নিজস্ব প্রতিবেদক, কুমিল্লা : কুমিল্লা সিটি করপােরেশন (কুসিক) নির্বাচনে মেয়র পদে বেসরকারী ভাবে নতুন নগরপিতা নির্বাচিত হয়েছেন আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতীক নিয়ে আরমানুল হক রিফাত। ১০১টি কেন্দ্রে তিনি ৫০ হাজার ৩১০ ভােট পেয়েছেন। আর রিফাতের নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী টেবিল ঘড়ি প্রতীকের মনিরুল হক সাক্কু পেয়েছেন ৪৯ হাজার ৯৬৭ ভােট।

বুধবার (১৫ জুন) রাতে রিটার্নিং কর্মকর্তা মাে. শাহেদুন্নবী চৌধুরী এ ফল ঘােষণা করেন।

এদিকে রেসরকারী ভাবে ফলাফল ঘোষণা করার পর নিজ বাসভবনে তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় আরফানুল হক রিফাত বলেন, জীবন দিয়ে আমি আমার প্রতিশ্রুতি রক্ষা করবো। আগামী ১ বছরের মধ্যে কুমিল্লাবাসীকে বিভিন্ন সুফল এনে দিতে চেষ্টা করবো।

তিনি বলেন, কুমিল্লার মানুষের কাছে ঋণী থাকব। তারা তাদের চিন্তা-চেতনায় আমাকে মেয়র হিসেবে নির্বাচিত করেছেন। আমি তাদের যে কমিটমেন্ট দিয়েছি, সেই কমিটমেন্ট রক্ষা করব।

মেয়র হিসেবে প্রথম কাজ কী হবে, এ নিয়ে জানতে চাইলে রিফাত বলেন, মেয়র হিসেবে আমার প্রথম কাজই হবে গত ১০ বছরে দূর্নীতির শ্বেতপত্র প্রকাশ। জলাবদ্ধতা ও যানজট কুমিল্লা নগরবাসীর দীর্ঘদিনের ভোগান্তির কারণ উল্লেখ করে রিফাত বলেন, আগামী এক বছরের মধ্যেই তিনি এই দুটি সমস্যার সমাধান করবেন। সাবেক মেয়র মনিরুল হক সাক্কু নগরীর কোনাে উন্নয়নের পরামর্শ নিয়ে এগিয়ে এলে তিনি তা সাদরে গ্রহণ করলেন বলেও জানান ।

নতুন মেয়র রিফাত বলেন, প্রাক্তন মেয়র যদি এগিয়ে আসেন, আমি ভালাে কাজ হলে গ্রহণ করব। আমি আওয়ামী লীগের কর্মী। কিন্তু দলীয় মেয়র নই। আমি কুমিল্লার মানুষের মেয়র। আমার অফিস ও বাসা সকল মানুষের জন্য সবসময় খোলা থাকবে।

কুমিল্লা সিটি করপােরেশন (কুসিক) নির্বাচনে সকাল ৮টা থেকে ভোটগ্রহণ শুরু হয়ে চলে বিকেল ৪টা পর্যন্ত। নগরীর ২৭টি ওয়ার্ডের ১০৫টি কেন্দ্রে ইলেকট্রনিক ভােটিং মেশিনে (ইভিএম) ভােট নেওয়া।

কুসিকের ২৭টি ওয়ার্ডে মােট ভােটার ২ লাখ ২১ হাজার ১২০ জন। এদের মধ্যে ১ লাখ ১৭ হাজার ৯২ জন নারী ভোটার এবং পুরুষ ভোটার ১ লাখ ১২ হাজার ৮২৮ জন। এ ছাড়া তৃতীয় লিঙ্গের ভোটার ছিল ২ জন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here