গ্রিন আইসিটি ফর গ্রিন ডেভেলপমেন্ট সম্মেলন আয়োজন হুয়াওয়ের

নিজস্ব প্রতিবেদক, বাঙলা প্রতিদিন:
দুবাইয়ে হুয়াওয়ে এবং ইনফর্মা টেক যৌথ উদ্যোগে গতকাল সোমবার (১৮ অক্টোবর) ‘বেটার ওয়ার্ল্ড সামিট: গ্রিন আইসিটি ফর গ্রিন ডেভেলপমেন্ট’ শীর্ষক আন্তর্জাতিক সম্মেলন আয়োজন করে। হুয়াওয়ের ক্যারিয়ার বিজনেস গ্রুপের চিফ মার্কেটিং অফিসার বব কাই সহ ইন্ডাস্ট্রির শীর্ষস্থানীয় ব্যক্তিবর্গ এই সামিটে তাঁদের চিন্তাভাবনা তুলে ধরেন।

উক্ত অনুষ্ঠানে বক্তব্য উপস্থাপন করেন ইনফর্মা টেকের সার্ভিস প্রোভাইডার মার্কেটের ভাইস প্রেসিডেন্ট রিচার্ড মাহনি, সংযুক্ত আরব আমিরাতের ইউএন রেসিডেন্ট কো-অর্ডিনেটর ড. ডেনা আসাফ, জায়ান্ট ভেঞ্চারসের সহ-প্রতিষ্ঠাতা টমি স্ট্যাডলেন, এতিসালাতের কর্পোরেট কমিউনিকেশনস এসভিপি ড. আহমেদ বিন আলী, অরেঞ্জের গ্রুপ এনার্জি এসভিপি হার্ভে সুকেট, এমটিএম’র চিফ প্রকিউরমেন্ট অফিসার ডার্ক কার্ল, টেলিনরের গ্লোবাল অপারেশনের এসভিপি তানভীর মোহাম্মদ এবং হুয়াওয়ে ওয়্যারলেস প্রোডাক্ট লাইনের ভাইস প্রেসিডেন্ট অ্যারন জিয়াং। বেটার ওয়ার্ল্ড সামিটে (বিডব্লিউএস) ‘গ্রিন আইসিটি ফর গ্রিন ডেভেলপমেন্ট’ শীর্ষক উদ্বোধনী বক্তৃতা প্রদান করেন হুয়াওয়ের ক্যারিয়ার বিজনেস গ্রুপের চিফ মার্কেটিং অফিসার বব কাই।

কাই বলেন, “আইসিটি অবকাঠামো এবং স্মার্ট ডিভাইস সরবরাহে বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় প্রতিষ্ঠান হিসেবে হুয়াওয়ে এর সকল কার্যক্রমে সবুজ বিপ্লবকে গুরুত্ব দেয়। এ বিষয়টিকে আমরা সমাজের প্রতি আমাদের দায়িত্বের অংশ হিসেবে বিবেচনা করি। কার্বন-নিরপেক্ষতা অর্জনে অপারেটরদের সর্বোত্তম সহযোগী হতে প্রস্তুত হুয়াওয়ে।”

তিনি আরও বলেন, “আমাদের উদ্ভাবনী পণ্য ও সল্যুশনের মাধ্যমে আমরা অপারেটরদের কার্বন নিঃসরণ হ্রাস এবং তাদের নেটওয়ার্ককে আরও এনার্জি-এফিশিয়েন্ট করে তুলতে সাহায্য করবো। কার্বন নিঃসরণ কমাতে এমনকি দ্রুত কার্বন নিরপেক্ষ হয়ে উঠতে টেলিকম অপারেটর এবং অন্যান্য ইন্ডাস্ট্রিকে আমরা সহযোগিতা করতে চাই।”

কাই তাঁর বক্তব্যের শেষে বলেন, “দুবাইয়ে অনুষ্ঠিত বিডব্লিউএস একটি অসাধারণ সূচনা বলে আমাদের বিশ্বাস। সামনের দিনগুলোতে, আমাদের উদ্ভাবনী প্রযুক্তির সাহায্যে সকল ইন্ডাস্ট্রিতে সবুজ বিপ্লব ত্বরান্বিত করতে আমরা আমাদের ইন্ডাস্ট্রি পার্টনার এবং অপারেটরদের সাথে ধারাবাহিকভাবে কাজ করে যাবো।”

চলতি বছরের জুন মাসে, কার্বন হ্রাসের রোডম্যাপ আরও বিশদভাবে পরিচালনা ও পরিমাপের জন্য হুয়াওয়ে এবং ইনফর্মা টেক যৌথভাবে নেটওয়ার্ক কার্বন ইনটেনসিটি (এনসিআই) উদ্যোগের প্রস্তাব দেয়। এই সামিট চলাকালে, সবুজ বিপ্লবে ইন্ডাস্ট্রির অংশীদারিত্বের জন্য একটি প্ল্যাটফর্ম প্রতিষ্ঠার প্রতিশ্রুতি পুনর্ব্যক্ত করে হুয়াওয়ে। কার্বন-নিঃসরণ হ্রাস এবং সবুজ আইসিটি শিল্পে অবদান রাখার ক্ষেত্রে উদ্ভাবনী প্রযুক্তি এবং সর্বশেষ প্র্যাকটিসসমূহ আদান-প্রদানের জন্য ইন্ডাস্ট্রি পার্টনার এবং অপারেটরদের একত্রিত করার প্রচেষ্টা চালিয়ে যাবে হুয়াওয়ে।

হুয়াওয়ে:
হুয়াওয়ে বিশ্বের অন্যতম শীর্ষস্থানীয় তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (আইসিটি) সেবা প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান। সমৃদ্ধ জীবন নিশ্চিতকরণ ও উদ্ভাবনী দক্ষতা বৃদ্ধির মাধ্যমে একটি উন্নত ও সংযুক্ত পৃথিবী গড়ে তোলাই প্রতিষ্ঠানটির উদ্দেশ্য। নতুন উদ্ভাবনের মাধ্যমে হুয়াওয়ে একটি পরিপূর্ণ আইসিটি সল্যুশন পোর্টফোলিও প্রতিষ্ঠা করেছে, যা গ্রাহকদের টেলিকম ও এন্টারপ্রাইজ নেটওয়ার্ক, ডিভাইস এবং ক্লাউড কম্পিউটিং-এর সুবিধাসমূহ প্রদান করে। প্রতিষ্ঠানটি বিশ্বের ১৭০টির বেশি দেশ ও অঞ্চলে সেবা দিচ্ছে, যা বিশ্বের এক তৃতীয়াংশ জনসংখ্যার সমান। এক লাখ ৯৭ হাজারের বেশি কর্মী নিয়ে বিশ্বব্যাপী টেলিকম অপারেটর, উদ্যোক্তা ও গ্রাহকদের সর্বোচ্চ সেবা নিশ্চিত করে ভবিষ্যতের তথ্যপ্রযুক্তি ভিত্তিক সমাজ তৈরির লক্ষ্যে হুয়াওয়ে এগিয়ে চলেছে।

শীর্ষস্থানীয় তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি সেবা প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান হুয়াওয়ে, গত ২১ বছর ধরে বাংলাদেশের তথ্য-প্রযুক্তি শিল্প, টেলিকম অপারেটর এবং স্থানীয় অংশীদারদের সাথে নিবিড়ভাবে কাজ করে যাচ্ছে, যার মাধ্যমে দেশের সাধারণ মানুষের কাছে তথ্য-প্রযুক্তির সেবা পৌঁছে দিয়ে ’ডিজিটাল বাংলাদেশে’র স্বপ্ন পূরণে অসামান্য ভূমিকা রেখে চলেছে প্রতিষ্ঠানটি। এছাড়া বিভিন্ন সিএসআর কর্মসূচী পরিচালনার মাধ্যমে সামাজিক ক্ষেত্রেও নানান অবদান রাখছে হুয়াওয়ে। অগ্রযাত্রার পথে, বাংলাদেশের সাথে এই লক্ষ্যেই কাজ করে যাচ্ছে হুয়াওয়ে।

বিস্তারিত জানতে ভিজিট করুন হুয়াওয়ের ওয়েবসাইট www.huawei.com এবং যুক্ত থাকুন আমাদের ফেইসবুক পেইজে https://www.facebook.com/HuaweiTechBD/

আরো জানতে:
http://www.linkedin.com/company/Huawei

http://www.facebook.com/Huawei
http://www.youtube.com/Huawei