কেরাণীগঞ্জ হতে র‌্যাবের পৃথক অভিযানে ১৮ জুয়াড়ি গ্রেপ্তার

নিজস্ব প্রতিবেদক: রাজধানীর কেরাণীগঞ্জ এলাকায় র‌্যাবের পৃথক অভিযানে ১৮ জুয়াড়ি গ্রেফতার করেছে।

র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব) প্রতিষ্ঠাকালীন সময় থেকেই দেশের সার্বিক আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি সমুন্নত রাখার লক্ষ্যে সব ধরণের অপরাধীকে আইনের আওতায় নিয়ে আসার ক্ষেত্রে অগ্রণী ভূমিকা পালন করে আসছে। র‌্যাব নিয়মিত জঙ্গী, সন্ত্রাসী, সংঘবদ্ধ অপরাধী, অস্ত্রধারী অপরাধী, মাদক, ছিনতাইকারীসহ কেসিনোর (জুয়াড়ি) বিরুদ্ধে অভিযান চালিয়ে আসছে।

এরই ধারাবাহিকতায় গতকাল শনিবার (১৬ জানুয়ারি) রাত সাড়ে ৯টার দিকে র‌্যাব- ১০ এর একটি আভিযানিক দল ঢাকা জেলার কেরাণীগঞ্জ মডেল থানাধীন নজরগঞ্জ এলাকায় একটি অভিযান পরিচালনা করে জুয়ার আসর হতে জুয়া খেলা অবস্থায় ৬ জন জুয়াড়িকে গ্রেফতার করে। গ্রেপ্তারকৃতরা হচ্ছে জাহাঙ্গীর হোসেন (৩৯), কাদের (৫০), জামাল (৫৫), হাবিবুল্লাহ (৫৪), ফারুক (৪৫) ও শাহীন মিয়া (৪৭) বলে জানা যায়।

এসময় তাদের নিকট থেকে ৮টি মোবাইল ফোন, ১টি বেডশীট, ১ টি স্টিলের বক্স, ৮ প্যাকেট জুয়া খেলার কার্ড (তাস) ও নগদ ২০ হাজার ২শ’ ৭০ টাকা উদ্ধার করা হয়।

অপরদিকে, একই তারিখ অনুমান ২৩:৫৫ ঘটিকার সময় র‌্যাব-১০ এর অপর একটি আভিযানিক দল ঢাকা জেলার দক্ষিণ কেরাণীগঞ্জ থানাধীন গোলাম বাজার এলাকায় অপর একটি অভিযান পরিচালনা করে জুয়ার আসর হতে জুয়া খেলা অবস্থায় ১২ জন জুয়াড়িকে গ্রেপ্তার করে। গ্রেপ্তারকৃতরা হচ্ছে নুর ইসলাম (৪৫), ইদ্রিস আলী (৩৮), সোহেল বিশ্বাস (৩১), শাকিল আহমেদ (২৯),  আলম হোসেন (৩৮), রবিউল ইসলাম (৪০),  সবুজ মিয়া (৩০), বেলায়েত হোসেন (২৮), লিটন মিয়া (৪০), আশরাফ আলী (৪২), আনোয়ার (৪০) ও  আবুল কাশেম (৩৫) বলে জানা যায়। এসময় তাদের নিকট থেকে ১৬ টি মোবাইল ফোন, ৫ প্যাকেট জুয়া খেলার কার্ড (তাস) ও নগদ ৩৫ হাজার ৭০ টাকা উদ্ধার করা হয়।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায় যে, গ্রেপ্তারকৃত ব্যক্তিরা পেশাদার জুয়াড়ি। তারা দীর্ঘদিন যাবৎ একে অন্যের সাথে জুয়া খেলে সমাজে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করছে এবং জুয়া খেলার মাধ্যমে নিজেদের সর্বস্ব হারাচ্ছে।

গ্রেপ্তারকৃতদের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট থানায় মামলা হয়েছে।