কালিয়ায় ব্যাংকে চুরি করে যাওয়ার সময় ধরা, পরে ২ মাসের কারাদণ্ড

নড়াইল প্রতিনিধি: নড়াইলের কালিয়ায় গ্রামীন ব্যাংকের শাখা থেকে ৪০ হাজার টাকা চুরি করে পালিয়ে যাওয়ার সময় চোরকে আটক করার খবর পাওয়া গেছে। কালিয়ার ভ্রাম্যমান আদালতের ম্যাজিষ্ট্রেট ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার জহুরুল ইসলাম তাকে ২মাসের কারাদন্ড ও ৫হাজার টাকা জরিমানা করেন। বৃহস্পতিবার দুপরে বড়দিয়া গ্রামীন ব্যাংক শাখায় এ ঘটনা ঘটে। খুলনা জেলার তেরখাদা উপজেলার কোলা গ্রামের হারুন খানের ছেলে চোর টিটুন খান।

ব্যাংক সুত্রে জানা যায়, কালিয়া উপজেলার নড়াগাতী থানা বড়দিয়া গ্রামীন ব্যাংকের শাখা থেকে বৃহস্পতিবার দুপুরে গ্রাহক সেজে চোর ব্যাংকের ভিতর প্রবেশ করে। পরে ব্যাংক কর্মকর্তাও সামনে বসে কথা বলতে থাকে। এসময় চেয়ার থেকে উঠে ক্যাশিয়ার অন্য কাজে অন্য কর্মকতার কাছে গেলে তখন ওই চোর দ্রুত ক্যাশকাউন্টার থেকে গ্রাহকদের জমার ৪০হাজার টাকা তার প্যান্টের পকেটে ডুকায় ফেলে। কিন্তু ওই সময় কিছু টাকা মেঝেতে পড়ে যায়। মেঝেতে টাকা পড়ে থাকতে দেখে ওই কর্মকতার সন্দেহ হয়। তখন ওই কর্মকর্তা ও ব্যাংকের লোকজন তাকে আটক করে। পরে নড়াগাতী পুলিশের নিকট তাকে সোপদ্দ করে।

চোরকে বৃহস্পতিবার বিকালে কালিয়ার ভ্রাম্যমান আদালতে হাজির করলে ভ্রাম্যমান আদালতের ম্যাজিষ্ট্রেট ২মাসের কারাদন্ড ও ৫হাজার টাকা জরিমানার আদেশ দেন।

নড়াগাতী থানার ওসি সুকান্ত সাহা জানান, আসামীকে নড়াইল জেলা কারাগারে প্ররণ করা হয়েছে।