ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে একুশে পদকপ্রাপ্ত শিল্পী জুলহাস উদ্দিনের মৃত্যু

সংবাদদাতা, মুন্সিগঞ্জ: ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে মুন্সিগঞ্জের শ্রীনগর উপজেলায় একুশে পদকপ্রাপ্ত সংগীত শিল্পী জুলহাস উদ্দিন আহমেদ মারা গেছেন। তার বয়স হয়েছিল ৮৮ বছর।

শুক্রবার দিবাগত রাতে জুলহাস উদ্দিনের ভাতিজি নাসরিন আহম্মেদ বলেন, উপজেলার বাড়ৈখালী গ্রামে নিজ বাসায় শুক্রবার দুপুর দেড়টার দিকে তার মৃত্যু হয়।

উল্লেখ্য, সংগীতে বিশেষ অবদানের জন্য ২০১৭ সালে একুশে পদক লাভ করেন জুলহাস উদ্দিন।

নাসরিন আহম্মেদ আরও বলেন, ৩ দিন আগে রক্ত পরীক্ষায় জানা যায় তিনি ডেঙ্গুতে আক্রান্ত। মৃত্যুর কারণও এটি। তিনি বিয়ে করেননি। দৃষ্টিশক্তি না থাকায় বাসাতেই থাকতেন। আমিই তার দেখাশোনা করতাম। সন্ধ্যায় (বাদ মাগরিব) বাড়ৈখালী বাজার জামে মসজিদ প্রাঙ্গণে নামাজে জানাজা শেষে দক্ষিণ বাড়ৈখালী পারিবারিক কবরস্থানে তার দাফন সম্পন্ন হয়।

বাড়ৈখালী গ্রামে ১৯৩৩ সালের ১০ নভেম্বর জুলহাস উদ্দিন আহমেদের জন্ম হয়। তার বাবার নাম ইয়ার আলী বেপারী। মায়ের নাম হাসনা বেগম। ৪ বোন এবং ৫ ভাইদের মধ্যে তিনিই সবার ছোট ছিলেন। আড়াই বছর বয়সে গুটি বসন্তে আক্রান্ত হয়ে তিনি দৃষ্টিশক্তি হারান। ১৯৬০ সাল থেকে তিনি বেতারে সংগীত পরিবেশন শুরু করেন। তিনি নজরুল স্বর্ণপদক, নাছির উদ্দিন স্বর্ণপদক, শিল্পকলা একাডেমি সংবর্ধনা, বুলবুল একাডেমি সংবর্ধনা, রবীন্দ্র সংগীত শিল্পী সংস্থা সংবর্ধনা এবং এবি ব্যাংক-চ্যানেল আই আজীবন সম্মাননা পেয়েছেন।