বনানীতে কাভার্ডভ্যানের ধাক্কায় যুবক নিহত

ঢাকা:রাজধানীর বনানীর সেতু ভবনের সামনে কাভার্ডভ্যান একটি ছোট পিকআপভ্যানকে পিছন থেকে ধাক্কা দিলে পিকআপভ্যানের থাকা দুই ব্যক্তি গুরুতর আহত হন। পরে তাদেরকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেলে নিয়ে এলে ইসমাইল হোসেন (৩২) নামের এক দোকান কর্মচারী মারা যায়। এই ঘটনায় জনি (৩০) নামের আরও ১ জন আহত হয়েছে ।

মঙ্গলবার (২১ সেপ্টেম্বর) রাত ১টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে। গুরুতর আহত অবস্থায় তাদেরকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নিয়ে এলে কর্তব্যরত চিকিৎসক ভোর সাড়ে ৫টার দিকে একজনকে মৃত ঘোষণা করেন। এই ঘটনায় একজন আহত রয়েছে।

নিহতের সহকর্মী জনি জানান, আমরা দুজন ধোলাইখালের মোটর পার্টস এর একটি দোকানে কাজ করি। দুজন মিলে পিকআপ ভ্যানের পিছনে করে বিমানবন্দর দিকে যাচ্ছিলাম। বনানী সেতু ভবন এর সামনে যাওয়া মাত্রই পিছন দিক থেকে একটি কাভার্ডভ্যান এসে সজোরে ধাক্কা দেয়। এতেই আমরা দুজনই আহত হই।

পরে ইসমাইলকে ঢাকা মেডিকেলে নিয়ে গেলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করে। আমি সামান্য আহত হই। এই ঘটনায় পিকআপ ভ্যান চালক মাকসুদ ও সামান্য আহত হয়।

তিনি আরও জানান, নিহত ইসমাইলের গ্রামের বাড়ি নোয়াখালী জেলার সেনবাগ থানায়। তার পিতার নাম আব্দুল জলিলের সন্তান। বর্তমানে কলকাতা বাজার এলাকায় আমরা একটি মেসে থাকি। নিহত দুই ছেলের জনক ছিলেন। ধোলাইখালের একটি মোটর পার্টস এর দোকানের কর্মচারী ছিলেন।

ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ (পরিদর্শক) মোঃ বাচ্চু মিয়া মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য ঢামেক মর্গে রাখা হয়েছে বিষয়টি সংশ্লিষ্ট থানাকে অবগত করা হয়েছে।