কোভিড তৃতীয় পর্যায় প্রতিরোধে রোটারি ইন্টারন্যাশনালের ৩৫লক্ষ মাস্ক বিতরন শুরু

নিজস্ব প্রতিবেদক, বাঙলা প্রতিদিন: রোটারি ইন্টারন্যাশনাল ৩২৮১ বাংলাদেশ কোভিড -১৯ তৃতীয় পর্যায় মোকাবেলায় সারাদেশে ৩৫ লক্ষ মাস্ক বিতরন কার্যক্রম শুরু করেছে।

মঙ্গলবার (৯ নভেম্বর) ঢাকার একটি হোটেলে এক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে এই মাস্ক বিতরন কার্যক্রম শুরু হয়।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন রোটারি গভর্ণর ব্যারিস্টার মুতাসিম বিল্লাহ ফারুকী। বক্তব্য রাখেন মিলিয়ন ডলার মাস্ক প্রজেক্টের চেয়ারম্যান পিডিজি এম খায়রুল আলম,গভর্নর নির্বাচিত ইঞ্জিনিয়ার এম এ ওয়াহাব, গভর্নর নমিনি টিআইএম নূরুল কবির, যুক্তরাষ্ট্রের রোসি ফাউন্ডেশনের অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা টেড রোসি, যুক্তরাষ্ট্রের কুইন্নিপিয়াক বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক মোহাম্মদ নিয়ামত এলাহী, রোটারিয়ান রবার্ট ফ্রেন্ড। উপস্থিত ছিলেন, রোটারি নেতা আশরাফুজ্জামান নান্নু, কামরুজ্জামান খান টিপু, হাফিজ ইউ বিপ্লব, ইবরাহীম জায়েদ পিনাক প্রমুখ।

গভর্নর বলেন, কোভিড মোকাবেলায় মাস্ক পরার উপকারিতা নিয়ে সারাদেশে রোটারির অনেকগুলো ক্যারাভ্যান এক মাসব্যাপী প্রচারনা চালাবে এবং জনসাধারনের মাঝে বিনামূল্যে মাস্ক বিতরন করবে।

গভর্ণর ফারুকী আরো বলেন, কোভিড-১৯ এর অতিমারী শুরু হওয়ার পর থেকেই বিশ্বব্যাপী রোটারি ক্লাবগুলো এই দুর্যোগ মোকাবেলায় সর্বশক্তি নিয়োগ করেছে। এই খাতে রোটারি অসংখ্য কার্যক্রমের মাধ্যমে ইতিমধ্যে শতশত মিলিয়ন ডলার ব্যয় করেছে।

বাংলাদেশে ২০২০ সালের শুরু থেকেই সারাদেশে কয়েক লক্ষ হ্যান্ড স্যানিটাইজার ও মাস্ক বিতরন ছাড়াও রোটারি বিভিন্ন হাসপাতালে পিপিই অনুদান দেয়া, অক্সিজেন ব্যাংক স্থাপন, কোভিডের কারনে কর্মহীন হয়ে পড়া সোয়া লক্ষ পরিবারকে খাদ্য সহায়তা প্রদান সহ অসংখ্য কার্যক্রম পরিচালনা অব্যাহত রেখেছে।

অনুষ্ঠানে বক্তারা উল্লেখ করেন,’সারাদেশে কোভিড-১৯ এর প্রকোপ কমে আসায় জনসাধারনের মাঝে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার ক্ষেত্রে শিথিলতা লক্ষ্য করা যাচ্ছে। কিন্তু স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে অনীহা আমাদের জন্য বড় বিপর্যয় ডেকে আনতে পারে।

নিকট অতীতে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে দেখা গেছে, স্বাস্থ্যবিধি মানার ক্ষেত্রে শিথিলতা থেকে পরবর্তীতে কোভিড-১৯ এর প্রকোপ আবার ফিরে এসে বড় ক্ষতির সৃষ্টি করেছে।