বিয়ে করা হলো না, রাস্তায়ই মৃত্যু তুর্কি ফুটবলারের

স্পোর্টস ডেস্ক: কতশত স্বপ্ন নিয়ে ফিরছিলেন আহমেত কালিক! গাটছড়া বাঁধবেন সঙ্গিনীর সঙ্গে, পা রাখবেন নতুন জীবনে। তবে বিয়ে করা হলো না তুরস্কের এই ফুটবলারের, বাড়ি ফেরার পথেই মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনায় ফুরালো তার জীবনবায়ু।
তুরস্কের ক্লাব কোনিয়াস্পোরের ফুটবলার কালিক। ক্লাব থেকে একদিনের ছুটি নিয়ে বিয়ের পরিকল্পনা চূড়ান্ত করার জন্য যাচ্ছিলেন তিনি। তুর্কি ওয়েবসাইট স্পোর অ্যারেনার প্রতিবেদনে বলা হয়, রাজধানী আঙ্কারার কাছে একটি মোটরওয়েতে দুর্ঘটনার কবলে পড়ে মৃতুবরণ করেন কালিক।

তার্কিস জাতীয় দলের ফুটবলার আহমেত কালিক দুর্ঘটনার সময় গাড়িতে একাই ছিলেন। তুর্কি গণমাধ্যমগুলোর খবর, মঙ্গলবার (১১ই জানুয়ারি) সকাল ৯টায় আঙ্কারা-নিগদে সড়কে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে রাস্তার পাশে খাদে পড়ে যায় কালিকের গাড়ি। তার্কিস সুপার লীগের দল কোনিয়াস্পোরের এই ডিফেন্ডারকে এলমাদাগের একটি করবস্থানে সমাধিত করা হবে বলে জানিয়েছে ফোটোম্যাক।

কালিকের ক্লাব কোনিয়াস্পোর এক টুইট বার্তায় শোক প্রকাশ করেছে, ‘আমাদের খেলোয়াড় আহমেত কালিককে হারিয়ে আমরা গভীরভাবে শোকাহত। কোনিয়াস্পোরে আসার প্রথম দিন থেকেই আমাদের সমর্থক এবং শহরের মানুষদের ভালবাসা অর্জন করে নিয়েছিলেন তিনি।’
কালিকের মৃত্যুতে কোনিয়াস্পোরে তাদের পরবর্তী ম্যাচটি স্থগিত করতে তার্কিস ফুটবল ফেডারেশনের কাছে অনুরোধ জানিয়েছে। আগামী ১৫ই জানুয়ারি ইস্তানবুল বাসাকসেহিরের বিপক্ষে ম্যাচটি হওয়ার কথা রয়েছে।

২০১৫ থেকে ২০১৭ সালের মধ্যে তুরস্ক জাতীয় দলের হয়ে আটটি ম্যাচ খেলেছেন আহমেত কালিক।

২০১৬ সালে ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপেও দলে ছিলেন তিনি, যদিও কোনো ম্যাচ খেলার সুযোগ হয়নি তার। কালিকের মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেছে তুর্কি এফএ। শোক প্রকাশ করেছে কালিকের সাবেক ক্লাব গালতাসারায়ে। ২০২০ সালে কোনিয়াস্পোরে যোগ দেয়ার আগে তিন বছর গালাতাসারায়ের হয়ে ৫০টির বেশি ম্যাচ খেলেন কালিক।