কলাবাগানে শিশু হত্যা : দিহানের ১০ দিনের রিমান্ড চাইবে পুলিশ

নিজস্ব প্রতিবেদক: ঢাকার কলাবাগানে শিশু ধর্ষণের ঘটনায় অভিযুক্ত দিহানের ১০ দিনের রিমান্ড চাইবে পুলিশ।
স্থানীয় ইংলিশ মিডিয়াম স্কুল মাস্টারমাইন্ডের “ও” লেভেলের স্কুলছাত্রী আনুশকা নূর অর্পা নিহতের ঘটনায় ধর্ষণ হয়েছে কিনা তা ফরেনসিক প্রতিবেদনের পরই নিশ্চিত হওয়া যাবে বলে মন্তব্য করেছেন ডিএমপি রমনা বিভাগের উপপুলিশ কমিশনার সাজ্জাদুর রহমান।

শুক্রবার (৮ জানুয়ারি) দুপুরে, রাজধানীর সেগুনবাগিচাতে ক্রাইম রিপোটার্স ইউনিটির বার্ষিক সাধারণ সভা শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন তিনি। এসময় সমাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এ ঘটনা নিয়ে অতিরজ্ঞিত তথ্য প্রকাশ না করারও আহ্বান জানান ডিসি।

এদিকে, নিহত স্কুলছাত্রীর বাবা এ ঘটনাকে ধর্ষণ হিসেবে এজাহারে দাবি করলেও পুলিশ বলছে তদন্তের পর এ বিষয়ে নিশ্চিত হওয়া যাবে। তবে এ ঘটনায় আটক ফারদিন মেয়েটির সাথে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্কের কথা স্বীকার করেছেন বলে পুলিশের দাবি। আসামি ফারদিন ইফতেখার দিহানকে আজ শুক্রবার আদালতে তোলা হবে। দিহানের দশদিনের রিমান্ড আবেদন করা হবে জানিয়েছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার (৭ জানুয়ারি) বেলা ১২টার দিকে দিহানের মোবাইল কল পেয়ে বাসা থেকে বের হন অর্পা। এরপর কিশোরীকে কলাবাগানের ডলফিন গলির নিজের বাসায় নিয়ে যান দিহান। পরে দিহানসহ চার বন্ধু ওই অর্পাকে অসুস্থ অবস্থায় ধানমন্ডির মডার্ন আনোয়ার খান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে। পরে বিকালে হাসপাতালে মেয়েটি মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়ে।

চিকিৎসকরা জানান, অর্পার শরীর থেকে অতিরিক্ত রক্তক্ষরণ হচ্ছিলো। ঘটনার পর খবর পেয়ে হাসপাতাল থেকে ফারদিনকে আটক করে পুলিশ। জিজ্ঞাসাবাদ করা হয় ফারদিনের আরো তিন বন্ধুকে।

আর, এ ঘটনায় ফারদিনকে আসামি করে ধর্ষণ ও হত্যা মামলা করা হয়েছে কলাবাগান থানায়। তবে ফারদিনের দাবি, নিহত অর্পার সঙ্গে তার প্রেমের সম্পর্ক ছিলো।