বরিশালে প্রেমিকা নিয়ে দ্বন্দ্ব, কলাবাগানে মিললো কিশোরের মরদেহ

সংবাদদাতা, বরিশাল: বরিশাল সদর উপজেলার রাজারচর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির ছাত্র সাকিব। রোববার (০৩ অক্টোবর) সন্ধ্যায় সাকিবের এক বন্ধু বাড়ি থেকে তাকে ডেকে নিয়ে যায়। এরপর থেকে সাকিবকে আর খুঁজে পাওয়া যাচ্ছিলো না।

মঙ্গলবার দুপুরে বাড়ি থেকে প্রায় এক কিলোমিটার দূরে কলাবাগানে তার মরদেহ পাওয়া যায়। এ ঘটনায় সন্দেহভাজন ৩ কিশোরকে আটক করা হয়েছে। সাকিব রাজারচর গ্রামের মো. আনোয়ার হোসেনের ছেলে।

পুলিশ বলছে, ধারণা করা হচ্ছে সাকিবকে হত্যার পর মরদেহ কলাবাগানে ফেলে রাখা হয়েছে।

সাকিবের স্বজনরা জানায়, রোববার (০৩ অক্টোবর) সন্ধ্যায় সাকিবের এক বন্ধু বাড়ি থেকে তাকে ডেকে নিয়ে যায়। এরপর থেকে সাকিব নিখোঁজ। মঙ্গলবার দুপুরে বাড়ি থেকে প্রায় এক কিলোমিটার দূরে কলাবাগানের মধ্যে স্থানীয়রা তার মরদেহ দেখতে পেয়ে পুলিশকে খবর দেয়।

কোতোয়ালি থানার পরিদর্শক (তদন্ত) লোকমান হোসেন জানান, সাকিবের শরীরে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। তাকে হত্যা করা হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। মরদেহের পচন দেখে ধারণা করা হচ্ছে, রোববার সন্ধ্যা থেকে ভোরের মধ্যে তাকে হত্যা করা হয়।

স্থানীয় লোকজন জানান, সাকিবের সঙ্গে এক কিশোরীর প্রেমের সম্পর্ক ছিল। ওই কিশোরীকে গ্রামের আরেক কিশোর পছন্দ করত। এ নিয়ে দুই কিশোরের দ্বন্দ্ব চলে আসছিল। সেই দ্বন্দ্বে সাকিবকে পরিকল্পিতভাবে ডেকে নিয়ে হত্যা করা হতে পারে।

কোতোয়ালি মডেল থানার ওসি নুরুল ইসলাম জানান, মরদেহটির ময়নাতদন্তের জন্য শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ছাড়া প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের জন্য রাজারচর গ্রাম থেকে তিন কিশোরকে আটক করা হয়েছে।