করেছেন। এসব প্রচার-প্রচারণায় নেতৃত্ব দিচ্ছেন পাবনা জেলা যুব মহিলা লীগের সাধারণ সম্পাদক কোহিনূর ফেরদৌস কণা ও ঈশ^রদী উপজেলা কমিটির আহব্বায়ক ও ভাইস চেয়ারম্যান আতিয়া ফেরদৌস কাকলি।
সম্প্রতি প্রচারণার সময় কোহিনূর ফেরদৌস কণা বলেন, দেশে নারী সমাজের অধিকার প্রতিষ্ঠায় প্রধানমন্ত্রীর অবদান এখন বিশ্বে ব্যাপক ভাবে প্রশংসিত। উপনির্বাচনে পাবনা-৪ আসনে নৌকার প্রার্থী বীর মুক্তিযোদ্ধা নূরুজ্জামান বিশ্বাস বিজয়ী হলে নারীদের শান্তি ও নিরাপত্তা নিশ্চিত করবেন বলে তাদের বিশ্বাস।
আতিয়া ফেরদৌস কাকলি বলেন, আওয়ামী লীগ সরকারের আমলে নারীদের ইপিজেডসহ শিল্প, কলকারখানায় কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করায় ঈশ্বরদীতে নারীরা কেউ আর বেকার নেই। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মানবতার মা। তার কাছ থেকেই আমরা মাতৃছায়া পেয়েছি। এই ছায়াতেই ছিলাম এবং থাকব।
এভাবে প্রচার-প্রচারণা ও সমন্বয় থাকলে সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ নির্বাচনের মাধ্যমে নৌকা এবারও আগের চেয়ে বেশি ভোটে জয়ী হবে বলে মনে করছেন আওয়ামী লীগ দলীয় সমর্থিত নেতা-কর্মীরা। তবে চমকের সর্বশেষ চিত্র দেখতে তাকিয়ে থাকতে হবে ২৬ সেপ্টেম্বর বিকাল চারটা পর্যন্ত।