সংবাদদাতা, নোয়াখালী: নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জে রওশন আরা মিতু নামে এক কলেজছাত্রীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

সোমবার রাত ১টায় উপজেলার বসুরহাট পৌরসভার ৮ নম্বর ওয়ার্ডের হাজী ছেলামত উল্যার বাড়ি থেকে ওই কলেজছাত্রীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। তবে তাৎক্ষণিক নিহতের পরিবার ও পুলিশ আত্মহত্যার নির্দিষ্ট কোনো কারণ জানাতে পারেনি।

নিহত রওশন আরা আক্তার মিতু (১৯) কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার বসুরহাট পৌরসভার ৭ নম্বর ওয়ার্ডের আবদুল হালিমের মেয়ে।

স্থানীয়রা জানান, মিতু উপজেলার জৈতুন নাহার কাদের মহিলা কলেজ থেকে এইচএসসি পরীক্ষা দেয়। নানাবাড়ি থেকে লেখা পড়া করত সে। তার মেঝো মামা আবু নাছের তার লেখাপড়ার খরচ বহন করত। সোমবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে পরিবারের সদস্যদের অগোচরে নিজ শয়নকক্ষে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে মিতু। পরে তার ঝুলন্ত লাশ দেখে পরিবারের সদস্যদের চিৎকারে প্রতিবেশীরা এগিয়ে আসেন।

কোম্পানীগঞ্জ থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মজিবুর রহমান জানান, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে ঝুলন্ত অবস্থায় মিতুর লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসেন। মঙ্গলবার লাশ ময়নাতদন্তের জন্য ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হবে। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, এটি আত্মহত্যা। বাকিটা তদন্তে বেরিয়ে আসবে।

এসআই আরও বলেন, মরদেহের সুরতহাল রিপোর্ট তৈরি করে এ ঘটনায় একটি অপমৃত্যু মামলা করা হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here