300X70
বুধবার , ১৭ এপ্রিল ২০২৪ | ১১ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
  1. অপরাধ ও দূর্নীতি
  2. আইন ও আদালত
  3. আনন্দ ঘর
  4. আনন্দ ভ্রমন
  5. আবহাওয়া
  6. আলোচিত খবর
  7. উন্নয়নে বাংলাদেশ
  8. এছাড়াও
  9. কবি-সাহিত্য
  10. কৃষিজীব বৈচিত্র
  11. ক্যাম্পাস
  12. খবর
  13. খুলনা
  14. খেলা
  15. চট্টগ্রাম

আগামী ২০ এপ্রিল ডা. হালিদা বইয়ের মোড়ক উন্মোচন

প্রতিবেদক
বাঙলা প্রতিদিন২৪.কম
এপ্রিল ১৭, ২০২৪ ৯:২২ অপরাহ্ণ

বাঙলা প্রতিদিন ডেস্ক : স্বনামধন্য জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ ও বেগম রোকেয়া পদকে ভূষিত ডাঃ হালিদা হানুম আখতার ১৯৭১ সালে স্বাধীনতা সংগ্রামে নির্যাতিত নারীদের চিকিৎসা ও পুনর্বাসনের জন্য ১৯৭২ সালে স্থাপিত ‘সেবাসদন’ নিয়ে তাঁর স্মৃতিচারণ সম্ভ্রমযোদ্ধাঃ সেবাসদন ও একজন ডা. হালিদা বইয়ের মোড়ক উন্মোচন আগামী ২০ এপ্রিল ২০২৪, কবি শামসুর রাহমান সেমিনার কক্ষ, বাংলা একাডেমী অনুষ্ঠিত হবে সকাল ১০.৩০ থেকে দুপুর ২.০০টা পর্যন্ত।
অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত থাকবেন জনাব মুহম্মদ নূরুল হুদা, মহাপরিচালক বাংলাএকাডেমী।
একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধ চলাকালীন সময়ে ডাঃ হালিদা ছিলেন যুক্তরাষ্ট্রে।তৎকালীন স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের আমন্ত্রণে তিনি দেশে ফিরে এসে পরিবার পরিকল্পনা বিভাগে যোগদান করেন, অতঃপর স্বাধীনতা সংগ্রামে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর নির্দেশনায় প্রতিষ্ঠিত ধানমন্ডির ‘সেবাসদন’ এ নির্যাতিত নারীদের চিকিৎসা ও পুনর্বাসন সেবা দিতে শুরু করেন। এই বইটি ডাঃ হালিদার সেই অভিজ্ঞতার আলোকে লেখা। বইটিতে তিনি ওই সমস্ত মায়েদের নির্যাতন ও মানসিক যন্ত্রণার বর্ণনা দিয়েছেন। অস্বাভাবিক পরিস্থিতিতে নির্যাতনের ফলে গর্ভধারণ করার সেই গর্ভস্থ সন্তানকে গর্ভপাত করা অথবা জীবিত জন্ম হলে তাকে কাছে না পাওয়ার যে কষ্ট সেটা তিনি তার বর্ণনায় তুলে এনেছেন।
স্বাধীনতা পরবর্তী সময়ে ডাঃ হালিদা ছিলেন সম্ভ্রম হারানো নারীদের এক আশ্রয়স্থল।তিনি ছিলেন অসহায়দের সহায় এবং সহায়ক পরিবেশ তৈরিতে বিশেষ দায়িত্বপ্রাপ্ত একজন তরুণ ডাক্তার। একজন গুণী চিকিৎসক তার তরুণ সময়ে এদেশে মুক্তির সংগ্রামে স্বাধীনতার সাধ পেতে জীবনের সেরা সম্পদ বিসর্জন দিয়েছেন যে নারীরা তাদের চিকিৎসা সেবায় আত্মনিয়োগ করে তিনিও যে ইতিহাসের ময়দানের গৌরবের জায়গা করে নিয়েছেন সেটাও নতুন প্রজন্ম জানতে পারবে তাঁর এ লেখায়।
সম্ভ্রমযোদ্ধাদের নিয়ে ডাঃ হালিদা এই বইটি লিখে এক বেদনাময় বাস্তব স্মৃতি রোমন্থন করেছেন। সম্ভ্রমযোদ্ধাদের তিনি বাঁচিয়ে রাখতে চেয়েছেন, যে যোদ্ধাদের কষ্টের কণ্টক মালা গাঁথতে চেয়েছেন তা ইতিহাসের দলিল হয়ে থাকবে পরবর্তী প্রজন্মের কাছে।
অনুষ্ঠানটি শুধু বইয়ের মোড়ক উন্মোচনই নয়, বরং মুক্তিযুদ্ধের একটি দলিল সংরক্ষণে সুযোগে আপনার মিডিয়ার সহায়তা একান্তভাবে কামনা করছি।

সর্বশেষ - খবর

ব্রেকিং নিউজ :