বসুন্ধরা গ্রুপের সহায়তায় শীতার্তদের মুখে হাসি ফুটালো শুভসংঘ

নিজস্ব প্রতিবেদক, বাঙলা প্রতিদিন: ‘যে শীত পড়ছে, কম্বলটা যে দিছে আল্লাহ যেন তার ভালা করে। আমরারে কেউ কিচ্ছু দেয় না রে বাবা, যে পায় হে সব জেগা থাকি পায়। নাতি লইয়া বড় কষ্টে আছি।

ঠিকমতো খাইতে পারি না, টিনর চালে দিয়া রাইত হইলে কুয়ার (কুয়াশার) পানি পড়ে।’ বসুন্ধরা গ্রুপের দেওয়া কম্বল নিতে এসে এ রকম আবেগাপ্লুত কথা বলেন সালেমা বেগম নামের ৮৫ বছর বয়সের এক বৃদ্ধা।

বৃহস্পতিবার (১৩ জানুয়ারি) সকাল ১১টায় বসুন্ধরা গ্রুপের সহায়তায় এবং কালের কণ্ঠ শুভসংঘ মৌলভীবাজার জেলা শাখার আয়োজনে ৪০০ শীতার্ত মানুষের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণের আয়োজন করা হয়। মৌলভীবাজার সদর উপজেলার লামা জগন্নাথপুর গ্রামের আশরাফ মঞ্জিলে আয়োজিত শীতবস্ত্র বিতরণ অনুষ্ঠানে সাবেক ইউপি সদস্য শফিকুর রহমানের সভাপতিত্বে ও শুভসংঘ মৌলভীবাজার জেলা শাখার উপদেষ্টা জোবায়ের আলী আহমদের সঞ্চালনায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাবরিনা রহমান। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাবরিনা রহমান বলেন, কালের কণ্ঠ শুভসংঘ বিগত ১০ বছর ধরে মানবতার কল্যাণে কাজ করে যাচ্ছে, সারা দেশের প্রত্যন্ত এলাকায় কাজ করছে এ সংগঠনটি। দেশব্যাপী বসুন্ধরা গ্রুপের এমন উদ্যোগকে সাধুবাদ জানাই।

বসুন্ধরা গ্রুপের সহযোগিতায় কালের কণ্ঠ শুভসংঘের আয়োজনে নাটোরের সিংড়ায় শীতবস্ত্র পেয়েছেন ২৫০ অসহায় ব্যক্তি। বৃহস্পতিবার (১৩ জানুয়ারি) সকাল ১১টায় উপজেলা অডিটরিয়াম চত্বরে শীতবস্ত্র বিতরণ করে শুভসংঘের সিংড়া উপজেলা শাখা। শীতবস্ত্র নিতে আসা বিধবা রহিমা বেওয়া বলেন, স্বামী মারা যাওয়ার পরে নাতি-নাতনিদের নিয়ে কষ্টে জীবনযাপন করি। এই কম্বল আমাদের শীত থেকে রক্ষা করবে। বসুন্ধরা গ্রুপের জন্য প্রাণ খুলে দোয়া রইল।

বসুন্ধরা গ্রুপের সহায়তার অংশ হিসেবে শীতার্তদের মাঝে কম্বল বিতরণ করেছে কালের কণ্ঠ শুভসংঘ খুলনা জেলা শাখা। বৃহস্পতিবার জেলার পাইকগাছা উপজেলার তিনটি স্থানে চার শতাধিক কম্বল বিতরণ করা হয়। সকাল ১১টায় পাইকগাছা পৌরসভার শিববাটী এলাকায় প্রধান অতিথি হিসেবে কর্মসূচির উদ্বোধন করেন স্থানীয় (খুলনা-৬) সংসদ সদস্য মো. আখতারুজ্জামান বাবু। সংসদ সদস্য বাবু বলেন, বাংলাদেশে জলবায়ু দুর্যোগের সবচেয়ে বেশি শিকার খুলনা উপকূলের মানুষ। বিশেষ করে কয়রা-পাইকগাছায় প্রতিবছর নদীভাঙন, বেড়িবাঁধ ভাঙন, অতি লবণাক্ততার প্রভাব দীর্ঘদিনের সংকট। এ কারণে এ অঞ্চলের অনেক মানুষ কষ্টের মধ্যে দিনযাপন করে। বর্তমান প্রধানমন্ত্রী উপকূলের মানুষের জন্য অবিরত কাজ করছেন। কিন্তু সরকারের একার পক্ষে সব সমস্যার সমাধান সম্ভব নয়। এ জন্য বেসরকারি প্রতিষ্ঠানকেও এগিয়ে আসতে হবে। বসুন্ধরা গ্রুপ ও কালের কণ্ঠের এই সহযোগিতায় সাধারণ মানুষ উপকৃত হচ্ছেন। এভাবে সবাইকে সামাজিক কর্মকাণ্ডে এগিয়ে আসতে হবে।

দেশের শীর্ষস্থানীয় বসুন্ধরা গ্রুপের অর্থায়নে এবং কালের কণ্ঠ শুভসংঘ ডোমার উপজেলা শাখার আয়োজনে নীলফামারীর ডোমার মহিলা ডিগ্রি কলেজ মাঠে অসহায় ও শীতার্তদের মাঝে ৩০০টি কম্বল বিতরণ করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার দুপুর সাড়ে ১২টায় এ কম্বল বিতরণ করা হয়। এ সময় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ডোমার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও কালের কণ্ঠ শুভসংঘ ডোমার উপজেলা শাখার উপদেষ্টা শাহিনা শবনম।