300X70
সোমবার , ৩০ অক্টোবর ২০২৩ | ৫ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
  1. অপরাধ ও দূর্নীতি
  2. আইন ও আদালত
  3. আনন্দ ঘর
  4. আনন্দ ভ্রমন
  5. আবহাওয়া
  6. আলোচিত খবর
  7. উন্নয়নে বাংলাদেশ
  8. এছাড়াও
  9. কবি-সাহিত্য
  10. কৃষিজীব বৈচিত্র
  11. ক্যাম্পাস
  12. খবর
  13. খুলনা
  14. খেলা
  15. চট্টগ্রাম

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ে বিশ্ব স্ট্রোক দিবস উদযাপিত

প্রতিবেদক
বাঙলা প্রতিদিন২৪.কম
অক্টোবর ৩০, ২০২৩ ১:১৭ পূর্বাহ্ণ

বাঙলা প্রতিদিন ডেস্ক : নানা আয়োজনে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ে ‘স্ট্রোক ব্রেইনের রোগ, হার্টের রোগ নয়’ এই স্লোগান নিয়ে বিশ্ব স্ট্রোক দিবস-২০২৩ পালিত হয়েছে। রবিবার সকালে (২৯ অক্টোবর) বিশ্ববিদ্যালয়ের বি-ব্লকে দিবসটি উপলক্ষ্যে নিউরোলজি বিভাগের উদ্যোগে একটি গণসচেতনামূলক শোভাযাত্রা ও শহীদ ডা. মিল্টন হলে একটি বৈজ্ঞানিক সেমিনারের আয়োজন করে। শোভাযাত্রাটি বিশ্ববিদ্যালয়ের বি-ব্লকের সামনে শেখ রাসেল ফোয়ারা থেকে শুরু হয়ে বটতলা, এ-ব্লক, টিএসসি প্রদক্ষিণ করে ডি-ব্লক গিয়ে শেষ হয়।

এসব কর্মসূচিতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের মাননীয় উপাচার্য অধ্যাপক ডা. মোঃ শারফুদ্দিন আহমেদ। সভাপতিত্ব করেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের মেডিসিন অনুষদের সম্মানিত ডিন ও নিউরোলোজি বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ডা. আবু নাসার রিজভী। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সোসাইটি অফ নিউরোলজিস্টস অফ বাংলাদেশ এর সভাপতি অধ্যাপক ডা. আহসান হাবিব হেলাল ও বাংলাদেশ কৃষক লীগের সভাপতি জনাব সমীর চন্দ্র। আপডেটস অন দ্যা ম্যানেজমেন্ট অফ একিউট ইসকেমিক স্ট্রোক নিয়ে আয়োজিত সেমিনারে প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের নিউরোলজি বিভাগের স্ট্রোক ডিভিশনের অধ্যাপক ডা. মোঃ শহীদুল্লাহ সবুজ। স্বাগত বক্তব্য রাখেন নিউরোলজি বিভাগের অধ্যাপক ডা. সুভাষ কান্তি দে। ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন সহযোগী অধ্যাপক ডা. আনিস আহমেদ। সেমিনারে নিউরোলজি বিভাগের শিক্ষক, চিকিৎসক, কর্মকর্তা ও কর্মচারীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন ।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে মাননীয় উপাচার্য অধ্যাপক ডা. মোঃ শারফুদ্দিন আহমেদ বলেন, স্ট্রোকের রোগীদের দ্রুত হাসপাতালে নেয়া সম্ভব হলে অনেক মৃত্যু ঠেকানোর পাশাপাশি বিকালঙ্গ রোধ করা যাবে। স্ট্রোকের রোগের চিকিৎসা করার চেয়ে স্ট্রোক প্রতিরোধ করা জরুরি। এজন্য সবাইকে সচেতন হতে হবে। খাবারে লবণ না খাওয়া, ডায়াবেটিস কন্ট্রোল করা, নিয়মিত শরীর চর্চা করা, স্ট্রেস না নেয়া, ধুমপান না করার উপর জোর দিতে হবে।

অনুষ্ঠানে জানানো হয়, বাংলাদেশে স্ট্রোক রোগীর সংখ্যা দিন দিন বাড়ছে। স্ট্রোকের চিকিৎসার জন্য স্ট্রোকে আক্রান্ত রোগীকে সাড়ে ৪ ঘণ্টার মধ্যে চিকিৎসকের কায়ে নিয়ে যাওয়া উচিত। এই সময়ের মধ্যে জরুরি চিকিৎসা সেবা দেয়া সম্ভব হলে রোগীর মৃত্যু ও পঙ্গুত্ব কমানো সম্ভব। স্ট্রোক রোগীদের বিশেষ করে মাথায় রক্তক্ষরণ হলে জরুরি অপারেশন প্রয়োজন হয়।

ইসকেমিক স্ট্রোক (রক্তবাহিকা নালিকা বন্ধ) হলে জরুরি অপারেশন করলে রোগীর জীবন বাঁচানো সম্ভব। স্ট্রোক প্রতিরোধে খাবারে তেল ও লবণের ব্যবহার কমানো, ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখা, নিয়মিত শরীরচর্চা করা, ধূমপান ও অ্যালকোহল সেবন থেকে বিরত থাকা, ডায়াবেটিস ও উচ্চরক্তচাপ থাকলে নিয়ন্ত্রণে রাখা, রক্তে কোলেস্টরলের মাত্রা নিয়ন্ত্রণে রাখা ও স্ট্রেস কমাতে নামাজ, উপাসনা বা মেডিটেশন করা অত্যন্ত জরুরি।

সর্বশেষ - খবর

আপনার জন্য নির্বাচিত

ড্রাইভিংয়ে নারীদের অংশগ্রহণ বাড়াতে সরকার কাজ করছে: ওবায়দুল কাদের 

আফগানিস্তানে বোমা হামলা: নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৪৭

ঈদে বিশ্বের করোনামুক্তি ও ফিলিস্তিনে শান্তির জন্য প্রার্থনা তথ্যমন্ত্রীর

ইসলামী ব্যাংক ও নভোএয়ারের মধ্যে সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত

কর্মহীনদের জন্য সরকারের পক্ষ থেকেই মূল উদ্যোগ নিতে হবে : জিএম কাদের

প্রথমবারের মতো ফায়ারফাইটার পদে ১৫ নারীর যোগদান

সিঙ্গার নিয়ে এলো উইন্টার স্পেশাল অফার

বাংলাদেশে ১ বিলিয়ন কিলোমিটার ট্রিপ শেষ করে উবারের ষষ্ঠ র্বষর্পূতি উদযাপন

বিশ্বসেরার তালিকায় জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ৫০ গবেষক ও বশেমুরবিপ্রবির ৯ শিক্ষক

যাত্রাবাড়ীতে যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামী গ্রেফতার

ব্রেকিং নিউজ :