ইউপি উপ-নির্বাচন: লালমনিরহাটে চেয়ারম্যান পদে দুটি নৌকা ও একটি স্বতন্ত্র প্রার্থী জয়ী

এম এ মান্নান, লালমনিরহাট প্রতিনিধি: লালমনিরহাট জেলায় ছয়টি ইউনিয়নে উপনির্বাচনে চেয়ারম্যান ও সদস্য পদে ভোট অনুষ্ঠিত হয়েছে। চেয়ারম্যান পদে হাতীবান্ধা উপজেলার গড্ডিমারী ও পাটিকাপাড়া, কালীগঞ্জ উপজেলার দলগ্রাম ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে এবং গোকুন্ডা, সারপুকুর ও মদাতী ইউনিয়নে একটি করে ওয়ার্ডে সদস্য পদে ভোটগ্রহন অনুষ্ঠিত হয়।সকাল নয়টায় শুরু হয়ে বিকেল পাঁচটা পর্যন্ত ভোট চলে।এতে চেয়ারম্যান পদে গড্ডিমারী ইউনিয়নে নৌকা প্রতীকে আবু বক্কর সিদ্দিক শ্যামল ও পাটিকাপাড়া ইউনিয়নে নৌকা প্রতীকে মুজিবুল আলম সাদাত এবং দলগ্রাম ইউনিয়নে মোটরসাইকেল প্রতীকে স্বতন্ত্র প্রার্থী রবীন্দ্র নাথ রায় বেসরকারীভাবে নির্বাচিত হন।
উপজেলা নির্বাচন অফিস সুত্র জানায়, চেয়ারম্যান পদে তিনটি ইউনিয়ন পরিষদের উপ-নির্বাচনে দুটিতে আওয়ামী লীগের মনোনীত এবং একটিতে স্বতন্ত্র প্রার্থী নির্বাচিত হয়েছেন। গড্ডিমারী ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান বীর মুক্তি যোদ্ধা সদ্য প্রয়াত আতিয়ার রহমানের ছেলে আবু বক্কর সিদ্দিক শ্যামল (নৌকা) ৯ হাজার ৩শত ৮০ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী স্বতন্ত্র প্রার্থী আকতার হোসেন (মোটরসাইকেল) পেয়েছেন ৮শত ৯ ভোট।

পাটিকাপাড়া ইউনিয়নে সদ্য প্রয়াত চেয়ারম্যান শফিউল আলম রোকনের ছেলে আওয়ামী লীগ প্রার্থী মুজিবুল আলম সাদাত (নৌকা) ৪ হাজার ৪শত ৯৫ ভোট, তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির সমর্থিত প্রার্থী সফিয়ার রহমান পেয়েছেন ১হাজার ৯শত ৮২ ভোট। এদিকে দলগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ৪ হাজার ৯৪ ভোট পেয়ে চেয়ারম্যান পদে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন মোটরসাইকেল প্রতীকে স্বতন্ত্রপ্রার্থী রবীন্দ্র নাথ রায়। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির সমর্থিত প্রার্থী ইকবাল আজম মিল্টন পেয়েছেন ৩ হাজার ৫৩৪ ভোট।
মঙ্গলবার (২০ অক্টোবর) সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত বিরতিহীনভাবে ভোট গ্রহণ চলে। রাত ৮টার দিকে উপজেলা কন্ট্রোল রুমে এ ফলাফল ঘোষনা করেন রির্টানিং কর্মকর্তা।

জানা গেছে, করোনায় আক্রান্ত হয়ে গত ২১ আগস্ট লালমনিরহাটের হাতীবান্ধা উপজেলার গড্ডিমারী ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান বীর মুক্তি যোদ্ধা আতিয়ার রহমান ও ২৩ আগস্ট ওই উপজেলার পাটিকা পাড়া ইউনিয়ন চেয়ারম্যান শফিউল আলম রোকনের মৃত্যু হয়। তাছাড়াও গত ২৮ আগস্ট কালীগঞ্জ উপজেলার দলগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আলহাজ খ ম শফিকুল আলম খন্দকার খোকা করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা যান। ফলে দুই উপজেলার ৩টি চেয়ারম্যান পদে শূন্য ঘোষনা করে নির্বাচন কমিশন।

মঙ্গলবার (২০অক্টোবর) রাত ৮টার দিকে কালীগঞ্জ উপজেলা নির্বাচন অফিসার ও রিটার্নিং কর্মকর্তা মাহাবুবা রহমান ও হাতীবান্ধা উপজেলা নির্বাচন অফিসার ও রিটানিং কর্মকর্তা নাজমুল ইসলাম এ তথ্য ঘোষণা করেন।