শেখ হাসিনার নেতৃত্বে এগিয়ে যাচ্ছে দেশ : সমাজকল্যাণ মন্ত্রী

সমাজকল্যাণ মন্ত্রী নুরুজ্জামান আহমেদ - ফাইল ছবি

আদিতমারী(লালমনিরহাট) প্রতিনিধি
সমাজকল্যাণ মন্ত্রী নুরুজ্জামান আহমেদ বলেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ পরিচালনায় এগিয়ে যাচ্ছে দেশ। তিনি এক সময়ের তলাবিহীন ঝুড়ির দেশকে উপচে পড়া ঝুড়ির দেশে পরিনত করছেন।

মন্ত্রী আজ (শনিবার) বিকালে আদিতমারী উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে উপজেলা প্রসাশনের আয়োজনে আসন্ন শারদীয় দূর্গাপূজা উদযাপন উপলক্ষে উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদ ও মন্দির কমিটির সাথে মত বিনিময় সভা এবং ব্যক্তিগত ও সরকারী অনুদান বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য এসব কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, বর্তমান সরকার এ দেশের ১৭ কোটি মানুষসহ এমন কোন সেক্টর নেই উন্নয়ন করেন নি। শেখ হাসিনার বিকল্প আর কেউ নেই। তিনি একের পর এক অসম্ভকে সম্ভব করে উন্নয়ন করে দেশকে রোল মডেলে পরিণত করেছে।

সমাজকল্যাণ মন্ত্রী আরও বলেন, গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের প্রধানমন্ত্রী আমাকে আপনাদের প্রতিনিধিত্ব করার দায়িত্ব দিয়েছেন। সরকারের প্রতিনিধি হিসেবে যে দায়িত্ব দিয়েছে সেই দায়িত্বে থেকে সরকারের পূর্ণমন্ত্রী হিসেবে সততা ও নিষ্ঠার সাথে দায়িত্ব পালন করে প্রধানমন্ত্রীর আস্থা, আস্থা ও বিশ্বাস অর্জন করতে পেরেছি।

মন্ত্রী আরও বলেন, আপনারা আমার এলাকার ভোটার হিসেবে প্রধানমন্ত্রী আমাকে আপনাদের সেবা করার জন্য সমাজকল্যাণ মন্ত্রীর দায়িত্ব দিয়েছেন। আমি সেই দায়িত্ব থেকে মানুষের জন্য সামাজিক নিরাপত্তা বেষ্টনীর আওতায় বয়স্ক, বিধবা ও প্রতিবন্ধী শতভাগ ভাতার ব্যবস্থা করেছি। এমনকি ক্যান্সার ও হৃদরোগসহ দূরারোগ্য ব্যাধিতে আক্রান্তদের আর্থিক সহায়তার ব্যবস্থাও করেছি।

অনুষ্ঠানে উপজেলা নির্বাহী অফিসার (অতিঃ দায়িত্বে) আব্দুল মান্নানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত স্বাগত বক্তব্য রাখেন পুঁজা উদযাপন পরিষদ আদিতমারী উপজেলা শাখার সভাপতি পূর্ণ চন্দ্র বর্মন। প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মফিজুল ইসলামের সসঞ্চালনে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন সমাজসেবা অধিদফতরের মহাপরিচালক শেখ রফিকুল ইসলাম, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এ্যাডভোকেট মতিয়ার রহমান, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ফারুক ইমরুল কায়েস, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান চিত্তরঞ্জন সরকার, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক রফিকুল আলম, বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল হামিদ মোল্লা ও পূজা উদযাপন পরিষদের সম্পাদক তপন কুমার ঘোষ প্রমূখ।

শেষে সমাজকল্যান মন্ত্রী উপজেলার ১১৩টি পূজামন্ডপে সরকারিভাবে ৪৯৫ কেজি জিআর চাল ও নিজ তহবিল থেকে ২ হাজার টাকা করে অনুদান পূজামণ্ডপের নেতাদের হাতে তুলে দেন।