অনিয়মের অভিযোগে নৌকার দুই প্রার্থীর ভোট বর্জনের ঘোষণা

নোয়াখালী: প্রতীকী ছবিজালভোট, কেন্দ্রদখল আর অনিয়মের অভিযোগে নোয়াখালীর হাতিয়া উপজেলায় ভোট বর্জনের ঘোষণা দিয়েছেন আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের দুই চেয়ারম্যান প্রার্থী। ভোটগ্রহণ শুরুর এক ঘণ্টার মধ্যে বর্জনের ঘোষণা দেন তারা। নৌকার দুই চেয়ারম্যান প্রার্থী হলেনÑ হাতিয়ার ৯ নম্বর বুড়িরচর ইউনিয়নের আওয়ামী লীগের চেয়ারম্যান প্রার্থী জিয়া আলী মোবারক কল্লোল (নৌকা প্রতীক), ১০ নম্বর জাহাজমারা ইউনিয়নের আওয়ামী লীগের চেয়ারম্যান প্রার্থী এটিএম সিরাজ উল্যাহ (নৌকা প্রতীক)।

এছাড়া ভোটগ্রহণ শুরুর পর একই অভিযোগে বর্জনের ঘোষণা দেন ৫ নম্বর চরঈশ্বর ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী চেয়ারম্যান প্রার্থী আবদুল হালিম আজাদ (আনারস প্রতীক), ৮ নম্বর সোনাদিয়া ইউনিয়নের আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী চেয়ারম্যান প্রার্থী (মোটরসাইকেল প্রতীক) নূরুল ইসলাম, ১১ নম্বর নিঝুম দ্বীপ ইউনিয়নের আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী চেয়ারম্যান প্রার্থী (মোটরসাইকেল প্রতীক) মো. মেহেরাজ উদ্দিন। তাৎক্ষণিকভাবে সাংবাদিকদের তারা ভোটবর্জনের ঘোষণার কথা জানান। এর মধ্য দিয়ে হাতিয়ার সাত ইউপির নির্বাচনে পাঁচটিতেই চেয়ারম্যান প্রার্থীরা ভোট বর্জন করলেন।

এদিকে নৌকার প্রার্থীদের ভোটবর্জনের কারণ সম্পর্কে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, হাতিয়া নিয়ন্ত্রণ করেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোহাম্মদ আলী। ৯ নম্বর বুড়িরচর ও ১০ নম্বর জাহাজমারা ইউপিতে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থীদের বাইরে বিকল্প প্রার্থী দিয়েছেন তিনি। ফলে ওই দুটি ইউপিতে ভোটগ্রহণ শুরুর পরপরই কেন্দ্রগুলো নিয়ন্ত্রণে নেন দলীয় বিদ্রোহী প্রার্থীরা। বিভিন্ন কেন্দ্রে অনিয়ম দেখে ভোটগ্রহণ শুরুর পরপরই বর্জনের ঘোষণা দেন নৌকার দুই প্রার্থী।।