শ্যালিকার বাড়ি থেকে ফেরার পথে যুবককে তুলে নিয়ে বিয়ে!

বাহিরের দেশ ডেস্ক: নীতীশ কুমার। শ্যালিকার বাড়িতে বেড়াতে গিয়েছিলেন তিনি। ফেরার পথে মাথায় বন্দুক ঠেকিয়ে রাস্তা থেকে তাকে তুলে নিয়ে গিয়ে জোর করে বিয়ে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে

এক তরুণীর পরিবারের বিরুদ্ধে। গত ১১ নভেম্বর এমন ঘটনা ঘটেছে ভারতের বিহারের নালন্দা জেলার মানপুর থানার পারোহা গ্রামে

নীতীশ কুমারের অভিযোগ, শ্যালিকার বাড়ি থেকে ফেরার পথে পারোহি গ্রামে এক দল লোক তাঁকে ঘিরে ধরেন। পরে নীতীশের মাথায় বন্দুক ঠেকিয়ে ছাদনাতলায় নিয়ে যান। কেন তাঁকে তুলে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে প্রথমে বিষয়টি বুঝতে পারেননি নীতীশ। কিন্তু বিয়ের মণ্ডপে পৌঁছতেই তাঁর সন্দেহ হয়। এর পর তাঁকে জোর করে বিয়ের পিঁড়িতে বসানো হয়।

তিনি জানান, আপত্তি জানালে বেধড়ক মারধর করা হয়। সারা রাত ধরে আটকে রাখা হয় বলেও অভিযোগ। কোনো রকমে সেখান থেকে পালিয়ে থানায় হাজির হন নীতীশ। একটি অভিযোগও দায়ের করেছেন তিনি।

মানপুর থানার এসএইচও জীতেন্দ্র কুমার জানান, ঘটনা সম্পর্কে শুনেছি। তদন্তের পর গোটা বিষয়টি স্পষ্ট হবে। ইতোমধ্যেই নীতীশকে জোর করে বিয়ে দেওয়ার সেই ভিডিও ভাইরাল হয়েছে।