করোনার বিরুদ্ধে শিল্প’ সারাবিশ্বে বাংলাদেশের একটি ব্যতিক্রমী উদ্যোগ : সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক : সংস্কৃতি বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ এমপি বলেছেন, করোনা ভাইরাসজনিত মহামারিতে আজ সারাবিশ্ব আক্রান্ত। বাংলাদেশও এর বাইরে নয়। করোনা’র বিরুদ্ধে এ লড়াইয়ে সামিল হয়েছেন সারাবিশ্বের ডাক্তার, নার্স, স্বাস্থ্যকর্মী, প্রশাসনের কর্মকর্তা, পুলিশ, সেনাসদস্য-সহ সম্মুখসারির বিভিন্ন যোদ্ধা। কিন্তু বাংলাদেশ এক্ষেত্রে ব্যতিক্রম যেখানে ডাক্তার, নার্স, সরকারি কর্মকর্তা, পুলিশ, সেনাসদস্যদের পাশাপাশি লড়াই করে যাচ্ছেন শিল্পী ও সংস্কৃতিকর্মীরা। সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের পৃষ্ঠপোষকতায় বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির উদ্যোগে শিশু-কিশোর, যুবক, প্রবীণ ও বিশেষ চাহিদাসম্পন্ন শিশুসহ প্রায় সব মাধ্যমের শিল্পীরা করোনাকালে শিল্প-সংস্কৃতি নিয়ে সামিল হয়েছেন যা সারাদেশের মানুষের মধ্যে ব্যাপক সাড়া জাগিয়েছে। ‘করোনার বিরুদ্ধে শিল্প’ সারাবিশ্বে বাংলাদেশের তেমনই একটি ব্যতিক্রমী উদ্যোগ যা করোনাকালীন সারাদেশের মানুষের মনোবল সুদৃঢ় রাখতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছে।

প্রতিমন্ত্রী আজ বিকালে রাজধানীর বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় চিত্রশালা মিলনায়তনে সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের পৃষ্ঠপোষকতায় বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি আয়োজিত মাসব্যাপী (২৭ অক্টোবর-২৬ নভেম্বর ২০২০) ‘Art Against Corona’ তথা ‘করোনার বিরুদ্ধে শিল্প’ এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির মহাপরিচালক লিয়াকত আলী লাকী’র সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন পররাষ্ট্র মন্ত্রী ড. এ. কে. আব্দুল মোমেন এমপি।

কে এম খালিদ বলেন, বঙ্গবন্ধু কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার দক্ষ, বলিষ্ঠ, দূরদর্শী ও সময়োপযোগী নেতৃত্বে করোনাকালে বাংলাদেশের অর্থনীতির চাকা যেমন সচল রয়েছে, একইসঙ্গে বাংলাদেশে করোনায় মৃত্যুহার পৃথিবীর মধ্যে অন্যতম সর্বনিম্ন। সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী বলেন, আগামী বছরের ফেব্রুয়ারির মধ্যে আমরা করোনার একটি কার্যকর ভ্যাকসিন হাতে পাবো বলে আশা করি। পররাষ্ট্র ও স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় এ ব্যাপারে সর্বাত্মক প্রচেষ্টা অব্যাহত রেখেছে।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসাবে আরো উপস্থিত ছিলেন সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. বদরুল আরেফীন ও বরেণ্য চিত্রশিল্পী অধ্যাপক জামাল আহমেদ। স্বাগত বক্তৃতা করেন বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির সচিব মো. নওসাদ হোসেন।