শুক্রবার , ২৮ অক্টোবর ২০২২ | ১৬ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
  1. অপরাধ ও দূর্নীতি
  2. আইন ও আদালত
  3. আনন্দ ঘর
  4. আনন্দ ভ্রমন
  5. আলোচিত খবর
  6. উন্নয়নে বাংলাদেশ
  7. এছাড়াও
  8. কবি-সাহিত্য
  9. কৃষিজীব বৈচিত্র
  10. ক্যাম্পাস
  11. খবর
  12. খুলনা
  13. খেলা
  14. চট্টগ্রাম
  15. জাতীয়

যে মেলার ঐতিহ্য ২০০ বছরের !

প্রতিবেদক
বাঙলা প্রতিদিন
অক্টোবর ২৮, ২০২২ ১২:৩৭ অপরাহ্ণ

মো: রেদওয়ানুল হক মিলন, ঠাকুরগাঁও: দুইশত বছরের ঐতিহ্যবাহী কালীপূজা উপলক্ষে ঠাকুরগাঁও বালিয়াডাঙ্গি উপজেলায় দিনব্যাপী পাঁচপাহাড় আনন্দ মেলা জমে উঠেছে। দিনব্যাপী এ মেলায় ঢল নামে নানা শ্রেণিপেশার মানুষের। নাগরদোলার পাশাপাশি হরেক রকম পণ্যের পসরা সাজিয়ে বসেন দোকানিরা। বাজনার তালে তালে নাচছেন ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠীর নারী-পুরুষ। আদিবাসীরা নেচে গেয়ে মুগ্ধ করে দর্শকদের। মেলার ঐতিহ্য ধরে রাখতে নানামুখী উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। পাশাপাশি নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করেছে মন্দির কমিটি। এ সময় ২৫০ জন মানুষের মাঝে বস্ত্র বিতরণ করা হয়।

বুধবার (২৬অক্টোবর) দিনব্যাপী ঐতিহ্যবাহী পাঁচপাহাড় মেলায় দর্শনার্থিদের পচারনায় মুখোর হয়ে ওঠে। এ মেলায় খেলনা সামগ্রী ও মিষ্টি মন্ডাসহ নানা রকম প্রয়োজনীয় সামগ্রীর পসরা সাজিয়ে বসেন দোকানীরা। দূর-দূরান্তের মানুষের উপস্থিতি পরিনত হয় মিলন মেলায়।

স্থানীয় কয়েকজন প্রবীণ ব্যক্তি জানায়,  প্রতি বছর হিন্দুসম্প্রদায়ের কালিপূজা উপলক্ষে অনুষ্ঠিত হয়ে আসছে ঐতিহ্যবাহী এ মেলা। এই পূজাকে কেন্দ্র করেই ২০০ বছরের আগে থেকে এ মেলা বসে আসছে। মেলাকে কেন্দ্র করে ধর্ম-বর্ণনির্বিশেষে ঠাকুরগাঁওবাসী মিলনমেলায় পরিণত হয়ে ওঠে। উত্তরঅঞ্চলের অনেকেই আসেন এ মেলায়।

বালিয়াডাঙ্গী উপজেলা হিন্দু মহাজোটের সভাপতি প্রভাত কুমার সাহা জানান, মেলায় জেলার বিভিন্ন ইউনিয়ন থেকে আসা প্রায় দেড়শতাধিক দোকান বসেছে। মেলায় বসানো হয়েছে বিনোদনের জন্য নাগরদোলা। মেলায় গৃহস্থলী সামগ্রীসহ এমন কোনো জিনিস নেই, পাওয়া যাচ্ছে না।

মেলায় আসা নুসরাত তামান্না, মালতি রানী, মল্লিকা রানী জানান, তাঁরা প্রতিবছর মেলার জন্য অপেক্ষা করে থাকেন। গৃহস্থলী জিনিসপত্র অনেক কম দামে কেনা যায়। পাওয়া যায় সব ধরনের জিনিসপত্র। হরিপুর থেকে আসা শ্রাবণী জানান, ভাই-বোন ও আত্মীয়স্বজন নিয়ে মেলা দেখতে ও কেনাকাটা করতে এসেছি। মেলা উপলক্ষে দূরের আত্মীয়স্বজন এক সপ্তাহ আগে চলে এসেছেন তাঁদের বাড়িতে।

কালীপূজার পরের দিনব্যাপী কালীমন্দির প্রাঙ্গণে এমন মেলার আয়োজন করা হয় বলে জানান পাঁচ পাহাড় কালীমন্দির কমিটির সভাপতি সুজন ঘোষ। তিনি জানান, ঐতিহ্য ও সাংস্কৃতির সঙ্গে মিশে আছে পাঁচ পাহাড় কালীপূজা মেলা। মেলা যাতে আগের ঐতিহ্য ফিরে পায়, সে জন্য সব রকম উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

ঠাকুরগাঁও জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মাজহারুল ইসলাম সুজন বলেন, ঠাকুরগাঁও, তথা বাঙালির সংস্কৃতি ও ঐতিহ্য ধরে রাখতে মেলা শুরু করা হয়েছে। ২০০ বছর আগে প্রতিষ্ঠিত এ পাঁচ পাহাড় কালীমন্দির মেলার আয়োজন হয়ে আসছে। এবার সেটি করা হয়েছে। সবাই আন্দন নিয়ে এটি পালন করে থাকেন।

সর্বশেষ - ক্যাম্পাস

ব্রেকিং নিউজ :

বাঙলা প্রতিদিন

This will close in 1 seconds