জনকল্যাণমুখী কাজের প্রশংসা পেয়েছেন বেনাপোল পোর্ট থানার ওসি মামুন

প্রতিনিধি, যশোর: দেশের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ যশোর জেলার সীমান্তবর্তী এলাকা বেনাপোল। দেশের সবচেয়ে বড় স্থলবন্দর হাওয়ায় এখানে আইন শৃঙ্খলা ভালো রাখতে বছর জুড়ে মানুষের পাশে ছিলেন বেনাপোল পোট থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মামুন খান। তিনি মানবিকতার মাধ্যমে শান্তিময়ী মানুষের মন জয় ও পুলিশ বিভাগের ভাবমুর্তি উ্জ্জ্বল করে বিরল দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন।

জানা যায়, সর্বপ্রথম তিনি থানাকে সাধারণ মানুষকে সেবা ও নিরাপত্তা নিশ্চিত করেন। মাদক কারবারি ও অপরাধীদের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স নীতি সহ বিভিন্ন জনকল্যাণমুখী কাজের মাধ্যমে বেশ প্রশংসা অর্জন করেছেন। সাধারন মানুষ যেন কোন হয়রানির শিকার হতে না হয় তার জন্য তিনি ভুক্তভুগিদের কথা শুনে দ্রুত সমস্যার সমাধান দিয়ে থাকেন।

বেনাপোল পোট থানায় যোগদানের পর শান্তিকামী মানুষের মধ্যে শ্রদ্ধা ও আস্থা ফিরে এলো। তার এই সততা, অক্লান্ত পরিশ্রমের ফলে মাদক নিয়ন্ত্রন ও আইনশৃঙ্খলার ব্যপক উন্নতি হয়েছে। তাই মানুষের মুখে শোনা যায় তার প্রশংসার কথা। ভুক্ত ভুগীরা জানান, প্রতিটি গ্রামের আইন শৃঙ্খলার পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রন, জিডি ও মামলা করতে কোন অর্থ লাগে না। বললেই নয় তিনি যেন একজন মানবতার ফেরিওয়ালা।

শাশা-২ আসনের এমপি আলহাজ্ব শেখ আফিল উদ্দিন ও এএসপি নাভারন সার্কেল পুলিশ সুপার জুয়েল ইমরান দিক নির্দেশনায় ওসি মামুন খান বেনাপোল পোট থানায় আইন শৃঙ্খলা উন্নতিতে অনেকটা সফল হয়েছে।

তিনি বেনাপোল পোট থানায় যোগদান করে ২০১৯ সালের ৯ সেপ্টেম্বর । তাঁর যোগদানের পর মাদক ব্যবসায়ী ও সেবনকারীরা তার নেতৃত্বে গ্রেফতার হয়েছে বলে যানা যায়। তার আতঙ্কে এলাকায় অপরাধীরা ও সন্ত্রাসীরা এলাকা ছেড়ে পালিয়ে যাচ্ছে বলে জানান অনেকেই।

বেনাপোল পোর্ট থানায় এক সময়ে রাজনৈতিক অস্থিতিশীলতা ছিল যেটা তিনি নিজ হাতে দমণ করেছেন। ছিনতাই ইভটিজি, চাঁদাবাজি, সন্ত্রাস, জুয়া, মাদকসহ বিভিন্ন অনিয়ম কঠোর হাতে নিয়ন্ত্রন করেছেন। ওসি মামুন খানের দিকনিশেনায় এ পর্যন্ত প্রায় ২২ কোটি ২৮ লক্ষ ৮৭ হাজার ১০০ শত টাকার মাদক দ্রব্য আটক করেন।

মামুন খান বলেন, দেশের প্রতিটি থানার ওসি যদি সততা ও নিষ্ঠার সাথে কাজ কারে তাহলে আমাদের সোনার বাংলাদেশ মাদক, দুর্ণিতি ও সন্ত্রাসমুক্ত হবে, তাহলেই এদেশ গড়ে উঠবে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা হিসেবে।

তিনি আরও বলেন, মুজিববর্ষের অঙ্গীকার, পুলিশ হবে জনতার এই স্লোগানকে সামনে রেখে দিন রাত মানুষের সেবা নিশ্চিত করে চলেছে। তাই বেনাপোল বাসির পক্ষ থেকে হাজারও সালাম জানান এই সৎ অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মামুন খান।

উল্লেখ্য, বছরব্যাপী করোনা মহামারীর মধ্যে মাক্স বিতরণ সহ বিভিন্ন জনসচেতনতা মূলক কার্যক্রম অব্যহতি এবং বিভিন্ন ইউনিয়ন ও ওয়ার্ড পর্যায়ে বিট পুলিশ কার্যক্রম চালু করে ব্যাপক প্রশংসিত হয়েছেন। মামুন খানের আগামীর পথ চলার শুভ কামনা জানিয়েছেন জনপ্রতিনিধিসহ সাধারন মানুষ।