এবার স্বর্ণালঙ্কার আমদানির অনুমতি পেল ডিলাররা

বাংলাদেশ ব্যাংকের সার্কুলার জারি,

নিজস্ব প্রতিবেদক: বাংলাদেশ ব্যাংকের জারি করা সার্কুলারে বলা হয়েছে এবার স্বর্ণবারের সঙ্গে স্বর্ণালঙ্কার আমদানির করতে পারবে ডিলাররা। এক্ষেত্রে ২০১৮ সালের নীতিমালা অনুসরণ করতে হবে আমদানিকারক প্রতিষ্ঠানগুলোকে।

বুধবার (২১ অক্টোবর) বাংলাদেশ ব্যাংক এ সংক্রান্ত একটি সার্কুলার জারি করেছে। নতুন এই সার্কুলার বাস্তবায়নে বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলোর প্রধান নির্বাহীদের কাছে নির্দেশনা পাঠায় বাংলাদেশ ব্যাংকের বৈদেশিক মুদ্রা ও নীতি বিভাগ।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানা, ২০১৮ সালের নীতিমালায় স্বর্ণবার আমদানির অনুমতি থাকলেও স্বার্ণালঙ্কার আমদানির অনুমতি ছিল না। এবার সার্কুলা জারি হওয়ায় স্বার্ণ আমদানিকারক প্রতিষ্ঠান বৈধভাবে স্বার্ণালঙ্কার নিতে আসতে পারবেন। এতে করে খোলা বাজারে স্বর্ণের চাহিদা কিছুটা পুরণ হবে। অর্থ পাচার কমে যাবে। বাড়বে সরকারের রাজস্ব আয়।

জানা গেছে, এখন পর্যন্ত ১৯টি প্রতিষ্ঠান স্বর্ণ আমদানির ডিলার হিসেবে লাইসেন্স পেয়েছে। এসব প্রতিষ্ঠান আগে স্বর্ণের বিস্কুট বা গোল্ড বার আমদানি করার সুযোগ পেত। এবার স্বর্ণালঙ্কার আমদানিতেও এই প্রতিষ্ঠানগুলো সুযোগ পাচ্ছে।

স্বর্ণ আমদানি নীতিমালা ২০১৮ তে বলা হয়েছে, ‘আবেদনকারী নিবন্ধিত লিমিটেড কোম্পানি হলে কোম্পানির পরিশোধিত মূলধন ন্যূনতম এক কোটি টাকা থাকতে হবে। আমদানিকৃত স্বর্ণবার ও স্বর্ণালঙ্কার নিরাপদে রাখার জন্য সাড়ে ৭০০ বর্গফুটের কার্যালয় থাকতে হবে। লাইসেন্সের জন্য আবেদনকারীদের অফেরৎযোগ্য পাঁচ লাখ টাকার পে-অর্ডার দিতে হবে।’

স্বর্ণ আমদানির ক্ষেত্রে প্রথমত দুই বছরের জন্য লাইসেন্স দেয় বাংলাদেশ ব্যাংক। এই লাইসেন্স দুই বছর পরপর নবায়ন করতে হবে। অনুমোদন দেয়া লাইসেন্সের মেয়াদ শেষ হওয়ার তিন মাসের মধ্যে নবায়ন করতে হয়। নবায়নের ফি দুই লাখ টাকা।