বৈঠক ১৭ নভেম্বর : আইওরা’র চেয়ারম্যান হচ্ছে বাংলাদেশ

নিজস্ব প্রতিবেদক, বাঙলা প্রতিদিন: ভারত মহাসাগরের উপক‚লীয় দেশগুলোর সহযোগিতা সংস্থা ইন্ডিয়ান ওশেন রিম অ্যাসোসিয়েশনের (আইওরা) ২৫ বছরের ইতিহাসে প্রথমবারের মতো ২৩-জাতি জোটের চেয়ার হতে যাচ্ছে বাংলাদেশ। আগামী ১৭ নভেম্বর ঢাকায় অনুষ্ঠেয় সংস্থাটির কাউন্সিল অব মিনিস্টার সভায় বর্তমান চেয়ার সংযুক্ত আরব আমিরাতের কাছ থেকে চেয়ারম্যানশিপ গ্রহণ করবে ঢাকা।

এ বিষয়ে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মেরিটাইম অ্যাফেয়ার্স ইউনিটের সচিব খোরশেদ আলম বলেন, ‘আমরা প্রথমবারের মতো চেয়ার হতে যাচ্ছি। এবারের ২১তম মিনিস্টারিয়েলে দায়িত্ব হস্তান্তর হবে।’

বাংলাদেশ সবসময় ওই সংস্থাকে গুরুত্ব দিয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, ‘আমরা অবশ্যই চাইব সদস্য রাষ্ট্রগুলোর ইচ্ছার প্রতিফলন ঘটাতে এবং সহযোগিতার ক্ষেত্র প্রসারিত করতে।’

১৫-১৭ নভেম্বর অনুষ্ঠান :
আগামী ১৫ ও ১৬ নভেম্বর সিনিয়র অফিসিয়াল বৈঠকের পরে ১৭ নভেম্বর মন্ত্রী পর্যায়ের বৈঠক হবে। এবারের অনুষ্ঠানে ১২ জন মন্ত্রীসহ ৮২ জন কর্মকর্তা সশরীরে উপস্থিত থাকবেন। এছাড়া, ভার্চুয়ালি যোগদানের সুযোগ থাকবে যারা আসতে পারছে না।

কি কি এজেন্ডা নিয়ে আলোচনা হবে জানতে চাইলে খোরশেদ আলম বলেন, এটি নিয়ে এখনও কাজ চলছে। মোটামুটি বলা যায় বেশ কয়েকটি বিষয় নিয়ে আলোচনা হবে।

যেসব বিষয় নিয়ে আলোচনা হবে সেগুলো হলো বাণিজ্য ও বিনিয়োগ, মৎস্য ব্যবস্থাপনা, দুর্যোগ ঝুঁকি ব্যবস্থাপনা, পর্যটন ও সাংস্কৃতিক বিনিময়, সুনীল অর্থনীতি, নারীর অর্থনৈতিক ক্ষমতায়ন।

এছাড়া শিক্ষা, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সহযোগিতা এবং প্রাতিষ্ঠানিক ব্যবস্থা ও সম্পৃক্ততার ক্ষেত্র বৃদ্ধির বিষয় নিয়েও কথা হবে জানান খোরশেদ আলম। অনুষ্ঠান শেষে ‘ঢাকা ঘোষণা’ গৃহীত হবে বলে জানান তিনি।

আইওরা অ্যাকশন প্ল্যান :
এবারের বৈঠকে ২০২২-২৭ বছর মেয়াদি আইওরা অ্যাকশন প্ল্যান গৃহীত হওয়ার সম্ভাবনা আছে বলে জানান খোরশেদ আলম।

তিনি বলেন, আগামী পাঁচ বছর সংস্থাটি কী করবে, কিীভাবে করবে সেগুলোর একটি বিস্তৃত বর্ণনা থাকবে অ্যাকশন প্ল্যানে।

এছাড়া আগামী দুই বছরে বাংলাদেশের চেয়ারম্যান থাকা অবস্থায় ’ঢাকা ডেভেলপমেন্ট উদ্যোগ’ নেওয়া হবে যার অধীনে চাহিদা অনুযায়ী সদস্য রাষ্ট্রগুলো মাঠ পর্যায়ে বিশেষ কারিগরি সহায়তা দেওয়া হবে।

উদাহরণ হিসাবে তিনি বলেন, বাংলাদেশের মৎস্য উৎপাদনে সাফল্য রয়েছে এবং অন্য কোনো সদস্য রাষ্ট্র যদি এ বিষয়ে জানতে চায় তবে তাকে মাঠ পর্যায়ে হাতে কলমে বিষয়টি প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে।