বুধবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৩:২৮ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম :
নেতিবাচক দৃষ্টিভঙ্গি এবং বৈষ্যম্য কমিয়ে মাদকমুক্ত ব্যক্তিদের অনুপ্রাণিত করতে হবে বাংলাদেশ ব্যাংকের সাথে সাউথইস্ট ব্যাংকের চুক্তি স্বাক্ষর গণতন্ত্র, অগ্রগতি, বিশ্ব নারী জাগরণের প্রতীক প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা : তথ্যমন্ত্রী ইসলামী ব্যাংকের শরী‘আহ সুপারভাইজরি কমিটির সভা অনুষ্ঠিত ব্র্যাক ব্যাংকের ৮০০টি এজেন্ট ব্যাংকিং আউটলেট চালুর মাইলফলক অর্জন মানসম্মত সুশিক্ষাই টেকসই উন্নয়নের হাতিয়ার পাটকাঠি আস্ত রেখে পাটের আঁশ ছাড়ানোর যন্ত্র আবিষ্কার করলো বারি’র বিজ্ঞানীরা ঈশ্বরদী ইপিজেডে চীনা কোম্পানির ১২০ লাখ মার্কিন ডলার বিনিয়োগ হৃদরোগ ঝুঁকি মোকাবেলায় কমিউনিটি ক্লিনিক পর্যায়ে চিকিৎসাসেবা নিশ্চিত করতে হবে ‘‌পাটখাতের রপ্তানী বাণিজ্য সম্প্রসারণে অংশীজনদের সার্বিক সহযোগিতা করা হবে’ ভাষাসৈনিক সাংবাদিক রণেশ মৈত্রের মৃত্যুতে সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রীর শোক করতোয়ায় নৌ-দুর্ঘটনা: মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৬৬

টিনেগল সিলভার মেডেল বিজয়ী বাংলাদেশী আল আকসা তানজিম খান

নিজস্ব প্রতিবেদক, বাঙলা প্রতিদিন : লন্ডনে অক্সফোর্ড টাউন হলে অনুষ্ঠিত টিনেগল (Teeneagle) এর ফাইনাল রাউন্ডে রৌপ্য পদক জিতেছেন বাংলাদেশের ইন্টারন্যাশনাল হোপ স্কুলের ছাত্র আল আকসা তানজিম খান। তানজিম খান মিনিস্টার গ্রুপের চেয়ারম্যান ও এফবিসিসিআই’র ভাইস প্রেসিডেন্ট এম এ রাজ্জাক খান রাজ এবং দিলরুবা তনু (ম্যানেজিং ডিরেক্টর, মিনিস্টার গ্রুপ) এর জৈষ্ঠ পুত্র। এই পদক সমগ্র জাতির জন্য একটি বড় অর্জন এবং এক গৌরবময় মুহূর্ত।

পাঠ্যক্রম বহির্ভূত এবং প্রতিযোগিতায় শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণ এখন আর শুধু শিক্ষা নয়। এখন, এটি বিশ্বব্যাপী পরিবেশে কীভাবে নেটওয়ার্ক করতে হয় তা শেখার বিষয়, এই লক্ষ্য নিয়েই আয়োজিয় হয় এই টিনেগল প্রতিযোগিতা। ৫০ টিরও বেশি দেশে আন্তর্জাতিক ইংরেজি প্রতিযোগিতার মাধ্যমে, প্রত্যেক শিক্ষার্থীকে আলাদাভাবে সংযোগ স্থাপনের সুযোগ তৈরি করছে তারা।

টিনেগলের শিক্ষার্থীদের প্রতিযোগিতার জন্য দুটি পর্যায় রয়েছে: অনলাইন এবং গ্লোবাল ফাইনাল। অনলাইন মঞ্চটি বিশ্বের যেকোনো স্থান থেকে করা যেতে পারে। এই পর্যায়ে একটি অনলাইন পরীক্ষা রয়েছে, ওয়েবসাইটে পাওয়া হাতে-বাছাই করা সংস্থানগুলি থেকে প্রশ্ন আসে। প্রথম পর্যায়ে, আল আকসা তানজিম খান প্রথমে টিনেগল অনলাইন মঞ্চে অংশগ্রহণ করেন। এতে মোট ৫০ টি প্রশ্ন ছিল, এবং ৬০ মিনিটের পরীক্ষাটি সম্পূর্ণ করতে। পরীক্ষাটি অংশগ্রহণকারীদের স্কুলে তাদের শিক্ষকদের তত্ত্বাবধানে হয়েছিল, যদি না অন্যথায় ঘোষণা করা হয়। টিনেগল অনলাইন পর্যায়ে ৪০% বা তার বেশি অর্জনকারী যে কোনো অংশগ্রহণকারী জাতীয় রাউন্ড এবং গ্লোবাল ফাইনালে যেতে পারবে।

আল আকসা তানজিম খান প্রথম পর্যায়ে নির্বাচিত হন এবং পরবর্তী স্তরে যান যা ছিল, গ্লোবাল ফাইনাল স্টেজ। এই স্টেজ সেরা সেরাদের জন্য। আল আকসা তানজিম খান সহ অন্যান্য সকল অংশগ্রহণকারীরা 8 দিন লন্ডন, যুক্তরাজ্যে কাটান এবং নলেজ কুইজ, রাইটিং চ্যালেঞ্জ, স্পেলিং বি, পার্সুয়াসিভ স্পিকিং, ট্যালেন্ট শো এবং শর্ট ফিল্মের ক্ষেত্রে প্রতিযোগিতা করেন। প্রতিযোগীতা না করার সময়, সমস্ত অংশগ্রহণকারী একচেটিয়া ইংরেজি যোগাযোগের ক্লাসে যোগ দেয়। প্রতিযোগিতার বাইরে—লন্ডনের আশেপাশে কিছু ভ্রমণের ব্যবস্থা করা হয়। যার মধ্যে রয়েছে লন্ডন আই এবং ট্রাফালগার স্কয়ার, বিজ্ঞান এবং ব্রিটিশ মিউজিয়াম, এবং কেমব্রিজ এবং অক্সফোর্ড শহরে একটি পুরো দিন ভ্রমণ।

প্রতিযোগিতার উদ্দেশ্য হল ছাত্রছাত্রীদের শুধু পড়াশুনা ছাড়াও অন্যান্য পাঠ্যক্রমিক কার্যক্রম সম্পাদন করতে সক্ষম করা। এটি বিশ্বব্যাপী পরিবেশে কীভাবে নেটওয়ার্ক করতে হয় তা শেখার বিষয়ে। টিনেগল মনে করে এই লক্ষ্যগুলি অর্জনের জন্য শিক্ষার্থীদের একটি বিশ্বায়িত, আধুনিকীকৃত এবং সহজগম্য প্ল্যাটফর্ম প্রয়োজন।

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2020 www.banglapratidin24.com

This will close in 1 seconds