ব্যাংক থেকে ফেরার পথে লাখ টাকা ছিনতাই

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি : ব্যাংক থেকে টাকা তুলে রাস্তা পার হওয়ার সময় পারভিন খাতুন নামের এক নারীর কাছ থেকে এক লক্ষ টাকা ছিনতাইয়ের অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় ওই নারী বার বার জ্ঞান হারিয়ে ফেলছিলেন। সাথে থাকা ১১ বছরের ছেলে মাকে জ্ঞান ফেরানোর চেষ্টা করছিল। ঘটনাটি গটেছে গতকাল সোমবার সকাল ১১ টার দিকে ঝিনাইদহ সোনালী ব্যাংক শাখা’র সামনে। পারভিনা খাতুন হরিনাকুন্ডু উপজেলার রথখোলা গ্রামের বাবলুর রশিদের স্ত্রী।

প্রত্যক্ষদর্শী সুত্রে জানা গেছে, পারভিনা খাতুন বোরকা পরিহিত অবস্থায় ব্যাংকের সামনে রাস্তা পার হচ্ছিল। এমন সময় কয়েক জন দুর্বৃত্ত এসে তাকে ঘিরে ফেলে এবং মহিলার সাথে ধস্তাধস্তি করে। লোকজন ঘটনাস্থলে পৌছানের আগেই দুর্বৃত্তরা পালিয়ে যায়। ওই মহিলা তখন বলতে থাকেন তার কাছ থেকে টাকা ছিনতাই হয়ে গেছে। মহিলাটি কাঁদতে কাঁদতে আবার ব্যাংকে প্রবেশ করেন এবং বার বার মুর্ছা যান।

মহিলার ছেলে শিশু জিহাদ জানান, সকালে আমি মায়ের সাথে ঝিনাইদহ সোনালী ব্যাংকে টাকা উঠাতে আসি। পরে ব্যাংক থেকে দুই লক্ষ তিন হাজার ৪শ’ ৬০ টাকা তুলে ব্যাংক থেকে নিচে নেমে রাস্তা পার হওয়ার সময় মুখে মাস্ক পড়া ৪/৫ জন লোক আমাদের ঘিরে দরে এবং ব্যাগের মধ্যে থেকে কিছু টাকা ছিনিয়ে নেয়। পরে আমরা গুনে দেখি এক লাখ টাকার একটি বান্ডিল নেই।

পারভিনার ভাসুর হুমায়ুন কবীর জানান, জানান, আমি খবর পেয়ে ব্যাংকে এসে দেখি পারভিনা বার বার অজ্ঞান হয়ে পড়ছেন। সোনালী ব্যাংক ঝিনাইদহ শাখার ম্যানেজার জাকির হোসেন জানান, ওই মহিলা ১১টার দিকে ব্যাংক থেকে টাকা উত্তোলন করে নিয়ে যান। এর কিছুক্ষণ পর তিনি আবার ব্যাংকের ফিরে এসে আমাদের জানান তার টাকা ছিনতাই হয়েছে। একথা বলেই তিনি জ্ঞান হারিয়ে ফেলেন। তাকে ব্যাংকের একটি রুমে রেখে আমরা পুলিশকে বিষয় সম্পর্কে পুলিশকে অবগত করায়।